টাইগারদের দৃষ্টান্ত মানেন রশিদ

বৃহস্পতিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

খেলা প্রতিবেদক : ক্রিকেটে আফগানিস্তানের উত্থান খুব বেশি আগের নয়। অথচ এর মধ্যেই বিশ^মঞ্চে নিজেদের সামর্থ্যরে প্রমাণ দিয়েছেন আফগান ক্রিকেটাররা। বিশে^র যে কোনো দলকেই হারাতে পারে তারা। দলটিতে আছেন রশিদ খানের মতো বিশ^মানের লেগ স্পিনার। আছেন মোহাম্মদ নবির মতো অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার। আর মুজিব-উর রহমানের মতো অফস্পিনার। এ ছাড়া হজরতউল্লাহ জাজাইয়ের মতো হার্ডহিটার ও আসগর আফগানের মতো অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানও আছেন দলটিতে। রঙিন পোশাকের ক্রিকেটে দুর্দান্ত পারফরমেন্স দেখিয়ে ২০১৭ সালে টেস্ট স্ট্যাটাস পাওয়া আফগানরা সাদা পোশাকে এ পর্যন্ত ৩টি ম্যাচ খেলেছে। যেখানে ২টিতেই জয় পেয়েছে তারা। এর একটি আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে। আর অপরটিতে প্রতিপক্ষ ছিল দেড় যুগেরও বেশি সময় ধরে টেস্ট ক্রিকেট খেলা বাংলাদেশ। টাইগারদের বিপক্ষে জয়টি তো এসেছে মাত্র কয়েকদিন আগেই। তবে আফগান দলপতি রশিদ অনুপ্রেরণা খোঁজছেন টাইগারদের কাছেই। ২০১৫ সালের পর থেকে বাংলাদেশের ক্রিকেটে আমূল পরিবর্তন এসেছে।

এ সময়ে ভারত, পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকা ও উইন্ডিজের মতো দলের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে টাইগাররা। খেলেছে এশিয়া কাপ ও নিদাহাস ট্রফির মতো টুর্নামেন্টের ফাইনালে। এ ছাড়া টেস্টে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের মতো পরাশক্তিকে। সুযোগ পেলে এক সময় আফগান ক্রিকেটও এমন পর্যায়ে পৌঁছাতে পারবে বলে বিশ^াস করেন রশিদ খান।

গত মঙ্গলবার রাতে বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হওয়া ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের ফাইনাল ম্যাচ শেষে এই লেগ স্পিনার বলেন, আমাদের ক্রিকেট দ্রুত উন্নতি করছে।

আমি মনে করি, সময় এবং সুযোগ পেলে আমরা এক সময় শক্তিশালী দলে পরিণত হব। এরপর টাইগারদের উদাহরণ টেনে আফগান দলপতি বলেন, বাংলাদেশকেই দেখুন, তারা দক্ষিণ আফ্রিকায় গিয়ে সিরিজ খেলেছিল। আর বিশ^কাপে সেটার ফলও পেয়েছে। দ্বাদশ বিশ^কাপে প্রোটিয়াদের হারিয়েছে টাইগাররা। সমীহ জাগানো দলে পরিণত হতে হলে আমাদের বড় দলগুলোর বিপক্ষে খেলার সুযোগ দিতে হবে। বড় দলগুলোর বিপক্ষে যত বেশি খেলার সুযোগ পাব তত বেশি শিখব। আর তাতে আমাদের অভিজ্ঞতার পাল্লাও ভারী হবে।

এ বছর থেকে প্রথমবারের মতো চালু হয়েছে আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ। সেখানে অংশগ্রহণের সুযোগ পায়নি আফগানিস্তান। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়ার অনুরোধ জানিয়ে রশিদ বলেন, এটা দারুণ একটি উদ্যোগ। তবে দুঃখজনক ব্যাপার হলো আমরা বিশ^ টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে খেলতে পারছি না। তবে আমরা টেস্টে ভালো করার জন্য চেষ্টা করছি। আমি মনে করি, আমরা ঠিক পথেই এগোচ্ছি। আশা করি, আইসিসি আমাদের অংশগ্রহণের বিষয়টি নিয়ে গুরুত্বের সঙ্গে ভাববে।

খেলা-ধূলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj