ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ছাত্রীকে হত্যার অভিযোগ

বৃহস্পতিবার, ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক, ব্রাহ্মণবাড়িয়া : জেলায় শরীফা বেগম (২৪) নামে এক ছাত্রীকে হত্যা করে ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত মঙ্গলবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। শরীফা জেলার নবীনগর উপজেলার বিদ্যাকুট ইউনিয়নের বিদ্যাকুট গ্রামের মজিবুর রহমানের মেয়ে। চলতি বছর মোহাম্মদপুর কলেজ থেকে মাস্টার্স ফাইনাল পরীক্ষায় অংশ নেন তিনি।

জানা যায়, পৌর এলাকার কলেজপাড়ার ১০১৭ নম্বর ডিসেন্ট হাউজের নিচ তলায় এক মেয়ের সঙ্গে ভাড়া থাকতেন শরীফা বেগম। মেয়েটি সম্প্রতি অন্য জায়গায় চলে যাওয়ায় তিনি একাই থাকতেন সেখানে।

নিহতের বড় বোন সোনিয়া জানান, মঙ্গলবার বিকেলে অজ্ঞাত একটি ফোনে জানানো হয় তোর বোন ফাঁসিতে ঝুলে রয়েছে। নিহত শরীফা বেগম মঙ্গলবার দুপুরে মায়ের সঙ্গে মোবাইলে সর্বশেষ কথা বলে। গ্রামের বখাটে হোসাইন দীর্ঘদিন ধরে আমার বোনকে বিয়ে করার জন্য চাপ দিচ্ছিল। শরীফা রাজি ছিল না। এতে সে শরীফাকে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছিল।

নিহতের বাবা মজিবুর রহমান জানান, আমরা তার কক্ষে এসে দেখি পুলিশ মরদেহ নামাচ্ছে। এ সময় তার পা ঘরের ফ্লোরে লাগানো অবস্থায় রয়েছে। তার ব্যবহৃত ওড়না গলার এক পাশে জড়ানো। তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি পাওয়া যায়নি। ঘরের বিভিন্ন স্থানে পোড়া সিগারেট রয়েছে। আমার মেয়ের ব্যাংকে চাকরি হওয়ার কথা ছিল। তাই আগামী মাসে বাসা ছেড়ে দিবে বলে সে জানিয়েছিল।

সদর থানার এসআই রফিকুল ইসলাম জানান, মেয়ের ব্যবহৃত মোবাইলটি পাওয়া যায়নি। রুমে সিগারেট পাওয়া গেছে। লাশের পা ফ্লোরে লাগানো ছিল। লাশের শরীরে গলার দাগ ছাড়া আর কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সারাদেশ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj