৯ প্রার্থীর মনোনয়ন জমা : এরশাদ পরিবারে ক্ষমতার দ্ব›েদ্ব দ্বিধা-বিভক্তি

মঙ্গলবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

হাসান গোর্কি, রংপুর থেকে : রংপুর-৩ সদর আসনের উপনির্বাচন ঘিরে এরশাদ পরিবারের দ্ব›দ্ব এবার প্রকাশ্য রূপ নিল। প্রয়াত জাপা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের পুত্র রাহগীর আল মাহী সাদ এরশাদ দলের পক্ষ থেকে মনোনয়ন জমা দিলেও ভাতিজা সাবেক সাংসদ এরশাদের ছোট ভাই মোজাম্মেল হোসেন লালুর পুত্র হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ায় পারিবারিক কোন্দলের বিষয়টি স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। এর ওপর নির্বাচনের মাঠ থেকে জাপা মহানগর সম্পাদক এস এম ইয়াসির সরে দাঁড়ানোতে এরশাদ পরিবারের দুই ভাই সাদ ও আসিফের মধ্যে ক্ষমতার লড়াইটা বেশ জমে উঠতে পারে বলে অনেকেই মনে করছেন।

গতকাল সোমবার রংপুর-৩ সদর আসনের উপনির্বাচনে প্রতিদ্ব›িদ্বতার জন্য আওয়ামী লীগ প্রার্থী এডভোকেট রেজাউল করিম রাজু, জাতীয় পার্টির প্রার্থী রাহগীর আল মাহী সাদ এরশাদ ও বিএনপির রিটা রহমানসহ ৯ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেন। সোমবার সকাল থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন অফিসে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন প্রার্থীরা। নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করা ১২ জন প্রার্থীর মধ্যে তিনজন তা জমা দেননি। বাকি ৯ জনের মধ্যে দুজন স্বতন্ত্র এবং অন্যরা দলীয় প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

এর আগে সকালে সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন জাতীয় পার্টির যুগ্ম মহাসচিব ও মহানগর সম্পাদক এস এম ইয়াসির। আর মনোনয়নপত্র জমা দিতে আসেননি আওয়ামী লীগের মহানগর কমিটির শ্রমবিষয়ক সম্পাদক এম এ মজিদ ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও জেলা জাপার সাধারণ সম্পাদক এস এম ফখর-উজ-জামান জাহাঙ্গীর।

আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, মনোনয়নপত্র জমাদানকারী প্রার্থীরা হলেন- আওয়ামী লীগের এডভোকেট রেজাউল করিম রাজু, জাতীয় পার্টির রাহগীর আল মাহী সাদ এরশাদ, বিএনপির রিটা রহমান, খেলাফত মজলিসের তৌহিদুর রহমান মণ্ডল, গণফ্রন্টের কাজী শহিদুল্লাহ, এনপিপির শফিউল আলম, বাংলাদেশ কংগ্রেসের একরামুল হক। এ ছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে এরশাদের ভাতিজা হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ ও বিএনপির মহানগর কমিটির সহসভাপতি কাওসার জামান বাবলা মনোনয়নপত্র জমা দেন।

উৎসবমুখর পরিবেশে সকাল থেকেই বিভিন্ন দলের প্রার্থীদের পক্ষে নেতাকর্মী ও সমর্থকরা নির্বাচন কার্যালয়ের সামনে জমায়েত হতে থাকেন। পরে দলের প্রার্থীর সঙ্গে তারা রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন। জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী রাহগীর আল মাহী সাদকে সঙ্গে নিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন দলের মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা। এ সময় তিনি বলেন, দলের সব প্রার্থীর সমর্থন ও সবার সিদ্ধান্তেই সাদকে প্রার্থী হিসেবে চূড়ান্ত করা হয়েছে। মনোনয়ন প্রত্যাশীরা সবাই সাদকে সমর্থন দিয়েছেন। তবে এরশাদের ভাতিজা সাবেক সংসদ সদস্য আসিফ শাহরিয়ার স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দেয়ায় বিষয়টি বেশ গোলমেলে হয়ে গেছে। এতে নির্বাচনের মাঠে রওশনপুত্র রাহগীর আল মাহী সাদের বিপক্ষে দেখা যাবে আসিফ শাহরিয়ারকে। এদিকে আসিফ শাহরিয়ার বলেন, জাতীয় পার্টির নেতারা তার প্রতি অন্যায় আচরণ করবে বুঝতে পেরেই তিনি দলীয় মনোনয়ন চাননি। এমনকি আবেদনও করেননি। তবে দলের বেশিরভাগ নেতাকর্মী তার সঙ্গে আছেন বলে দাবি করেন তিনি। তিনি বলেন, বহিরাগত সাদ বা যাকেই মনোনয়ন দেয়া হোক না কেন আমি জয়ী হব। কারণ সাদকে কেউ চিনে না, জানে না। মানুষ আর আগের মতো নাই যে, কাউকে লাঙ্গল দিলেই তাকে ভোট দিবে।

এদিকে, রংপুর-৩ আসনের উপনির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিলেন জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব ও মহানগর সম্পাদক এস এম ইয়াসির। সেন্ট্রাল রোড দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচনে অংশ না নেয়ার ব্যাখ্যা তুলে ধরেন তিনি। কান্নাজড়িত কণ্ঠে তৃণমূল পর্যায় থেকে রাজনীতিতে উঠে আসা এই নেতা বলেন, জাতীয় পার্টি করতে গিয়ে আমি অনেকবার মৃত্যুর মুখে পতিত হয়েছি। অনেক ষড়যন্ত্র হয়েছে। আমি ভোট করতে চাইনি। সবার অনুরোধ, উৎসাহ ও পরামর্শেই আমি নির্বাচনে অংশ নেয়ার প্রস্তুতি নিয়েছিলাম। কিন্তু এ জন্য আমাকে মেরে ফেলার ভয় দেখানো হচ্ছে। ইয়াসির বলেন, আমিতো নিজের ইচ্ছাতে ভোট করতে চাইনি। আমিতো লুটপাট করতে দলে আসেনি। আমার তো টাকা পয়সা নেই। আমি ভোট করলে কীভাবে জিতব? তাই নির্বাচন থেকে সরে যাচ্ছি। আমাকে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। আমি ভোট করতে পারলাম না। আমাকে ওরা ভোট করতে দিল না। হয়তো আমাকে আর দলেও রাখবে না। আমি এরশাদ স্যারকে ভালোবেসে এই দলে এসেছিলাম। কর্মী থেকে আজ আপনাদের নেতা হয়েছি। তারপরও কর্মীদের নিয়েই আমি থাকতে চাই।

উল্লেখ্য, জাপা চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদের মৃত্যুতে রংপুর-৩ আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। আগামী ৫ অক্টোবর ওই আসনে উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

শেষ পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj