শোল্ডারে ব্যথা হলে কী করবেন?

শুক্রবার, ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ডা. এম ইয়াছিন আলী

কেস- ১:

হাকিম সাহেব বাসে অফিসে যাচ্ছেন কিন্তু সিট পাননি দাঁড়িয়ে আছেন, ড্রাইভার হঠাৎ ব্রেক করলেন তখনি শোল্ডার জয়েন্টে আঘাত পেয়েছিলেন। ভেবেছিলেন ব্যথাটা হয়তো এমনিতেই চলে যাবে। কিন্তু দিন দিন ব্যথাটা বেড়েই যাচ্ছিল। অতঃপর ডাক্তার দেখিয়ে ওষুধ খাওয়া শুরু করলেন এবং ব্যথার কারণে হাত নাড়ানো বন্ধ রাখলেন। ৩ সপ্তাহ পর যখন তিনি হাত নাড়ানোর চেষ্টা করলেন, দেখলেন বাম হাতের নাড়ানোর ক্ষমতা ডান হাতের তুলনায় অনেক কমে গেছে।

কেস- ২:

রাহিমা বেগম ইদানীং খেয়াল করেছেন, ডান হাত দিয়ে জামা-কাপড় পরতে কষ্ট হয়, মাথা আঁচড়ানোর সময় শোল্ডার জয়েন্টে ব্যথা পাচ্ছেন। অথচ তিনি কোনো আঘাত পাননি। তাই ভেবেছিলেন ব্যথাটা হয়তো এমনিতেই চলে যাবে। কিন্তু দিন দিন ব্যথাটা বেড়েই যাচ্ছিল। কিছুদিন পর দেখলেন, এখন আর তিনি ডান হাত উপরে উঠাইতে পারেন না

উপরে উল্লিখিত দুই ব্যক্তির সমস্যার সূচনা ভিন্ন হলেও, দুজনই ফ্রোজেন শোল্ডার নামক সমস্যায় ভুগছেন। আসুন তাহলে এবার জেনে নিই ফ্রোজেন শোল্ডার কি এবং এই রোগে কি ধরনের চিকিৎসা প্রয়োজন।

ফ্রোজেন শোল্ডার :

ফ্রোজেন শোল্ডারকে বাংলায় বলতে পারি, হাতের সঙ্গে কাঁধের জয়েন্ট শক্ত হয়ে যাওয়া। এটি কাঁধের জয়েন্টের প্রদাহজনিত রোগ। এ ক্ষেত্রে জয়েন্টের মধ্যকার সাইনোভিয়াল ফ্লুইড নামক এক ধরনের তরল পদার্থ কমে যায়। যার ফলে শোল্ডার জয়েন্ট ধীরে ধীরে শক্ত হয়ে যেতে থাকে। ফ্রোজেন শোল্ডারকে চিকিৎসা বিজ্ঞানের পরিভাষায় এডহেসিভ ক্যাপসুলাইটিস বলা হয়। এই রোগ সাধারণত ৪০-৬০ বছর বয়সের মানুষের বেশি হয়, তবে পুরুষের তুলনায় মহিলাদের বেশি হয়ে থাকে।

লক্ষণসূমহ :

-শোল্ডার জয়েন্টে ব্যথা

-জয়েন্ট শক্ত হয়ে যাওয়া

-জয়েন্টের নাড়ানোর ক্ষমতা কমে যাওয়া

-আক্রান্ত পাশে ঘুমাতে না পারা ইত্যাদি

ফ্রোজেন শোল্ডার কেন হয়?

এই রোগের প্রধান কারণ এখন পর্যন্ত সঠিকভাবে জানা যায়নি। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে এই রোগ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। যেমন-

-ডায়াবেটিস আক্রান্ত রোগীরা

-কাঁধের জয়েন্টে আঘাত পেলে

-কোনো কারণে জয়েন্ট দীর্ঘদিন নাড়ানো না হলে

-ফুসফুস, হৃৎপিণ্ডের বা হাতের অপারেশন-পরবতী সময়ে

-থাইরয়েডের সমস্যা থাকলে

চিকিৎসা পদ্ধতি :

ফ্রোজেন শোল্ডার রোগীর কাছে ব্যথা প্রধান সমস্যা মনে হলেও, তার মূল সমস্যা হলো জয়েন্ট শক্ত হয়ে যাওয়া। রোগী যত ব্যথার ভয়ে হাত নাড়ানো বন্ধ রাখবে, তার জয়েন্ট তত বেশি শক্ত হয়ে যাবে। তাই রোগীকে বুঝাতে হবে, ব্যথার ওষুধের চেয়ে হাত নাড়ানোর চিকিৎসা করা বেশি জরুরি। এ ক্ষেত্রে রোগীর ব্যথা নিয়ন্ত্রণে রেখে হাত নাড়ানোর ক্ষমতা ফিরে পাওয়ার একমাত্র চিকিৎসা পদ্ধতি হলো সঠিক ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা।

রোগীকে ওষুধের পাশাপাশি সঠিকভাবে ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা নিতে হবে।

ফ্রোজেন শোল্ডারের ক্ষেত্রে ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা :

একজন বিশেষজ্ঞ ফিজিওথেরাপি চিকিৎসক রোগীর রোগের বর্ণনা, ফিজিক্যাল টেস্ট, থেরাপিউটিক স্পেশাল টেস্ট এবং রেডিওলজিক্যাল টেস্টের মাধ্যমে রোগীর জয়েন্টের সমস্যাসূমহ নির্ণয় করে থাকেন। অতঃপর রোগীর সমস্যানুযায়ী চিকিৎসার পরিকল্পনা বা ট্রিটমেন্ট প্ল্যান করেন এবং সেই প্ল্যান অনুযায়ী ফিজিওথেরাপি চিকিৎসাসেবা প্রদান করে থাকেন।

চেয়ারম্যান ও চিফ কনসালটেন্ট

ঢাকা সিটি ফিজিওথেরাপি হাসপাতাল

ধানমন্ডি, ঢাকা।

পরামর্শ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj