মিসবাহর কাঁধে দুই দায়িত্ব

বৃহস্পতিবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

খেলা ডেস্ক : দ্বাদশ বিশ^কাপে প্রত্যাশা অনুযায়ী ফল না হওয়ার কারণে সমালোচিত হয়েছেন পাকিস্তানের কোচ মিকি আর্থার। তাই চুক্তি নবায়ন না করে হেড কোচ আর্থার এবং তার কোচিং প্যানেলকে একসঙ্গে বাদ দেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। সরফরাজদের কোচ কে হবেন এ নিয়ে ক্রিকেটপ্রেমীদের আগ্রহের কমতি নেই। অবশেষে সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে গতকাল সাবেক অধিনায়ক মিসবাহ-উল হককেই আগামী ৩ বছরের জন্য প্রধান কোচ হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে পিসিবি। তিন ফরমেটে ৩ বছরের চুক্তিতে জাতীয় দলের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে তাকে। এ ছাড়া পাকিস্তান ক্রিকেট দলের প্রধান নির্বাচক হিসেবেও দায়িত্বরত থাকবেন মিসবাহ। দুই বিভাগেই গুরু দায়িত্ব পেলেন তিনি। পাকিস্তান ক্রিকেট দলে মিসবাহ-উল হকের এই দুই ভূমিকা পছন্দ করছেন না ভারতের জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার হার্শা ভোগলে। টুইটারে তিনি জানিয়েছেন সতর্ক বার্তা। তার মতে, এমনটি হলে খেলোয়াড়রা কোচের সঙ্গে পুরোপুরি সৎ থাকতে পারবে না। এ বিষয় টুইটারে ভোগলে লেখেন, এক ব্যক্তিকে একই সঙ্গে দলের কোচ ও প্রধান নির্বাচক করার ধারণাটা আমি কখনোই পছন্দ করি না। অনেক সময় খেলোয়াড়রা কোচের কাছে বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে আসে। যদি তারা মনে করে, সমস্যা কোচ জানলে সে দল থেকে বাদ পড়তে পারে, তাহলে তারা কখনোই কোচের সঙ্গে সৎ থাকবে না।

তবে যে যাই বলুক, মিসবাহর প্রতি অগাধ আস্থা পিসিবির। তাই তার সঙ্গে প্রত্যাশিতভাবে ওয়াকার ইউনুসকে বোলিং কোচের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩টি ওয়ানডে ও ৩টি টি-টোয়েন্টি খেলবে পাকিস্তান। এ সিরিজটিই হবে কোচ হিসেবে মিসবাহ-ওয়াকার জুটির প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট।

খেলা-ধূলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj