তাজিকিস্তানে জেমি ডের শিষ্যরা

মঙ্গলবার, ৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

খেলা প্রতিবেদক : কাতার বিশ^কাপ ফুটবল ২০২২ বাছাইয়ের দ্বিতীয় পর্বের প্রথম ম্যাচ খেলতে গতকাল বাংলাদেশ সময় ভোর ৬টায় তাজিকিস্তানের রাজধানী দুশানবেতে পৌঁছেছে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল। দলের সবাই সুস্থ এবং ফিট আছেন। সেখানকার আটলাস হোটেলে ভ্রমণ ক্লান্তি কাটিয়ে বিকেল ৪টায় অনুশীলন করার কথা টিম বাংলাদেশের। মাত্র এক সেশনের অনুশীলন করেই প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচ এফসি কুকতোশের বিপক্ষে খেলবে জেমি ডে শিষ্যরা। হিশারে আজ সন্ধ্যা ৭টায় ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে।

তাজিকিস্তান দক্ষিণ-পূর্ব মধ্য এশিয়ার একটি স্থলবেষ্টিত প্রজাতন্ত্র। এর উত্তরে কিরগিজস্তান, উত্তরে ও পশ্চিমে উজবেকিস্তান, পূর্বে গণচীন এবং দক্ষিণে আফগানিস্তান। দেশটির শতকারা ৯০ শতাংশের বেশি এলাকা পর্বতময়। পামির এবং আলায় দুইটি প্রধান পর্বতমালা। আফগানদের বিপক্ষে ম্যাচটি আগামী ১০ সেপ্টেম্বর হলেও তাজিকিস্তানের কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে আগে ভাগেই সেখানে গিয়েছেন জামাল-রানারা। সেখানকার বর্তমান তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানরা নিজেদের মাঠে খেলতে পারবে না, ব্যাপারটা অনুমিতই ছিল। অনেক জল্পনা-কল্পনা শেষে গত মাসে তাজিকিস্তানকেই নিজেদের হোমগ্রাউন্ড হিসেবে ঘোষণা দেয় তারা। আফগানদের মুখোমুখি হওয়ার আগে মঙ্গলবার স্থানীয় দল এফসি কুকতোশের পর ৫ সেপ্টেম্বর জামালদের দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচের প্রতিপক্ষ সিএসকেএ পামির।

লাওসের বিপক্ষে বিশ^কাপ বাছাইয়ের প্রথম ধাপে দুই লেগ মিলিয়ে ১-০ গোলের জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ। সেই জয়ে দ্বিতীয় ধাপে উন্নীত করে লাল সবুজের প্রতিনিধিরা। এবার ‘ই’ গ্রুপে জেমি ডের শিষ্যদের লড়াইটা হবে র‌্যাঙ্কিংয়ে নিজেদের চেয়ে এগিয়ে থাকা আফগানিস্তান, ভারত, কাতার এবং ওমানের সঙ্গে। যার শুরুটা আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে।

এর আগে দেশের মাটিতে সপ্তাহখানেক প্রস্তুতি শেষে রবিবার সকালে তাজিকিস্তানের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়ে কোচ জেমি ডের দল। দুবাই যাত্রা বিরতি শেষে ভোররাতে দুশানবেতে পৌঁছায় লাল সবুজের প্রতিনিধিরা। দেশের মাটিতে সকালে মাঠে অনুশীলন, বিকেলে জিমনেশিয়ামে ঘাম ঝরানো আর রাতে টিম সেশন- এভাবেই কেটেছে সাত দিনের বিশ^কাপ প্রস্তুতির প্রথম পর্ব। ফুটবলারদের ফিটনেস বা মানসিক সামর্থ্যে কোনো কমতি দেখেননি দলের ইংলিশ কোচ জেমি ডে। তবে এএফসি কাপের দ্বিতীয় লেগে চোটের শিকার হওয়া জুয়েল রানা ও চোটাক্রান্ত মামুনুল ইসলামকে নিয়ে প্রশ্ন উঠায় বাফুফের ঘনিষ্ঠ সূত্র অবশ্য জানিয়েছে, দুজনই আফগান ম্যাচের আগে ঠিক হয়ে যাবেন। আফগান ম্যাচের কৌশল ও প্রতিপক্ষ দলের দুর্বলতা নিয়েও সচেতন জেমি। তিনি বলেন, আমরা আফগানিস্তানকে নিয়ে কাজ করেছি। তাদের দুর্বলতা নিয়ে কাজ করছি। সেটা অচিরেই মাঠে বাস্তবায়ন করার চেষ্টা করব।

শক্তিশালী আফগানদের র‌্যাঙ্কিং ১৪৯ বিপক্ষে বাংলাদেশের র‌্যাঙ্কিং ১৮২। কৌশলটা এবারো রক্ষণাত্মকসহ প্রতি-আক্রমণের হবে সেটা দলের ফুটবলারদের অবস্থান দেখে কিছুটা আঁচ করা যায়। চূড়ান্ত দলে ৭ জন ডিফেন্ডার আছেন। দলের প্রত্যেক পজিশনকেই গুরুত্ব দিয়ে ১০ সেপ্টেম্বরের ম্যাচে মুখোমুখি হতে চান জেমি। দলের সব পজিশনে ভালো প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। সব পজিশনের সেরা ফুটবলারদের সমন্বয় করার চ্যালেঞ্জ আমাদের।

তবে শেষ চার ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে লাল সবুজের প্রতিনিধিদের জয় না থাকলেও তাদের বিপক্ষে পয়েন্ট অর্জনের মিশনে নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী সেরাটা দিতে পারলে ভালো কিছু সম্ভব বলছেন বাংলাদেশ কোচ। সে আশায় তাকিয়ে দেশের ফুটবলপ্রেমীরা।

খেলা-ধূলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj