বাসদের মানববন্ধন : চামড়া সিন্ডিকেট চক্র চিহ্নিত করে শাস্তির দাবি

বৃহস্পতিবার, ১৫ আগস্ট ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : নির্ধারিত মূল্যের তোয়াক্কা না করে, জনগণকে পানির দামে চামড়া বিক্রি করতে বাধ্য করার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ। সিন্ডিকেট চক্র চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে দলটি। গতকাল বুধবার বাসদের ঢাকা মহানগর শাখার উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে এ দাবি জানানো হয়।

বাসদ ঢাকা মহানগর শাখার আহ্বায়ক বজলুর রশীদ ফিরোজের সভাপতিত্বে মানববন্ধন ও সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাসদ ঢাকা নগরের সদস্য সচিব জুলফিকার আলী, সদস্য খালেকুজ্জামান রিপন, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব বুলবুল, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের সভাপতি ইমরান হাবিব রুমন, সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের সাধারণ সম্পাদক শম্পা বসু।

সমাবেশে বজলুর রশীদ ফিরোজ বলেন, চাহিদার প্রায় ৬০ ভাগ চামড়া সংগ্রহ করা হয় কুরবানির সময়। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কুরবানির পশুর চামড়ার দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে।

ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলোচনা করেই দাম নির্ধারণ করা হয়েছিল। কিন্তু নির্ধারিত মূল্যের ৪ ভাগের ১ ভাগ দামে ব্যবসায়ীরা চামড়া কিনছে। আর জনগণ এই সিন্ডিকেটের কাছে অসহায় হয়ে পানির দামে বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছেন। আবার অনেকে ক্ষোভে পশুর চামড়া মাটিতে পুঁতে ফেলছেন।

নেতারা বলেন, আমাদের দেশে সিন্ডিকেটের কারণে কৃষক ধানের ন্যায্য দাম পায় না, কুরবানির পশুর চামড়ার দাম জনগণ পায় না, সিন্ডিকেটের কারণে দ্রব্যমূল্য বাড়ে। এমনকি ডেঙ্গু মশার ওষুধ ক্রয়ে দুই কোম্পানি সিন্ডিকেট করে রাষ্ট্রীয় অর্থ লুটপাট করছে। আর্থিক ও ব্যাংক খাতে সিন্ডিকেটের লুটপাট চলছে।

নেতারা আরো বলেন, ব্যবসায়ীদের খেলাপি ঋণের সুদ মওকুফ করা হচ্ছে, ১০ বছরের জন্য অবলোপন করা হয় ঋণ। অপরদিকে কৃষকের মাত্র ৫০০ টাকা কৃষি ঋণের কারণে তাদের নামে সার্টিফিকেট মামলা দিয়ে কোমরে দড়ি বেঁধে নিয়ে যাওয়া হয়। তারা বলেন, এগুলো জনগণের পক্ষের নীতি হতে পারে না। চামড়া সিন্ডিকেট চক্রের শাস্তি দাবি করে নেতারা জনগণের পক্ষের নীতি প্রণয়নের আন্দোলনে দেশবাসীকে যুক্ত হওয়ার আহ্বান জানান।

দ্বিতীয় সংস্করন'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj