ঘরের মাঠে ছাড় দিতেনারাজ আবাহনী

বৃহস্পতিবার, ১৫ আগস্ট ২০১৯

খেলা প্রতিবেদক : এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (এএফসি) কাপের দ্বিতীয় পর্বে (ইন্টার জোন সেমিফাইনাল) বাংলাদেশ লিগের ছয়বারের চ্যাম্পিয়ন ঢাকা আবাহনীর প্রতিপক্ষ উত্তর কোরিয়ার চ্যাম্পিয়নরা। কঠিন প্রতিপক্ষের বিপক্ষে নকআউট পর্বে আবাহনীর প্রথম পরীক্ষা ঢাকায় ২১ আগস্ট। ঘরের মাঠে জিততে মরিয়া ঢাকা আবাহনী শক্তি বৃদ্ধিতে দলে ভিড়িয়েছে নতুন দুই বিদেশি। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে সন্ধ্যা পৌনে ৭টায়। আর ফিরতি লেগ হবে ২৮ আগস্ট পিয়ংইয়ং-এ।

২০১৭ সালে সুযোগ পাওয়ার পর থেকে এএফসি কাপের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলে রাজত্ব করেছে ভারতের বেঙ্গালুরু এফসি। এবার তাদের পিছনে ফেলে এশিয়ান ফুটবলে নতুন রাজত্ব গড়েছে আবাহনী। এএফসি কাপ-২০১৯ এর প্রথম পর্বে ৬ ম্যাচে ৪ জয়, ১ ড্র আর ১ হারে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে ‘ই’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয় মারিও লেমসের শিষ্যরা। বিপরীতে গ্রুপ পর্বে ৬ ম্যাচে ৫ জয়ের বিপরীতে মাত্র এক ম্যাচ হেরেছে এপ্রিল টোয়েন্টি ফাইভ।

মৌসুমজুড়ে ঢাকা আবাহনীতে দুর্দান্ত খেলা আফগানিস্তানের ডিফেন্ডার মাসিহ সাইঘানির ভারতীয় ক্লাব চেন্নাইয়ান এফসিতে যোগ দেয়ায় এবং ইনজুরির সঙ্গে লড়তে থাকা ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার ওয়েলিংটন প্রাইওরিকে ছেড়ে দিয়েছে আবাহনী। দুজনের শূন্যতা পূরণে ডিফেন্ডার আলা এলদিন নাসির ও দক্ষিণ কোরিয়ান মিডফিল্ডার লি তাইমিনকে উড়িয়ে আনা হয়েছে। দুজনই ইতোমধ্যে কোচ মারিও লেমোসের অধীনে প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন। মিসরের স্টপার আলা এলদিন নাসির আবাহনীতে নতুন হলেও বাংলাদেশে আগেও এসেছেন। মালদ্বীপের টিসি স্পোর্টসের হয়ে দুই বছর আগে তিনি খেলে গেছেন চট্টগ্রাম শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপে। গত ২ আগস্ট থেকে আবাহনী এএফসি কাপের প্রস্তুতিতে নেমেছে।

কড়া রোদ আর ভ্যাপসা গরমে অনুশীলনে ব্যস্ত আবাহনী কোচ মারিও লেমোসের দৃষ্টি এখন দলের নতুন দুই সদস্য কোরিয়ান মিডফিল্ডার ১৮ নম্বর জার্সির লি আর ৩১ নম্বর জার্সিতে অনুশীলনে ব্যস্ত মিসরীয় সেন্টারব্যাক নাসিরের দিকে। কোরিয়ান ক্লাবকে মোকাবেলা করতে দলে কোরিয়ান মিডফিল্ডার যোগ হওয়ায় খুশি আবাহনী কোচ। সন্তুষ্টি আছে নাসিরের ব্যাপারেও। তিনি বলেন. আমরা প্রতিপক্ষের ভুলের অপেক্ষায় থাকব, তবে নিজেদের কোনো ভুল করা যাবে না, তাহলেই রেজাল্ট নিজেদের পক্ষে আসবে। কোরিয়ান আর্মি ক্লাবটা বেশ শক্তিশালী, আমরাও নিজেদের গুছিয়ে নিয়েছি, নতুন দুজন যোগ হয়েছে দলে, আশা করি ভালো কিছু হবে।

এএফসি কাপ নকআউট পর্বে ঢাকা আবাহনীর বিপক্ষে পরিষ্কার ফেভারিট এপ্রিল টোয়েন্টি-ফাইভ স্পোর্টস ক্লাব। এটা মানছেন সদ্য আবাহনীতে যোগ দেয়া মিসরীয় সেন্টারব্যাক নাসির। ২৮ বছর বয়সী মিসরীয় এ ফুটবলারের মতে, উত্তর কোরিয়ার ক্লাবটিকে হারানো কঠিন, তবে অসম্ভব নয়।

অন্যদিকে দক্ষিণ কোরিয়ান মিডফিল্ডার লি সম্পর্কে তিনি কোচ লেমস বলেন, লি কঠোর পরিশ্রমী, বক্স টু বক্স খেলা মিডফিল্ডার। সেন্টারব্যাক হিসেবে খেলার ক্ষমতাও রয়েছে তার। দুই ফুটবলারের অন্তর্ভুক্তি দলের শক্তি বৃদ্ধি করবে বলে মনে করেন আবাহনী কোচ।

দুই লেগের প্রতিপক্ষ সম্পর্কে আবাহনী কোচ বলেন, উত্তর কোরিয়ার দলটি দ্রুতগতিতে দুই উইং ধরে খেলে। প্রতিপক্ষ দল হয়তো বক্সে প্রচুর ক্রস ফেলবে। তাদের রোখার জন্য দীর্ঘদেহী ডিফেন্ডার প্রয়োজন ছিল। এ জায়গায় আলায়েলদিন বেশ কার্যকরী হয়ে উঠতে পারে। দেখা যাক, কী হয়।

এএফসি কাপের ইন্টার জোন সেমিফাইনালের বিজয়ী দল খেলবে ইন্টার জোন প্লে-অফ ফাইনালে। এই ম্যাচের বিজয়ীরা চলে যাবে এএফসি কাপের ফাইনালে। ২ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় ফাইনালের অন্য দল আসবে ওয়েস্ট জোন থেকে। ওয়েস্ট জোন ফাইনালের প্লে-অফে মুখোমুখি হবে জর্ডানের আল জাজিরা ও লেবাননের আল আহেদ।

খেলা-ধূলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj