নন্দীগ্রামে বাল্যবিয়ে বন্ধ করলেন ইউএনও

রবিবার, ১১ আগস্ট ২০১৯

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার নন্দীগ্রামে পৌরসভায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ের হাত থেকে রক্ষা পেল আমিনা খাতুন (১৫) নামের এক স্কুলছাত্রী। গত বৃহস্পতিবার রাতে পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের বেলঘরিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আমিনা খাতুন ওই গ্রামের আমিনুল ইসলামের মেয়ে ও কাজী আব্দুল ওয়াজেদ উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী।

জানা গেছে, আমিনা খাতুনের বিয়ে একই গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে সাকিব হোসেনের (১৫) সঙ্গে ঠিক করেন তার পরিবারের লোকজন। বৃহস্পতিবার রাতে এ বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। সে উপলক্ষে কনের বাড়িতে বিয়ের আয়োজন চলছিল।

সংবাদ পেয়ে ইউএনও মোছা. শারমিন আখতার পুলিশ নিয়ে বিয়ে বাড়িতে হাজির হন। তারা সেখানে গিয়ে কনের বাবা-মা এবং পরিবারের সবাইকে বিয়ের কুফল সম্পর্কে অবহিত করলে ১৮ বছর না হওয়া পর্যন্ত তারা মেয়ের বিয়ে দেবেন না বলে মুচলেকা দেন।

এদিকে বিয়েবাড়িতে ইউএনওর উপস্থিতির খবর পেয়ে বরপক্ষের লোকজন ফিরে যান।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj