গরু চুরি করে পালানো সিংগাইরে গাড়ি থেকে পড়ে চোর নিহত আহত ২

রবিবার, ১১ আগস্ট ২০১৯

মানিকগঞ্জ ও সিংগাইর প্রতিনিধি : মানিকগঞ্জের সদর উপজেলা গকুলনগর থেকে গরু চুরি করে পিকআপ নিয়ে পালানোর সময় সিংগাইরে পুলিশের ধাওয়ায় গাড়ি থেকে পড়ে একজন নিহত হয়েছে। গুলিবিদ্ধসহ গণপিটুনিতে অপর দুজন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় সিংগাইর থানার উপপুলিশ পরিদর্শক আল মামুনও আহত হয়েছেন। গাড়ি থেকে পড়ে নিহত ওই ব্যক্তির নাম বাবুল মণ্ডল (৪০)। তার বাড়ি হরিরামপুর উপজেলার সুলতানপুর গ্রামে।

সিংগাইর থানার ওসি খন্দকার ইমাম হোসেন জানান, শুক্রবার ভোরে মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার গকুলনগর থেকে তমছের আলীর বাড়ি থেকে একটি ষাঁড় ও আজমত আলীর বাড়ি থেকে একটি গাভী চুরি করে ৬ জন চোর একটি পিকআপ ভ্যানে (ঢাকা মেট্রো-ন ১৩-৬৬২৫) তুলে নিয়ে সিংগাইরের দিকে আসছিল। এ খবর পেয়ে উপপুলিশ পরিদর্শক আল মামুন পুলিশ নিয়ে সিংগাইর বাসস্ট্যান্ডে ওই পিকআপটিকে থামানোর চেষ্টা করেন। এ সময় ওই পিকআপটি পুলিশ সদস্যদের নির্দেশ অমান্য করে দ্রুত চলে যাওয়ার সময় উপপুলিশ পরিদর্শক আল মামুন পিকআপের পেছনে ওঠে পড়েন। এ সময় গরুচোররা আল মামুনকে মারধর করলে তিনি আত্মরক্ষার্থে ১০ রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করেন। এ সময় চলন্ত পিকআপ থেকে গরুচোরদের একজন লাফ দিয়ে নেমে পড়তে গিয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। তিনি হরিরামপুর উপজেলার সুলতানপুর গ্রামের চান্দু মণ্ডলের ছেলে বাবুল মণ্ডল। পিকআপটি দ্রুত পালানোর সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে চররাজনগর মানিকনগর আলিম মাদ্রাসার দেয়ালে ধাক্কা লেগে থেমে যায়। এ সময় উপপুলিশ পরিদর্শক আল মামুনের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এসে দুই গরু চোরকে ধরে গণপিটুনি দেন।

এদের মধ্যে সিংগাইর উপজেলার মাধবপুর গ্রামের আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য ছকেল দেওয়ানের ছেলে মিলন দেওয়ানের (৩০) পায়ে গুলি লাগে। তাকে পুলিশ পাহারায় ঢাকায় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। গণপিটুনিতে আহত অপরজন অজ্ঞাত পরিচয় ৩৫ বছরের ওই ব্যক্তিকে মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে গরুচোরদের মারধরে আহত উপপুলিশ পরিদর্শক আল মামুনকে সিংগাইর উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্র ভর্তি করা হয়েছে।

উদ্ধার করা গরু ও পিকআপটি থানায় রাখা হয়েছে। আর নিহত বাবুল মণ্ডলের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মানিকগঞ্জ ২৫০ শয্যা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় আহত উপপরিদর্শক আল মামুন বাদী হয়ে মামলা করবেন বলে নিশ্চিত করেছেন সিংগাইর থানার ওসি।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj