ডেঙ্গু পরিস্থিতি : ১০ দিনেই আক্রান্ত ২০ হাজারের বেশি

রবিবার, ১১ আগস্ট ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : আগের দুদিন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে রোগী ভর্তির সংখ্যা কমলেও গতকাল শনিবার থেকে তা আবার বাড়তে শুরু করেছে। চলতি আগস্ট মাসের ১০ দিনেই আক্রান্তের সংখ্যা ২০ হাজার ছাড়িয়েছে। এদিকে ঢাকার বাইরেও বাড়ছে ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা। বিভাগ অনুযায়ী ঢাকা বিভাগে (ঢাকা শহর বাদে) আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। আর সিলেটে এ সংখ্যা কম। আক্রান্তদের ৭৬ শতাংশই চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

২৪ ঘণ্টায় এই জ¦রে আক্রান্তের সংখ্যা শতক পেরিয়ে হাজারের ঘরে পৌঁছে ২৯ জুলাই। ওই দিন আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১ হাজার ২১৭ জন। এরপর থেকেই ক্রমাগত বাড়তে থাকে এই সংখ্যা। আর চলতি ডেঙ্গু মৌসুমে ১০ আগস্ট পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ছিল ৭ আগস্ট। সেদিন আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ২ হাজার ৪২৮ জন। সরকারি তথ্য অনুযায়ী, ১ আগস্ট হাজার ৭৩৭, ২ আগস্ট ১ হাজার ৮২, ৩ আগস্ট ১ হাজার ৭০৩, ৪ আগস্ট ১ হাজার ৮৯৬, ৫ আগস্ট ২ হাজার ৮৫, ৬ আগস্ট ২ হাজার ৩৪৮, ৭ আগস্ট ২ হাজার ৪২৮, ৮ আগস্ট ২ হাজার ৩২৬, ৯ আগস্ট ২ হাজার ২ এবং ১০ আগস্ট ২ হাজার ১৭৬ জন আক্রান্ত হয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার এন্ড কন্ট্রোল রুমের তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরের পহেলা জানুয়ারি থেকে ১০ আগস্ট পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৩৮ হাজার ৮৪৪ জন। ঢাকার বাইরে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১২ হাজার ১৯৬ জন। মারা গেছেন ২৯ জন। শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে গতকাল শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ২ হাজার ১৭৬ জন। ঢাকার বাইরে এই সংখ্যা ১ হাজার ১১১ জন। আগস্ট মাসে ২০ হাজার ৩৮৩ জন আক্রান্ত হয়। মৃত্যু হয় ৭ জনের। জুলাই মাসে ১৬ হাজার ২৫৩ আক্রান্ত এবং ১৭ জনের মৃত্যু, জুনে ১ হাজার ৮৮৪ জন আক্রান্ত এবং ৩ জনের মৃত্যু হয়। মে মাসে ১৯৩ জন আক্রান্ত হলেও কোনো মৃত্যু হয়নি। এপ্রিলে ৫৮ জন আক্রান্ত এবং ২ জনের মৃত্যু হয়। বিভাগ অনুযায়ী, ঢাকা বিভাগে (ঢাকা শহর বাদে) ২৪ ঘণ্টায় এবং মোট আক্রান্তের সংখ্যা সবেচেয়ে বেশি। আর সিলেটে এ সংখ্যা কম। ঢাকায় এ সংখ্যা যথাক্রমে ২৭৭ ও ৩ হাজার ১৩৩। আর সিলেটে ৩২ ও ৪৩৭ জন। চট্টগ্রামে ২৬৬ ও ২ হাজার ৪২৪, বরিশালে ১৭৮ ও ১ হাজার ৩৭১, খুলনায় ১২৬ ও ১ হাজার ৭৬৪, রাজশাহীতে ১১৪ ও ১ হাজার ৩৫৫, ময়মনসিংহে ৮৭ ও ৯৪৭ এবং রংপুরে ৭১ ও ৭৬৫ জন।

৭৬ শতাংশ ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসা শেষে বাড়ি ফিরেছে-স্বাস্থ্য অধিদপ্তর : গতকাল ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের আয়োজিত নিয়মিত পর্যালোচনা সভায় জানানো হয়, চলতি বছরের শুরু থেকে ৯ আগস্ট শুক্রবার পর্যন্ত ৭৬ শতাংশ ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছে। ৭ আগস্টের তুলনায় গত ৮ এবং ৯ আগস্ট চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফেরা রোগীর হার বেড়েছে যথাক্রমে ২৪ শতাংশ ও ১৯ শতাংশ। তবে, ঢাকার বাইরে সারাদেশে ভর্তি থাকা রোগীর সংখ্যা বেড়েছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ এই সভায় সভাপতিত্ব করেন।

এক জনের মৃত্যু : ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল সকালে মারা গেছে রুশা (১০) নামে এক স্কুল ছাত্রী।

মনিটরিং সেলের বিভিন্ন হাসপাতাল পরিদর্শন : প্রতিদিনই রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতাল পরিদর্শনে যাচ্ছে আওয়ামী লীগের ‘ডেঙ্গু প্রতিরোধ ও চিকিৎসা মনিটরিং সেল’। গতকাল সকালে বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশনের সভাপতি ও সেলের আহ্বায়ক ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিনের নেতৃত্বে একদল চিকিৎসক হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও সেন্ট্রাল হাসপাতাল পরিদর্শন করেন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন সেলের সদস্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়–য়া, অধ্যাপক ডা. শারফুদ্দিন আহমেদ, অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল্লাহ, ডা. পূরবী রানী দেবনাথ প্রমুখ।

প্রথম পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj