নানা কর্মসূচি : বঙ্গমাতার জন্মবার্ষিকী পালিত

শুক্রবার, ৯ আগস্ট ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিণী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৮৯তম জন্মবার্ষিকী। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টায় বনানী কবরস্থানে তার সমাধিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনের মাধ্যমে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়। এ ছাড়া আলোচনা সভা, কুরানখানি, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলসহ দেশব্যাপী নানা কর্মসূচি পালন করে আওয়ামী লীগ ও এর বিভিন্ন সহযোগী এবং ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনসহ নানা সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। রাজধানীতে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আলোচনা সভার আয়োজন করে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

এদিকে সকালে দলের পক্ষ থেকে বঙ্গমাতার কবরে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব পর্দার অন্তরালে থাকা সাহসী এক নারী। বঙ্গবন্ধুর দীর্ঘ ১২ বছরের জেল জীবনে তিনি একদিকে ঘর, অন্যদিকে দল সামলেছেন। কিন্তু সামনে না এসে থেকেছেন সবসময় পর্দার অন্তরালে। দেশের ইতিহাসের অসীম সাহসী এই নারীর আগস্টেই জন্ম, আগস্টেই তার রক্তাক্ত বিদায়। আনন্দ-বেদনা হাসি-কান্নার মিশেলে বাংলার ইতিহাসের বীর এই নারীর প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করতে এসেছি।

কাদের বলেন, বেগম মুজিব শুধু বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী নয়, ছিলেন সহকর্মী, বন্ধু। শেখ মুজিবুর রহমানের দীর্ঘ এক যুগের জেল জীবনে একদিকে যেমন পরিবারকে সামলেছেন ঠিক তেমনি সে সময়ে দলকে সামলানোর দায়িত্বও ছিল তার কাঁধে। তিনি কখনো সামনে আসেননি, পর্দার আড়ালে থেকেই তার কাজ সম্পাদন করে গেছেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম ও এ কে এম এনামুল হক শামীম, তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ ও কার্যনির্বাহী সদস্য মারুফা আক্তার পপি।

এ ছাড়া শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তর-দক্ষিণ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগ, যুব মহিলা লীগসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন। পরে বঙ্গমাতার আত্মার শান্তি এবং দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনায় মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

এদিকে দিবসটি উপলক্ষে দুপুরে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপকমিটির উদ্যোগে ডেঙ্গু প্রতিরোধ ও বন্যাদুর্গতদের মাঝে ঈদসামগ্রী বিতরণ করা হয়। দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এতে উপস্থিত ছিলেন।

সকালে রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমিতে আলোচনা সভার আয়োজন করে আওয়ামী যুবলীগ। সংগঠনের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরীর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু। বক্তব্য রাখেন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য শহীদ সেরনিয়াবাত, মুজিবুর রহমান চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন মহী, দপ্তর সম্পাদক কাজী আনিসুর রহমান প্রমুখ।

শেষ পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj