আরইবির ডিজিএম সম্মেলন অনুষ্ঠিত

রবিবার, ১৪ জুলাই ২০১৯

বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের আওতাধীন ৮০টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির (পবিস) ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) সম্মেলন বাপবি বোর্ডের সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে সমগ্র বাংলাদেশের ৮০টি পবিসের তিন শতাধিক ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) অংশগ্রহণ করেন। সম্মেলনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিব বর্ষ’-কে আরইবির সেবা বর্ষ হিসেবে পালনের ঘোষণা করা হয়। মুজিব বর্ষে আরইবির বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য ৮টি লক্ষ্যমাত্রা হলো- ১। মুজিব বর্ষকে সেবা বর্ষ হিসেবে পালন করা; ২। জনগণের শতভাগ বিদ্যুৎ সুবিধা নিশ্চিত করা; ৩। গ্রাহক হয়রানি নিরসনে ‘আলোর ফেরিওয়ালা’ কর্মসূচি অব্যাহত রাখা; ৪। ‘আমার গ্রাম-আমার শহর’ বিনির্মাণে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ নিশ্চিত করা; ৫। দুর্নীতির বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি জোরদার করা; ৬। ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ বিনির্মাণে ‘পেপারলেস অফিস’ চালু করা; ৭। পরিবেশবান্ধব ২ হাজার সোলার সেচ পাম্প স্থাপন; ৮। ‘তারুণ্যের শক্তি-বাংলাদেশর সমৃদ্ধি’ অর্জনে বেকার যুবকদের প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ জনশক্তিতে পরিণত করা।

এ ছাড়া বিভিন্ন প্রকল্পের আওতায় নির্মিত লাইন স্থাপনার যৌথ পরিদর্শন কার্যকর করা, অডিট নিষ্পত্তি ও পবিসের আর্থিক সক্ষমতা অর্জন, দালাল, চাঁদাবাজি, ঘুষ ও দুর্নীতি প্রতিরোধে ব্যবস্থা গ্রহণ, পবিসের কার্যক্রম ই-ফাইলিং-এর মাধ্যমে সম্পন্নকরণ, পবিসের সব ডকুমেন্ট ডিজিটালাইজেশনে সংরক্ষণ, সব গ্রাহকের জন্য প্রি-পেইড মিটার স্থাপন, আপগ্রেডেশন প্রকল্পের বাস্তবায়ন অগ্রগতি ও স্টোর ব্যবস্থাপনা অন্যতম।

সম্মেলনে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মঈন উদ্দিন (অব.) প্রধান অতিথি হিসেবে জনসাধারণের হয়রানিমুক্ত বিদ্যুৎ সেবা প্রদানের অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। তিনি শ্রদ্ধাভরে জাতির জনককে স্মরণ করেন। জাতির জনক ১৯৭৫ সালে গ্রামে বসবাসকারী ৮৫ ভাগ জনগণকে বিদ্যুৎ দিতে নির্দেশনা দিয়েছিলেন। এ প্রতিশ্রæতি বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রীর ‘ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ’ কর্মসূচি শতভাগ বাস্তবায়ন করতে আরইবিকে সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রদান করেছেন। এ জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর ভিশন-২০২১, ২০৪১ এবং এসডিজি ২০৩০ অর্জনে ডিজিএমসহ আরইবির প্রায় ৩৫ হাজার কর্মী বাহিনীকে দুর্নীতিমুক্তভাবে একাগ্রচিত্তে কাজ করার আহ্বান জানান। বিজ্ঞপ্তি।

ডিজিএম সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন সরকারের অতিরিক্ত সচিব ও সদস্য (প্রশাসন) আবুল কালাম শামসুদ্দিন। সভাপতির বক্তব্যে তিনি তারুণ্যের শক্তি-বাংলাদেশের সমৃদ্ধ অর্জনে বেকার যুব সমাজকে বিভিন্ন কারিগরি প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ জনশক্তিতে পরিণত করার ক্ষেত্রে আরইবির ভূমিকা তুলে ধরেন। ডিজিএম সম্মেলনে সরকারের যুগ্ম সচিব ও আরইবির সদস্য (অর্থ) মো. নাজমুছ সাদাত সেলিমসহ অন্যান্য সদস্য এবং বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের (আরইবি) ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বিজ্ঞপ্তি।

অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj