সংসদে মেনন : নোটিশে আলোচনা না হলে সংসদ আরো ‘গরিব’ হবে

শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : গ্যাসের দাম বাড়ানোর বিপক্ষে মতামত জানিয়ে কার্যপ্রণালির ৬৮ বিধিতে নোটিশ দিয়ে তার জবাব না পেয়ে সংসদে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ওয়াকার্স পার্টির সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। তিনি বলেন, আমরা বকা-উল্লা, আর উনারা শুনা-উল্লা, আর এই সংসদ হচ্ছে গরিবুল্লা। এই নোটিশের ওপর যদি আলোচনা না হয় সংসদ আরো গরিবুল্লা হবে বলে আমার ধারণা। গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে এ সব কথা বলেন রাশেদ খান মেনন। এ সময় ডেপুটি স্পিকার বলেন, বিলটি স্পিকারের বিচেনাধীন রয়েছে- আলোচনা হয়নি বলে যে হবে না তা কিন্তু নয়। রাশেদ খান মেনন বলেন, আমি এর আগে গ্যাসের দাম বাড়ার প্রতিবাদে সংসদে ৬৮ বিধিতে একটি নোটিশ দিয়েছিলাম। সেদিন আপনি (ডেপুটি স্পিকার) বলেছিলেন নোটিশটি স্পিকারের বিবেচনাধীন রয়েছে। আজকে সংসদের শেষ দিন, এটি কার্য তালিকায় আসেনি। এটা বাতিল করা হয়েছে কিনা সেটাও জানতে পারিনি। কার্যপ্রণালির ৬৮ বিধি অনুযায়ী বিলটি জানার অধিকার আমার রয়েছে।

তিনি বলেন, অবশ্য সেদিন সংসদ সদস্য মঈনুদ্দিন খান বাদল বলেছিলেন, আপনি খামখা এটা ইনসিস্ট করেছেন। ইনসিস্ট করে লাভ নেই। কারণ, আমরা হচ্ছি সব বকা-উল্লা আর ওনারা হচ্ছে শোনা-উল্লা আর এই সংসদ হচ্ছে গরিবুল্লা। যদি সংসদে নোটিশটি নিয়ে আলোচনাটা না হয় সংসদ আরো গরিব হবে বলে আমার ধারণা।

পরে ডেপুটি স্পিকার বলেন, আপনারা শুধু বকা-উল্লা বকাই নন, আমরা শুধু শোনা-উল্লা শোনা নই। আপনারা বক্তব্য রাখেন সে বিষয়ে সরকার কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়। আপনার ৬৮ বিধির নোটিশটি স্পিকারের বিবেচনাধীন আছে, এটা যে বিবেচনা করা হবে না- এমন তো কোনো কথা নেই। বিষয়টি আপনাকে পরে অবহিত করব।

দ্বিতীয় সংস্করন'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj