ভারি বর্ষণে লালমনিরহাটের ৫ হাজার পরিবার পানিবন্দি

শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক, লালমনিরহাট : জেলায় ভারি বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পানির ঢলে বন্যা ও জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। এতে তিস্তা ও ধরলা নদীর তীরবর্তী ইউনিয়নগুলোতে প্রায় ৫ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। তবে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা বলছেন উজান থেকে তেমন পানি আসছে না। ভারি বর্ষণের কারণে চরাঞ্চলগুলোর বেশকিছু পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। তিস্তা ব্যারাজ দোয়ানী পয়েন্টে পানি বিপদসীমার ২০ সে. মি. নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড ও চরাঞ্চলের লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দুদিন ধরে ভারি বর্ষণের কারণে তিস্তা নদীর চর এলাকাগুলোতে লোকজন পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। চর এলাকাগুলোর যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে। উজান থেকে তেমন পানি না এলেও ভারি বর্ষণের কারণে বন্যা ও জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে।

হাতীবান্ধা উপজেলা সির্ন্দুনা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নুরুল আমিন জানান, ভারি বর্ষণের কারণে তার ইউনিয়নে ২ হাজার পরিবার, পাটিকাপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শফিউল আলম রোকন জানান, বৃষ্টির পানিতে তার ইউনিয়নে তিস্তার নদীর চর এলাকায় ১ হাজার ২শ পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। এ ছাড়া ডাউয়াবাড়ী ইউনিয়নে ৬শ এবং গড্ডিমারী ইউনিয়ন ৪শ পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে বলে জানান, ডাউয়াবাড়ী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান রেজ্জাকুল ইসলাম কায়েদ ও গড্ডিমারী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ডা. আতিয়ার রহমান।

এদিকে আদিতমারী উপজেলার মহিষখোচা ও সদর উপজেলার খুনিয়াগাছ, রাজপুর, মোগলহাট ও কুলাঘাট ইউনিয়নের জলাবদ্ধতার কারণে বেশকিছু পরিবার পানিবন্দি হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা এসোড’র বন্যা সহায়ন প্রকল্পের ফিল্ড অফিসার মমতাজ বেগম জানান, হাতীবান্ধা উপজেলার উত্তর ডাউয়াবাড়ী, দক্ষিণ ডাউয়াবাড়ী, চর সির্ন্দুনা, পূর্ব হলদিবাড়ী ও পশ্চিম হলদিবাড়ী এলাকার জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে তিনি জানতে পেয়েছেন ওই চর এলাকাগুলোতে ভারি বর্ষণের কারণে অধিকাংশ পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) দোয়ানী ডালিয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম জানান, উজান থেকে তেমন পানি আসছে না। তবে বৃষ্টির কারণে তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় চর এলাকার লোকজন পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবু জাফর জানান, বৃষ্টির কারণে সদর উপজেলার খুনিয়াগাছ ইউনিয়নে কিছু পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। তবে জেলার হাতীবান্ধা উপজেলায় ৬ ইউনিয়নের চর এলাকায় লোকজন পানিবন্দি হয়েছে পড়েছে এমন খবর তার কাছে নেই।

সারাদেশ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj