সোলার বাতি স্থাপন : পাল্টে গেছে সিংগাইরের রফিক সেতুর দৃশ্যপট

শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০১৯

সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি : সিংগাইরের প্রবেশদ্বার ভাষা শহীদ রফিক সেতু সপ্তাহখানেক আগেও যেখানে সন্ধ্যা নামলেই ভুতুড়ে পরিবেশের সৃষ্টি হতো। যানবাহন থেকে শুরু করে পথচারীরা যাতায়াতে ভয় পেতেন। মাঝে মধ্যেই ঘটত ছিনতাই, ডাকাতিসহ অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড। সেতুটির পশ্চিম প্রান্তে পুলিশ বক্স থাকলেও অপরাধীরা অন্ধকারে সুযোগ নিয়ে অপরাধ করে পার পেয়ে যেত। এখন আর সে সুযোগ নেই। সেতু এলাকায় ২০টি সোলার সড়ক বাতি স্থাপন করায় পাল্টে গেছে দৃশ্যপট।

স্থানীয়রা জানান, রাজধানীর সঙ্গে সিংগাইরের সংযোগস্থল ধলেশ্বরী নদীর ওপর নির্মিত ভাষা শহীদ রফিক সেতু ২০০০ সালের ২৬ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করেন। তারপর থেকে এ এলাকার মানুুষের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটতে থাকে। নদী পারাপারে ভোগান্তির সমাপ্তি ঘটে। তবে সন্ধ্যা লাগলেই সেতু এলাকা জনশূন্য হয়ে পড়ে। অপরাধ প্রবণতা বেড়ে যাওয়ায় সেতু পারাপারে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় থাকতেন চলাচলকারী যানবাহনসহ পথচারীরা। ইতোপূর্বে মোটরসাইকেল ছিনতাইসহ ডাকাতদের অভয়ারণ্যে পরিণত হয় ওই এলাকা। অপরাধ সামাল দিতে পুলিশ প্রশাসনও হিমশিম খায়। প্রশাসনের পক্ষ থেকে স্থাপন করা হয় ধল্লা-ফোর্ডনগর পুলিশ বক্স। তারপরও অপরাধীরা রাতের অন্ধকারে সুযোগ বুঝে হানা দেয়। এখন আর সে ভয় নেই। এক সপ্তাহ আগে সৌরবিদ্যুতের আলোয় আলোকিত হয়েছে ভাষা শহীদ রফিক সেতু।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রাণালয়ের দেয়া ২০টি সৌর বাতির আলোয় পাল্টে গেছে দৃশ্যপট। স্থানীয় সংসদ সদস্য কণ্ঠশিল্পী মমতাজ বেগমের বিশেষ বরাদ্দ থেকে এ বাতিগুলো স্থাপন করা হয়েছে বলে স্থানীয় ধল্লা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম ভুঁইয়া জানিয়েছেন। এ ব্যাপারে সিংগাইর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. সফিকুল ইসলাম বলেন, ভাষা শহীদ রফিক সেতু ছাড়াও গত ৩ বছরে উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে প্রায় সাড়ে ৪শ সৌর বাতি স্থাপন করা হয়েছে। যা প্রত্যন্ত পল্লীর মেঠোপথকে আলোকিত করেছে।

সারাদেশ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj