ওয়ার্নারের ২৭ রানের আক্ষেপ

শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০১৯

খেলা প্রতিবেদক : ২০০৩ সালের বিশ^কাপে ভারতীয় লিটল মাস্টার শচিন টেন্ডুলকার ১১টি ম্যাচ খেলে করেছিলেন ৬৭৩ রান, যা এক বিশ^কাপে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। এবারের ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলস বিশ^কাপে শচিনের সেই রেকর্ড ভাঙার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান, ভারতের রোহিত শর্মা ও অস্ট্রেলিয়ার ডেভিড ওয়ার্নার। তবে বাংলাদেশ সেমিফাইনালে উঠতে ব্যর্থ হলে ৮ ইনিংসে ৬০৬ রান করা সাকিব আল হাসানের এক বিশ^কাপে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হওয়ার সুযোগ শেষ হয়ে যায়। ভারত ও অস্ট্রেলিয়া সেমিফাইনালে ওঠায় রোহিত ও ওয়ার্নারের সেই রেকর্ড ভাঙার সুযোগ ছিল। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম সেমিফাইনালে রোহিত শর্মা মাত্র এক রানে আউট হলে এবং ভারত সেমিফাইনাল থেকে বাদ হয়ে গেলে ৬৪৮ রানেই থামতে হয় ভারতীয় ওপেনারকে। এরপর রেকর্ডটি ভাঙার শেষ সুযোগটি থাকে বিশ^কাপে দুর্দান্ত খেলা ওয়ার্নারের সামনে। এবারের বিশ^কাপের মাধ্যমে ক্রিকেটে আবার প্রত্যাবর্তন করেছিলেন তিনি। বল টেম্পারিং কাণ্ডে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে এক বছরের জন্য নিষেধাজ্ঞায় পড়েছিলেন। কিন্তু বিশ^কাপের কথা চিন্তা করে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট বোর্ড তাকে শাস্তি কমিয়ে দলে যুক্ত করে। বিশ^কাপে এসেই আবার নিজের জাত চেনান তিনি। এই বিশ^কাপে ৩টি ম্যাচে সেঞ্চুরি ও ৩টি ম্যাচে হাফসেঞ্চুরি করেছেন তিনি। যেখানে বাংলাদেশের বিপক্ষে করেছিলেন ১৬৬ রান। এখন পর্যন্ত এটিই ইংল্যান্ড বিশ^কাপে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের ইনিংস। সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে নামার আগে তার রান ছিল ৬৩৮ রান। টেন্ডুলকারের রেকর্ড ভাঙার জন্য তার প্রয়োজন ছিল ৩৬ রান। কিন্তু দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মাত্র ৯ রান করে আউট হয়ে যান তিনি। গতকালের ম্যাচে ৯ রান করার ফলে তার রান এখন ৬৪৭। গতকাল অস্ট্রেলিয়া দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৮ উইকেটে হেরে বিদায় নেয়ায় ওয়ার্নারের নতুন রেকর্ড গড়ার পথ রুদ্ধ হয়ে যায়। ফলে ২৭ রানের আক্ষেপ নিয়ে তাকে বাড়ি ফিরতে হয়।

২০০৩ বিশ^কাপ থেকে ২০১৫ বিশ^কাপ পর্যন্ত তিনটি বিশ^কাপ অনুষ্ঠিত হয়। ওই তিনটি বিশ^কাপে শচিনের সেই সর্বোচ্চ রানের অনেকটা কাছাকাছি গিয়েও তা এখন পর্যন্ত কেউ ভাঙতে পারেননি। ২০০৭ বিশ^কাপে অস্ট্রেলিয়ার ম্যাথু হেইডেন ১১ ম্যাচ খেলে করেছিলেন ৬৫৯ রান। মাত্র ১৪ রানের জন্য তিনি টেন্ডুলকারের রেকর্ডটি ভাঙতে পারেননি। পরবর্তী ২০১১ বিশ^কাপের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হয়েছিলেন শ্রীলঙ্কার তিলকারতেœ দিলশান। তিনি ৯ ম্যাচ খেলে করেছিলেন ৫০০ রান, যা রেকর্ড রান থেকে অনেক দূরে। এরপর ২০১৫-তে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠিত বিশ^কাপেও শচিনের রেকর্ডের কাছাকাছি কেউ যেতে পারেননি। সেই বিশ^কাপে ফাইনালসহ মোট ৯ ম্যাচ খেলে নিউজিল্যান্ডের মার্টিন গাপটিল করেছিলেন সর্বোচ্চ ৬৪৭ রান।

খেলা-ধূলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj