নওগাঁর বদলগাছীতে জলাবদ্ধতায় হাজার বিঘা ফসলি জমি অনাবাদি

শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০১৯

মো. আবু বকর সিদ্দিক, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি : নওগাঁর বদলগাছী উপজেলায় একটি খালের অভাবে জলাবদ্ধতায় কয়েক হাজার বিঘা ফসলি জমি অনাবাদি পড়ে আছে। ওই মাঠে প্রায় এক কিলোমিটার একটি খাল খনন করা হলে জমিগুলোতে তিনটি ফসল আবাদ করা সম্ভব। এতে এলাকার আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন হবে বলে মনে করছেন স্থানীয় কৃষকরা। এ বিষয়ে সরকারের সুদৃষ্টি কামনা করছেন এলাকাবাসী।

জানা গেছে, উপজেলার বালুভরা ইউনিয়ন পরিষদের কুশারমুড়ী মাঠের পানি নিষ্কাশনের জন্য ড্রেনেজ ব্যবস্থা ছিল। কিন্তু ১৫ থেকে ২০ বছর আগে মাগুরা গ্রামের শেষ প্রান্তে ওই ড্রেনের মুখ বন্ধ করে সেখানে একটি বাড়ি নির্মাণ করা হয়। এতে কুশারমুড়ী মাঠের পানি বের হয়ে খলসি গ্রাম পর্যন্ত যেতে পারলেও মাগুরা বিলে যেতে পারে না। ফলে পানি বের হয়ে যাওয়ার বিকল্প কোনো পথ না থাকায় মাঠে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। সামান্য বৃষ্টিতেই জলাবদ্ধতার কারণে মাঠে বোরো, আমন ও পাটের ফসল ডুবে যায়। এভাবে কৃষকরা প্রতি বছর ক্ষতিগ্রস্ত হতে শুরু হলে আমনের আবাদ করা ছেড়ে দেন। পরবর্তী সময়ে আবার পাটের আবাদ করাও ছেড়ে দেন কৃষকরা। সর্বশেষ শুধু বোরো আবাদ করা হয়। কিন্তু বৃষ্টি হলেই হাঁটু পানির মধ্যে বোরো ধান কাটতে হয়। এতে তিন ফসলি জমি এখন এক ফসলে পরিণত হয়েছে। পানি জমে থাকায় জমিতে কচুরিপানার স্ত‚প জন্মেছে। খাবারের জন্য স্থানীয়রা এ মাঠ থেকে মাছ শিকার করে থাকেন। এ মাঠের প্রায় এক কিলোমিটার খাল খনন করে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করা হলে আবারও জমিতে তিন ফসলের আবাদ করা সম্ভব হবে। কুশারমুড়ী গ্রামের কৃষক মিনহাজ উদ্দিন বলেন, গত ১৫ থেকে ২০ বছর আগে বোরো, আমন ও পাটের ফসল হতো। কিন্তু বর্তমানে জলাবদ্ধতা কারণে শুধু বোরো ফসল করা হয়। ডুবে যাওয়ার কারণে অন্য ফসলের আবাদ করা সম্ভব হয় না। জলাবদ্ধতা দূরীকরণে খাল খনন করা হলে ওই খালের পানি দিয়ে আবাদ করা হবে। এ ছাড়া খালের পানিতে মাছ চাষ ও হাঁস পালন করা হবে।

একই গ্রামের কৃষক আহাদ আলী মিয়া বলেন, খাল খননের সময় যদি আমার জমির ওপর দিয়ে যায় সে ক্ষেত্রে সরকারকে আমি জমি দিয়ে দেব। জলাবদ্ধতার কারণে সারা বছরই কয়েকশ বিঘা জমিতে পানি জমে থাকে। খাল খনন করা হলে কয়েকটি গ্রামের হাজার হাজার কৃষক উপকৃত হবেন।

বদলগাছী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. মাসুম আলী বেগ বলেন, পূর্বে মাঠের পানি নিষ্কাশনে ড্রেনেজ ব্যবস্থা ছিল। মাঠটি পরিদর্শন করে স্থানীয় জনসাধারণ এবং সরকারি সহযোগিতায় প্রকল্পের মাধ্যমে জলাবদ্ধতা দূরীকরণের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

সারাদেশ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj