ক্রেতাশূন্য পিপলস লিজিং

বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত আর্থিক খাতের প্রতিষ্ঠান পিপলস লিজিং এন্ড ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেড (পিএলএফএসএল) গতকাল দ্বিতীয় দিনের মতো ক্রেতাশূন্য রয়েছে। গতকাল লেনদেন শুরু হওয়ার কিছু সময়ের মধ্যেই কোম্পানিটির প্রায় ক্রেতাশূন্য হয়ে পড়ে। দুপুর ১২টা ১০ মিনিটে এ রিপোর্ট লেখার সময়েও ডিএসইর ওয়েবসাইটের স্ক্রিনে কোনো ক্রেতা দেখা যায়নি। এ সময় সর্বোচ্চ ৩ টাকা ৯০ পয়সা ও সর্বনি¤œ ৩ টাকা ৩০ পয়সার মধ্যে ১৪ কোটি ২৪ হাজার ৯৬৭টি শেয়ার বিক্রির প্রস্তাব ছিল। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন, কোম্পানিটির বন্ধের ঘোষণায় গতকাল থেকেই লেনদেনে এমন প্রভাব পড়েছে। বিপুল পরিমাণ খেলাপি ঋণ আর আমানতকারীদের টাকা ফেরতে ব্যর্থতার কারণে প্রতিষ্ঠানটিকে বন্ধ করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এই বন্ধের ঘোষণা ও আর্থিক অবস্থার দুর্দশার কারণে বিনিয়োগকারীরা আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছেন।

গতকাল পিপলস লিজিং কোম্পানির লেনদেন শুরু হয় ৩ টাকা ৩০ পয়সায়। সর্বশেষ লেনদেন হয় ৩ টাকা ৩০ পয়সায়। গত মঙ্গলবার সর্বশেষ লেনদেন হয়েছিল ৩ টাকা ৬০ পয়সায়।

শেয়ারটির দাম কমেছে ৩০ পয়সা বা ৮ দশমিক ৩৩ শতাংশ। সার্কিট ব্রেকার না থাকলে শেয়ারটির আরো বড় দরপতন হতে পারত বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

উল্লেখ্য, পুঁজিবাজারে শেয়ারের দামের বড় উত্থান-পতন ঠেকাতে সার্কিট ব্রেকার চালু করা হয়। সার্কিট ব্রেকার অনুসারে এক দিনে একটি শেয়ারের দাম সর্বোচ্চ ১০ শতাংশ বাড়তে বা কমতে পারে। এই হিসেবে আজকে পিপলস লিজিংয়ের শেয়ার দর কমার ক্ষেত্রে সার্কিট ব্রেকার স্পর্শ করেছে।

অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj