দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই ধর্ষকদের

বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০১৯

আবু জাফর সিদ্দিকী

প্রতিদিনই দেশের কোথাও না কোথাও ধর্ষণ হচ্ছে। শিশু, বালিকা, তরুণী, স্কুল-কলেজের ছাত্রী, শিক্ষিকা, গৃহবধূ, প্রতিবন্ধী, গার্মেন্টস কর্মী, ডাক্তার, জননী, এমনকি বৃদ্ধাও বাদ যাচ্ছে না ধর্ষিতার তালিকা থেকে। কিন্তু এটা কাম্য নয়। শিক্ষকের লালসার শিকার হচ্ছে ছাত্রীরা, গৃহবধূও ধর্ষিতা হচ্ছে প্রতিবেশীর দ্বারা। মেয়ে বাবার দ্বারা, এমনকি শ্বশুরের ধর্ষণের শিকার হতে হচ্ছে পুত্রবধূকেও।

গত পাঁচ বছরে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ২ হাজার ৩২২ শিশু। চলতি বছরের প্রথম ১০০ দিনেই ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৩৯৬ নারী ও শিশু। ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের নজিরবিহীন রেকর্ড হতে চলেছে দেশে। হঠাৎ যেন মানুষের পাশবিক প্রবৃত্তি নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়েছে। একের পর এক ধর্ষণ ও যৌন সহিংসতার ঘটনা ঘটলেও কোনোভাবেই যেন এর লাগাম টেনে ধরা যাচ্ছে না। একশ্রেণির মানুষের বিকৃতি থেকে রেহাই পাচ্ছে না কোমলমতি শিশুরাও। ঘরে-বাইরে সর্বত্রই নারী ও শিশুর জন্য অনিরাপদ হয়ে উঠছে। বিরূপ প্রভাব পড়ছে সামাজিক জীবনে। চলতি বছরের গত সাড়ে তিন মাসে ৩৯৬ নারী-শিশু হত্যা, ধর্ষণ ও নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। এ ছাড়া বিভিন্নভাবে হত্যা করা হয়েছে ৬৯ শিশুকে। এর মধ্যে মামলা হয়েছে ৩২টির। ধর্মীয় নীতি-নৈতিকতা এবং সামাজিক মূল্যবোধের অভাবে খুন, ধর্ষণসহ নানা ধরনের সামাজিক অপরাধ প্রবণতা বেড়েই চলেছে। এমন দেশ তো আমরা চাইনি, আমরা চেয়েছিলাম স্বাধীন, সার্বভৌম একটি দেশ। যে দেশে থাকবে শান্তি, থাকবে স্বাধীনতা। বর্তমানে ধর্ষণ, খুন, দুর্নীতি, চাঁদাবাজি সবকিছু মিলিয়ে দেশ ও জাতির মর্যাদা নষ্ট হচ্ছে বহির্বিশ্বের কাছে। যে কোনো মূল্যে ধর্ষণ রোধ করতে হবে। দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই ধর্ষকদের। ধর্ষণমুক্ত দেশ চাই। ধর্ষণের বিরুদ্ধে একটা যুদ্ধ চাই।

:: নাটোর।

মুক্তচিন্তা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj