চলছে নিরীক্ষা…

রবিবার, ৭ জুলাই ২০১৯

আসছে নতুন নতুন ফেব্রিক, কালার চার্ট ও ডিজাইনে পরিবর্তন। এই নতুনত্ব সংযোজন হচ্ছে কখনো পোশাকের দৈর্ঘ্য,ে কখনো গলার ডিজাইনে, কখনো বা হাতার প্যাটার্নে। বলা যায় ছোট, মাঝারি, লম্বা সব ধরনের হাতায় কাটিং, প্যাটার্নে নিরীক্ষা চলছে কয়েকবছর ধরেই। পোশাকে নতুনত্ব গর্জাস ভ্যালু এডিশনের বাইরে হাতার নকশায় জোর দিচ্ছেন ফ্যাশন ডিজাইনাররা।

কুর্তা কামিজের হাতায় এখন অনেক ধরনের নতুনত্ব দেখা যাচ্ছে। হাতার লেন্থের সাথে সাথে এর বিভিন্ন অংশে থাকছে ভিন্ন আকৃতি। কখনো ওপরের অংশ চাপা রেখে নিচের অংশ চওড়া করা হচ্ছে। কখনো হাতাটাই থাকছে চাপা- কখনো থাকছে চওড়া ঘের দেয়া, এরকম নানাভাবে হাতায় আনা হচ্ছে বৈচিত্র।

নানা ধরনের লুপ ব্যবহার করা হচ্ছে হাতায়। সেই সাথে থাকছে নানা ধরনের এক্সেসরিজ। রিবন, লেস, বাটন প্রভৃতি থাকছে হাতায় ডিজাইন ফুটিয়ে তুলতে।

শুধু কামিজে নয়, ব্লুাউজের হাতার ডিজাইনেও রয়েছে নানা কাটিং ও প্যাটার্ন। কামিজের অনেক হাতাই দেখা যাচ্ছে ব্লুাউজের হাতায়।

ব্লুাউজের হাতার ওপরের অংশেও থাকছে নানা কাটিং।

রোমালি ছাঁটের হাতাও দেখা যাচ্ছে কখনো কখনো। জমকালো ডিজাইন ফুটিয়ে তুলতে কোনো কোনো ব্লুাউজ ও কামিজের পুরো হাতায় থাকছে এমব্রয়ডারি বা জারদৌসির কারুকাজ। থাকছে নানা ধরনের এক্সেসরিজ।

রঙ বাংলাদেশের স্বত্বাধিকারী ও ফ্যাশন ডিজাইনার সৌমিক দাস বলেন, ‘আমাদের দেশে প্রধানত ফুল¯িøভ, থ্রিকোয়ার্টার ও ছোট হাতাই বেশি দেখা যায়। তবে ফ্যাশনে যারা পছন্দ করেন, তাদের জন্য এসবের বাইরেও হাতায় নতুন নতুন ডিজাইন আনা হচ্ছে। এখন কামিজের হাতার লেন্থের সঙ্গে সঙ্গে এর বিভিন্ন অংশে থাকছে ভিন্ন আকৃতি। কখনও ওপরের অংশ চাপা রেখে নিচের অংশ চওড়া করা হচ্ছে। কখনও হাতাটাই থাকছে চাপা। কখনও থাকছে চওড়া ঘের দেয়া- এরকম নানাভাবে হাতায় বৈচিত্র্য আনা হচ্ছে। বিভিন্ন ধরনের লুপ, রিবন, বাটন ব্যবহার হচ্ছে হাতার ডিজাইন ফুটিয়ে তুলতে। তবে ভিন্ন ধাঁচের কিংবা জমকালো হাতাগুলো সাধারণ পোশাকের সঙ্গেই বেশি মানায়। কারণ পোশাক জমকালো হলে হাতা সৌন্দর্যের বিষয়টি ঢাকা পড়ে যায়’।

ফ্যাশনে এখন কেপ, কিমানো, পাফ, ট্রামপেট, প্রিন্সেস, ভলিউম, হুররাম, ভেলবেটন, টিউলিপ, অ্যাঙ্গেল ও ড্রপ শোল্ডার হাতার চল বেশি। বিভিন্ন ধরনের হাতার মধ্যে প্রিন্সেস ¯িøভ হাতা যা প্রায় মেঝে ছুঁয়ে যায়। হাতা ছাড়িয়ে বেশ খানিকটা লম্বা গোছের হয় এ হাতা। আছে ট্রামপেট ¯িøভ, যা হাতার ওপরের দিক থেকে ফিটিং হয়ে এসে নিচের দিকে লেয়ারের মতো হয়ে যায়। লম্বা বা ছোট ছাঁটের পোশাকে এই হাতা ট্রেন্ডি লুক নিয়ে আসে।

জেন্টল পার্কের ডিজাইন বিভাগের প্রধান শাহাদৎ চৌধুরী বাবু জানান, ষাটের দশক থেকে নব্বইয়ের দশক পর্যন্ত বেশ জনপ্রিয় ছিল বেল ¯িøভ হাতা। হাল ফ্যাশনে নতুন করে ফিরে এসেছে এ হাতাটি। বেল ¯িøভ হাতায় ওপরের দিকটা সাধারণ হাতার মতো ছাঁট হয়ে কব্জির দিকে এসে কম বেশি চওড়া হয়ে যায়। কখনও ফুলের নকশায় কুঁচির ব্যবহার আবার কখনও দেখা যায় কুঁচির পর কুঁচি, কখনও ঝালর। হয়তোবা কনুই পর্যন্ত আঁটসাঁট, তারপর ঢিলে। মজার বিষয় হচ্ছে, এ হাতাগুলো ব্যবহার করা যায় ব্লুাউজ, কামিজ কিংবা কুর্তায়।

হাতা ছাড়িয়ে বেশ খানিকটা লম্বা গোছের হাতার নাম প্রিন্সেস ¯িøভ। এছাড়া আছে ট্রামপেট ¯িøভ, যা হাতার ওপরের দিক থেকে ফিটিং হয়ে এসে নিচের দিকে লেয়ারের মতো হয়ে যায়। লম্বা বা ছোট ছাঁটের পোশাকে এই হাতা বেশ ট্রেন্ডি লুক নিয়ে আসে।

হাতার নতুন সংযোজন হয়েছে সার্কুলার ফ্লন ¯িøভ। এ হাতার ওপরের দিকে সাধারণ ছাঁটের হয়। নিচের দিকে গোল করে কাটা হাতা আলাদা করে লাগানো থাকে। কাঁধ, কব্জি বা কনুই হাতার যে কোনো জায়গাতেই এ ডিজাইন করা যায়। এতে হাতায় এক ধরনের ফুলের আবহ চলে আসে। ফ্যাশনে চলছে টাই ¯িøভ হাতাও। টাই ¯িøভ হাতার যে কোনো জায়গায় এক বা দুই থাক ফিতা বাঁধা তাকে।

হাতার ক্ষেত্রে যে বিষয়টি সবচেয়ে বেশি চোখে পড়বে তা হল ফ্রিলের ব্যবহার বলে জানালেন ডিজাইনার লিপি খন্দকার। তিনি বলেন, ‘হাতায় ফ্রিলের ব্যবহার সিম্পল পোশাকের জমকালো লুক আনে। কখনও হাতার মাঝখান থেকে বা কনুইয়ের ওপর থেকে ফ্রিল দেয়া হচ্ছে। কখনও হাতার অর্ধেকটা সোজা হয়ে বাকি অংশে যোগ করা হচ্ছে ফ্রিল। পুরো হাতায় ফ্রিল দেখা যায়, যা কব্জির কাছে এসে কিছুটা কুঁচি দিয়ে শেষ হয়ে যায়। গোলাকার হাতাতেও এখন ফ্রিলের ব্যবহার দেখা যাচ্ছে’। ফ্রিল দেয়া ফুলের মোটিফের হাতা রয়েছে, যা ফুলের মতো ছড়িয়ে থাকে। এ হাতাকে বলা হয় ঝালর। টিউলিপ ফুলের মতো দেখতে হাতাও এখন বেশ জনপ্রিয়। যাকে বলা হচ্ছে টিউলিপ হাতা।

হুররাম হাতা, ভেলবেটন হাতা যা নিচ থেকে কিছুটা ঢোলা থাকে। তার সঙ্গে লেইস দেয়া দুই লেয়ারে সার্কেল হাতা রয়েছে। পুরনো সেই ম্যাগি হাতা, রুমাল ছাঁট হাতাও হাল ফ্যাশনে নতুন করে ফিরে এসেছে। আরও একটু নতুনত্ব আনতে আপনি চাইলে কাঁধ থেকে এক বা দেড় ইঞ্চি পরিমাণ চওড়া ছোট ম্যাগি হাতা পরতে পারেন।

কোল্ড শোল্ডার বা হাতায় ফাড়াটাও এখন খুব ব্যবহার হচ্ছে। কোল্ড শোল্ডারে হাতার মাঝ বরাবর কিংবা কাঁধ থেকে মাঝ বরাবর লম্বা, ত্রিভুজ, গোলাকার, পান পাতা স্টাইলে ফাড়া থাকে। কোল্ড শোল্ডার বেশ স্টাইলিশ। তবে এটা ক্যারি করতে পারার ওপরেই এর সৌন্দর্য নির্ভর করে।

ফ্যাশন (ট্যাবলয়েড)'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj