শখের গাড়িটি বাছাই করুন

রবিবার, ৭ জুলাই ২০১৯

গাড়ি বাছাই শখের বসে হোক আর প্রয়োজনের তাগিদে হোক, একটি গাড়ির মালিক হওয়াটা বেশ সৌভাগ্যের ব্যাপার। মধ্যবিত্ত যারা, সাধ ও সাধ্যের মধ্যে মিল রেখে খুঁজে নিতে পারেন আপনার পছন্দের মডেলটি। একটি ভালো মানের গাড়ির পেছনে আপনার মূল্যবান অর্থ ব্যয় করলে সেটা অনেকদিন পর্যন্ত চালাতে পারবেন।

সেডান : গাড়ির জগতে সবচেয়ে পরিচিত বডি স্টাইল হচ্ছে সেলুন বা সেডান প্রকৃতির গাড়ি। দুই ধরনের নাম হওয়ার কারণ হচ্ছে আমেরিকা, কানাডা এবং অস্ট্রেলিয়ায় এই শ্রেণীর গাড়ি সেডান নামে পরিচিত এবং যুক্তরাজ্যে এটি সেলুন নামে পরিচিত। এই শ্রেণীর গাড়িতে ৪-৫ জন বসার ব্যবস্থা থাকে যার কারনে একে যাত্রীবাহী গাড়িও বলা হয়ে থাকে। এর ছাদ সাধারণত নির্দিষ্ট থাকে এবং পিছনের জানালার সঙ্গে নিচে নেমে যায়। গাড়ির পিছনে ট্রাঙ্ক থাকে যেখানে মালপত্র বহন করা যায়। ইঞ্জিন সাধারণত সামনের দিকে হুড বা বনেটের নিচে থাকে। এই গাড়িগুলো সাধারণত পারিবারিক গাড়ি হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। উদাহরণ স্বরূপ বলা যায় মার্সিডিজ-বেঞ্জ সি ক্লাস কিংবা টয়োটা করল্লা ইত্যাদি।

সাভ : স্পোর্টস ইউটিলিটি ভেইকেল সংক্ষেপে সাভ নামে পরিচিত এই গাড়িগুলোর সঙ্গে স্টেশন ওয়াগনের কিছুটা মিল রয়েছে। তবে প্রধান পার্থক্য হচ্ছে এই ধরনের গাড়িগুলো হাল্কা মানের ট্রাকের চেসিসের উপর ভিত্তি করে বানানো হয় এবং এরা যে কোনো ধরনের রাস্তায় চলার উপযোগী। এরা ৪বাই৪ কিংবা ক্রসওভার নামেও পরিচিত। এই ধরনের গাড়িগুলো সাধারণত দীর্ঘ যাত্রার জন্য উপযোগী। তবে এদের মাইলেজ খুব কম এবং গাড়ির ওজন বেশি। ৫ দরজা বিশিষ্ট এই গাড়িগুলো ৫-৮ বা তারও বেশি যাত্রী বহনে সক্ষম সেসঙ্গে পিছনে মালপত্র নেয়ার জায়গাতো রয়েছেই। পরিচিত গাড়িগুলো হচ্ছে হোন্ডা সিআরভি, ল্যান্ড রোভার ফ্রিল্যান্ডার, টয়োটা ল্যান্ডক্রুইজার, মিতসুবিশি আউটল্যান্ডার, পাজেরো, ফোর্ড কুগা, অডি কিউ৩, কিয়া স্পোর্টেজ ইত্যাদি। যদি ঠকতে না চান তবে অবশ্যই প্রথমে একটি প্ল্যান করুন। কেন গাড়ি কিনবেন, বাজেট কত থাকবে এবং এই বাজেটে কি গাড়ি কিনবেন? এটা করা জরুরি। যে জন্য গাড়ি কিনতে যাচ্ছেন তা কি প্রয়োজন বা শখ মেটাবে কিনা তা বুঝে নিন।

আকার : নিঃসন্দেহে বাংলাদেশে ব্যবহারের জন্য আপনি একটি সঠিক আকারের গাড়িই চাইবেন। আর জ্বালানির জন্য বেশি খরচ করতে না চাইলে টয়োটা ব্র্যান্ডের গাড়ি উৎকৃষ্ট। যেভাবে গ্যাসের দাম বাড়ছে তাতে আপনার উচিত ছোট সাইজের গাড়ি পছন্দ করা যাতে জ্বালানির পেছনে বড় অংকের টাকা খরচ করতে না হয়। একই সঙ্গে নতুন গাড়ি কিনতে গেলে আপনাকে এর ষ্টোরেজ এবং জায়গা নিয়েও ভাবা উচিত। এক মিনিটে চিন্তা করে নিন আপনি গাড়িতে পুরো পরিবারকে এবং সেসঙ্গে প্রয়োজনীয় অনেক কিছুই নিতে চান। সেজন্যই আপনার প্রয়োজন মেটাতে পারবে এমন সাইজের গাড়িই কেনা উচিত।

অনেকগুলো গাড়ি দেখুন : কোন একটি বা দুটি বিশেষ মডেলের গাড়ি দেখে পছন্দ হয়ে যাওযাটা খুবই সহজ ব্যাপার। অনেক সময়, গাড়ির ডিলার কিংবা নিজের গাড়ি বিক্রি করবেন এমন ব্যক্তির কাছে গেলে আপনার অনেক গাড়ি খুঁজে দেখার সুযোগ হয় না। এসব ক্ষেত্রে গাড়ি কিনতে বেশি দাম দিতে হতে পারে। এর পরিবর্তে দাম মেটানোর আগে আপনার উচিত চার-পাঁচটা গাড়ি খুঁজে দেখা। এর ফলে আপনাকে বেশি দাম দিতে হবে না কিংবা কোনো নির্দিষ্ট গাড়ির প্রেমে পড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে না। আপনাকে অবশ্যই বুঝতে হবে যে গাড়ি একটি পণ্য এবং একটি নির্দিষ্ট ডিজাইন কিংবা স্টাইলের গাড়ির প্রেমে পড়ে যাওয়া উচিত নয়।

ফ্যাশন (ট্যাবলয়েড)'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj