বিশিষ্ট ব্যক্তিদের মৃত্যু : সংসদে শোক প্রস্তাব গৃহীত

বুধবার, ১২ জুন ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : একাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় ও প্রথম বাজেট অধিবেশনের শুরুতে গতকাল জাতীয় সংসদে বিশিষ্ট ব্যক্তিদের মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব উত্থাপন ও গৃহীত হয়েছে। শুরুতে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বিশিষ্ট ব্যক্তিদের মৃত্যুতে সংসদে শোক প্রস্তাব উত্থাপন করেন।

পরে তাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে এক মিনিট নীরবতা পালন এবং তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়। এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী মরহুমদের জীবনবৃত্তান্ত সংবলিত শোকপ্রস্তাব সংসদে উত্থাপন করেন। শোক প্রস্তাবের অনুলিপি প্রত্যেক সংসদ সদস্যের মধ্যে বিতরণ করা হয়।

গতকাল যেসব বিশিষ্ঠ ব্যক্তিদের নামে শোক প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে তাদের মধ্যে আছেন- সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার আমিনুল হক, বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর সাবেক এমপি এ বি এম তালেব আলী, আবদুল আলী মৃধা, মো. আব্দুল মজিদ মাস্টার ও এ কে এম বজলুল করিম।

এ ছাড়াও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানার ভাসুর ও বাংলাদেশ মেশিন টুলস ফ্যাক্টরির সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক রফিক আহমেদ সিদ্দিক, বিশিষ্ট নাট্যকার, নির্দেশক ও অভিনেতা অধ্যাপক মমতাজউদদীন আহমদ, একুশে পদকপ্রাপ্ত বরেণ্য সংগীতশিল্পী সুবীর নন্দী, একুশে পদকপ্রাপ্ত কবি হায়াৎ সাইফ, একুশে পদকপ্রাপ্ত নজরুল সংগীতশিল্পী, গবেষক, স্বরলিপিকার ও সঙ্গীতগুরু খালিদ হোসেন, কঙ্গোয় জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী মিশনে সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি রৌশন আরা, বিশিষ্ট কৌতুক অভিনেতা আনিসুর রহমান, নন্দিত অভিনেতা সালেহ আহমেদ এবং অভিনেত্রী মায়া ঘোষের মৃত্যুতে এ সংসদ গভীর শোক প্রকাশ করে।

এ ছাড়াও ঘূর্ণিঝড় ফণীর আঘাতে, রাশিয়ায় বিমান দুর্ঘটনায় এবং দেশ-বিদেশের বিভিন্ন স্থানে দুর্ঘটনায় নিহতদের স্মরণে মহান জাতীয় সংসদ গভীর শোক প্রকাশ, সব বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জ্ঞাপন করে।

প্রসঙ্গত, সংসদের একটি অধিবেশন শুরুর সময় দেশ-বিদেশের কোনো গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি মারা গেলে তাদের নামে শোক প্রস্তাব আনা হয়। এর আগে দ্বিতীয় অধিবেশন শুরু হয়েছিল ২৪ এপ্রিল। মাত্র পাঁচ কার্যদিবস চলা এই অধিবেশন শেষ হয় ৩০ এপ্রিল।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj