বিজিবি-বিএসএফ সীমান্ত সম্মেলন শুরু আজ

বুধবার, ১২ জুন ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও ভারতের বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স (বিএসএফ) মহাপরিচালক পর্যায়ে সীমান্ত সম্মেলন আজ বুধবার থেকে ঢাকায় শুরু হচ্ছে। চার দিনব্যাপী এই সম্মেলন শেষ হবে আগামী ১৫ জুন। এবারের সম্মেলনে সীমান্ত এলাকায় নিরস্ত্র বাংলাদেশি নাগরিকদের লক্ষ্য করে গুলি, হত্যা ও আহতের ঘটনা প্রাধান্য পাবে বলে জানা গেছে।

গতকাল মঙ্গলবার এ তথ্য জানিয়ে বিজিবি সদর দপ্তরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশের পক্ষ থেকে বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. সাফিনুল ইসলামের নেতৃত্বে ২৪ সদস্যের বাংলাদেশ প্রতিনিধিদল অংশগ্রহণ করবে। বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলে বিজিবির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা প্রতিনিধিত্ব করবেন। অপরদিকে বিএসএফ মহাপরিচালক শ্রী রজনী কান্ত মিশ্রার নেতৃত্বে ১০ সদস্যের ভারতীয় প্রতিনিধিদল সম্মেলনে অংশ নেবে। বিজিবি জানায়, এবারের সম্মেলনের আলোচ্য বিষয়ের মধ্যে রয়েছে সীমান্ত এলাকায় নিরস্ত্র বাংলাদেশি নাগরিকদের গুলি, হত্যা বা আহতের ঘটনা, আগ্নেয়াস্ত্র, গোলাবারুদ, বিস্ফোরকদ্রব্য চোরাচালান, বিভিন্ন প্রকারের মাদকদ্রব্য চোরাচালান, নিরীহ বাংলাদেশি নাগরিকদের গ্রেপ্তার/আটকের ঘটনা, অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রম/বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের ঘটনা, জয়েন্ট রিট্রিট সেরিমনির ভেন্যুসমূহে দর্শকদের জন্য সীমান্তের দুপাশে একই ধরনের গ্যালারি নির্মাণ, সীমান্তে ‘ক্রাইম ফ্রি জোন’ এর আওতা বৃদ্ধি, উভয় দেশের সীমান্ত নদীসমূহের তীর সংরক্ষণ এবং পারস্পরিক আস্থা বৃদ্ধির বিভিন্ন পদক্ষেপসমূহ।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, আগামী ১৫ জুন যৌথ আলোচনার দলিল (জয়েন্ট রেকর্ড অব ডিসকাশন) স্বাক্ষরের মধ্য দিয়ে সীমান্ত সম্মেলন শেষ হবে। সীমান্ত সম্মেলন উপলক্ষে পারস্পরিক সুসম্পর্ক জোরদার ও সৌহার্দ্য বৃদ্ধির অংশ হিসেবে ভারতীয় প্রতিনিধিদল দেশের বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান পরিদর্শন করবে। সম্মেলন শেষে ১৫ জুন ভারতীয় প্রতিনিধিদল ঢাকা ত্যাগ করবে।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj