বিশ^কাপ বাছাই পর্বে বাংলাদেশ

বুধবার, ১২ জুন ২০১৯

খেলা প্রতিবেদক : লাওসের মাঠে গত সপ্তাহে অনুষ্ঠিত প্রথম লেগের ম্যাচটি ১-০ গোলে জেতায় প্রাক বাছাইয়ের বাধা পার হওয়ার পথে অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে প্রয়োজন ছিল অন্তত ড্র। সেই কাজটা বেশ সাফল্যের সঙ্গেই সম্পন্ন করলেন কোচ জেমি ডের শিষ্যরা। ২০২২ সালের বিশ^কাপ প্রাক বাছাইয়ের ফিরতি লেগের ম্যাচে গতকাল লাওসের বিপক্ষে গোলশূন্য ড্র করেছে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। প্রথম লেগ ১-০ গোলে জিতেছিল জামাল ভূঁইয়ার দল। ফলে উভয় লেগ মিলিয়ে ১-০ গোলের জয় নিয়ে মূল বাছাইয়ে উত্তীর্ণ হলেন জীবন-রবিউলরা। অর্থাৎ এখন আসন্ন বিশ^কাপের দ্বিতীয় পর্ব (গ্রুপ পর্ব) অংশগ্রহণ নিশ্চিত হয়েছে বাংলাদেশের।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে এ দিন শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকে বাংলাদেশ। বিশেষ করে মাঝমাঠ দখলের দিকে নজর দেয় জামাল ভূঁইয়ার দল। লাওসের মাঠে অনুষ্ঠিত প্রথম লেগেই বুঝা গিয়েছিল যে মাঝমাঠ দখলে রাখাটা জরুরি। কোচ জেমি ডের নজর এড়ায়নি এ ব্যাপারটি। সেজন্য মাঝমাঠকে শক্তিশালী করতে মামুনুল ইসলামকে একাদশে ঢুকান তিনি। আগের ম্যাচে বদলি হিসেবে নেমে দলের হয়ে জয়সূচক গোল করা রবিউল ইসলাম এ দিন শুরু থেকেই ছিলেন একাদশে। প্রথমার্ধের প্রায় পুরোটা সময় আধিপত্য ছিল স্বাগতিকদের। মাঝমাঠ নিজেদের নিয়ন্ত্রণে রেখেই লাওসের রক্ষণে একের পর এক আক্রমণ করতে থাকে বাংলাদেশ দল। এ দিন দুর্দান্ত নৈপুণ্য উপহার দেন বাংলাদেশের রক্ষণভাগের খেলোয়াড়রাও। জমাটবদ্ধ রক্ষণ উপহার দেন রহমত-বিশ^নাথ-টুটুলরা।

ম্যাচের প্রথমার্ধে এগিয়ে যাওয়ার দারুণ কিছু সুযোগ পায় জেমি ডের শিষ্যরা। সেই সুযোগগুলো কাজে লাগাতে পারলে এগিয়ে যাওয়ার স্বস্তি নিয়েই বিরতিতে যেতে পারতেন স্বাগতিক ফুটবলাররা। রবিউলের লম্বা থ্রোগুলো লাওসের গোলবারে বেশ কয়েকবার ভয় ধরিয়ে দিয়েছিল। তবে বল দখল ও আক্রমণে একচ্ছত্র আধিপত্য দেখিয়েও প্রথমার্ধে কাক্সিক্ষত গোলের দেখা পায়নি লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। বিশেষ করে প্রথমার্ধের শেষ দিকে লাওসের গোলরক্ষককে একা পেয়েও লক্ষ্যভেদ করতে ব্যর্থ হন বাংলাদেশের ফরোয়ার্ড নাবীব নেওয়াজ জীবন।

একইভাবে ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধেও বল দখল ও আক্রমণের আধিপত্য ধরে রাখে জেমি ডের শিষ্যরা। কিন্তু পায়নি গোলের দেখা। ফলে শেষ পর্যন্ত ভালো খেলেও ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় স্বাগতিকদের। জয় না পেলেও রেফারি শেষ বাঁশি বাজানোর সঙ্গে সঙ্গে উল্লাসে মেতে উঠেন মামুনুল-রবিউলরা। কারণ এর মধ্য দিয়েই যে বিশ^কাপ বাছাইয়ের মূল মঞ্চে বাছাইয়ে অংশগ্রহণ নিশ্চিত হয় তাদের।

প্রথম পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj