কুর্তা শার্ট

রবিবার, ৯ জুন ২০১৯

মেহেদী সোহেল

ফ্যাশন বৃত্তান্ত ঘেটে দেখা গেছে পুরান ঢাকার বেপারীরা ঢিলেঢালা ধরনের বিশেষ এক পোশাক পরতেন। ঢিলেঢালা ধরনের সেই বিশেষ পোশাক খুব আরামদায়ক ছিল। অনেকে একে বেপারী পাঞ্জাবিও বলে থাকেন। বেপারীদের আরামদায়ক সেই বিশেষ পোশাকের সাথে ফতুয়ার ফিউশনে ইদানিং আবার জনপ্রিয় হচ্ছে কুর্তা শার্ট। দেখতে শার্টে মতো হলেও প্যার্টানে থাকছে ফতুয়ার মতো কলার ফ্রন্ট লুপও।

মুলত: তরুণরা এখন একটু বৈচিত্র্যের খোঁজে ঝুঁকছেন এধরনের শার্টের দিকে। তাদের যেমন পছন্দ আরাম আর ফ্যাশন দুইয়ের মেলবন্ধনে নতুন নকশার শার্টও বেশ দেখা যাচ্ছে বাজারে।

ফ্যাশন হাউস জেন্টল পার্কের চিফ ডিজাইনার শাহাদৎ চৌধুরী বাবু বললেন, উজ্জ্বল রঙ ও প্রিন্টে বা স্ট্রাইপের সুতি কাপড়ের তৈরি খাটো হাতার শার্টগুলোর চল বেশ ভালোই এখন। কাপড় হালকা হওয়ায় বৃষ্টিতে ভিজলেও চটজলদি শুকিয়ে যায়। বাহারি এ খাটো হাতার শার্টগুলো গরমে গায়ে চাপিয়েও বেশ আরাম। পাশাপাশি একরঙা কুর্তা কাটের শার্টও এখন বেশ চলতি। ¯œ্যাপ বাটনের শার্ট চলছে দেদার। শার্টে এখন অনেক নতুনত্ব এসেছে। কলারেই আছে বিচিত্র সব ডিজাইন। ন্যারো কলার, ব্যান্ড কলার তো আছেই, গেঞ্জি কলারও যুক্ত হয়েছে শার্টে। সাদাসিধে কলারে সুই-সুতার কাজও চলছে বেশ। খাটো হাতায় যুক্ত হয়েছে ফোল্ডিং। কোনো কোনো হাতায় লুপ লাগিয়ে ভিন্নতা আনা হয়েছে। ছেলেদের শার্টে সূ² পরিবর্তন আনা হচ্ছে সময়ের সাথে মিল রেখে। বোতামেও ব্যাপক পরিবর্তন এসেছে। কাফে দুটো বোতাম থাকলে একটা হয়তো লাল, আরেকটা সাদা রঙের। শার্টে বোতাম লাগানোর জন্য বিপরীত রঙের সুতারও ব্যবহারও দেখা যাচ্ছে। প্রিন্টেড শার্টে ছাপা নকশার কোনো একটা রং বেছে নিয়ে দেয়া হচ্ছে গলা কিংবা হাতায়। ছেলেরা এখন ¯িøম কাটের দিকে বেশি ঝুঁকছে। প্যান্টের ভেতরে টাক-ইন করে পরা যায়, প্যান্টের ওপরে রেখেও পরা যাবে। এখন শার্টেও টিকিং দেয়া হচ্ছে।

শার্ট যেখান থেকেই কিনুন, কিছু ব্যাপার অবশ্যই খেয়াল রাখা উচিত তা যেন শরীরের সঙ্গে ভালোভাবে ফিট হয়। শার্টে চেহারার আসল সৌন্দর্য ফুটে ওঠে। তাই সেটি যেন বেশি আঁটসাঁট বা ঢিলেঢালা না হয়, আর শার্টে কাঁধের ফিটিং যেন ঠিক থাকে। যেহেতু বর্ষা মৌসুম, তাই কালারফুল শার্টগুলো মানিয়ে যাবে বেশ।

ফ্যাশন (ট্যাবলয়েড)'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj