তেলেঙ্গানা কংগ্রেসে ভাঙন : টিআরএসে যোগ দিলেন ১২ বিধায়ক

শনিবার, ৮ জুন ২০১৯

কাগজ ডেস্ক : লোকসভা নির্বাচনে শোচনীয় পরাজয়ের ধাক্কা সামলানোর আগেই রাহুল গান্ধীর দল কংগ্রেসের অভ্যন্তরে কোন্দলের বিষয়টি সামনে আসে। পাঞ্জাবে মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং ও মন্ত্রী নভজ্যোত সিং সিধুর দ্ব›দ্ব এরই মধ্যে প্রকাশ্যে চলে এসেছে। আর এবার কংগ্রেস ধাক্কা খেল দক্ষিণ ভারতের রাজ্য তেলেঙ্গানায়। ওই রাজ্যের বিধানসভায় কংগ্রেসের বিধায়ক সংখ্যা ১৮। এর মধ্যে ১২ জন কংগ্রেস ছেড়ে টিআরএস-এ যোগ দিয়েছেন। স¤প্রতি লোকসভা নির্বাচনে টানা দ্বিতীয়বারের মতো শোচনীয় পরাজয় হয়েছে রাহুলের দল ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল কংগ্রেসের। পূর্ববর্তী লোকসভা নির্বাচনের তুলনায় এবার আসন সংখ্যা আরো বাড়িয়েছে নরেন্দ্র মোদির দল বিজেপি। গতবার এককভাবে ২৮২ আসন পাওয়া এ দলটি এবার পেয়েছে ৩০৩টি আসন। আর কংগ্রেস পার্টি আগেরবারের চেয়ে ৮টি আসন বেশি পেলেও পার্লামেন্টে প্রধান বিরোধী দল হওয়ার মতো প্রয়োজনীয় আসন পূরণ করতে পারেনি। পার্লামেন্টে প্রধান বিরোধী দল হওয়ার জন্য একটি দলকে মোট আসনের অন্তত ১০ ভাগ আসনে জিততে হয়। এবারের নির্বাচনে কংগ্রেস পেয়েছে মাত্র ৫২টি আসন। দক্ষিণের রাজ্য তেলেঙ্গানায় কোনো আসন পায়নি দলটি। তেলেঙ্গানায় সদ্য বিধানসভা ভোট হয়েছে। সেখানে ক্ষমতা ধরে রেখেছে তেলেঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতি (টিআরএস)। দ্বিতীয়বারের জন্য ওই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন কে চন্দ্রশেখর রাও। লোকসভা নির্বাচনে শোচনীয় পরাজয়ের পর তার দলেই যোগ দিয়েছেন তেলেঙ্গানা কংগ্রেসের ১২ জন বিধায়ক। বৃহস্পতিবার কংগ্রেসের ওই বিধায়করা তেলেঙ্গানা বিধানসভার স্পিকারের সঙ্গে দেখা করেন। তাদের সদস্যপদ কংগ্রেস থেকে টিআরএসে মিশিয়ে দেয়ার আবেদন করেন। গত মার্চ মাসে ১১ জন কংগ্রেস বিধায়ক টিআরএস দলে যোগ দেবেন বলে জানিয়েছিলেন। এবার আরো ১২ জন বিধায়ক সেই দলে যোগ দিলেন। সকলেই মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রশেখর রাওয়ের নেতৃত্বে কাজ করতে চান। এর ফলে কংগ্রেস যে রাজ্য থেকে প্রায় নিশ্চিহ্ন হয়ে যেতে চলেছে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি নিউজের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, দলবদল বিরোধী আইন এখন ভারতে বেশ কড়া। দলবদল করলে সাংসদ বা বিধায়কদের সদস্যপদ চলে যায়। কিন্তু কোনো রাজনৈতিক দলের মোট সাংসদ বা বিধায়কের দুই-তৃতীয়াংশ দল ছাড়লে, তাদের সদস্যপদ বাতিল হয় না।

তেলেঙ্গানায় কংগ্রেসের সদস্য সংখ্যা ১৮। ফলে তার দুই-তৃতীয়াংশ হল ১২ জন সাংসদ। সে সংখ্যক বিধায়কই কংগ্রেস ছেড়ে টিআরএসে যোগদান করেছেন। ফলে তাদের সদস্যপদ বাতিল হবে না।

দূরের জানালা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj