টিভি পর্দার ঈদ আয়োজন : দেখবে তো দর্শক?

শনিবার, ১ জুন ২০১৯

শাহনাজ জাহান

প্রতি বছরই ঈদকে ঘিরে সপ্তাহব্যাপী অনুষ্ঠান সাজাই দেশের সরকারি-বেসরকারি সব টেলিভিশন চ্যানেল। এবারো সেই ধারাবাহিকতায় চ্যানেলগুলো এখন ব্যস্ত শেষ মুহূর্তের অনুষ্ঠান গোছানোতে। বেশিরভাগ টেলিভিশন চ্যানেল তাদের অনুষ্ঠান তালিকা চূড়ান্ত করে ফেলেছে। নানা মাধ্যমে কেউ কেউ অনুষ্ঠানের বিজ্ঞাপনও প্রচার করছে। তবে টেলিভিশনের অনুষ্ঠান বিভাগের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এবারের ঈদ আয়োজন নিয়ে বড় ধরণের চ্যালেঞ্জের মধ্যে পড়তে হচ্ছে তাদের। শিশুতোষ টিভি চ্যানেল দুরন্ত টিভির অনুষ্ঠান প্রধান মোহাম্মদ আলী হায়দার বলেন, এবারের ঈদের সময়টাতে বিশ্বকাপ খেলা রয়েছে। আর এই বিশ্বকাপে অংশ নিচ্ছে আমাদের বাংলাদেশ। ফলে স্বাভাবিকভাবেই সবার আগ্রহ খেলা নিয়ে। দুরন্ত টিভিতেও বিশ্বকাপ উপলক্ষে নতুন অনুষ্ঠান প্রচার করা হচ্ছে। তারপরও একটু শঙ্কা রয়েছে। ঈদের অনুষ্ঠানগুলো দর্শক দেখবে তো? দর্শকের কথা মাথায় নিয়েই অনুষ্ঠান সাজানোর চেষ্টা করা হয়েছে।

বিশ্বকাপ ক্রিকেট ঈদের অনুষ্ঠানে কোনো প্রভাব ফেলতে পারে কিনা জানতে চাইলে বৈশাখী টেলিভিশনের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক টিপু আলম মিলন বলেন, আমরা মোটেও শঙ্কিত নই। যারা খেলা দেখার তারা তো খেলা দেখবেই। আবার যারা ঈদ অনুষ্ঠানের ভক্ত তারা অনুষ্ঠানও মিস করবে না। আমার পূর্বের অভিজ্ঞতা তাই বলে। আরো একবার বিশ্বকাপ খেলার সময় ঈদ উৎসব পড়েছিল। সেবার কিন্তু বৈশাখী টেলিভিশন টিআরপিতে দ্বিতীয় হয়েছিল। এবার আমরা নানান বৈচিত্র্যতায় বৈশাখীর ঈদের অনুষ্ঠানমালা সাজিয়েছি। আশা করছি সব শ্রেণির দর্শকদের ভালো লাগবে।

অন্যবারের মতোই টিভি পর্দায় ঈদ আয়োজনের অন্যতম অংশ জুড়ে থাকবে খণ্ড নাটক, ধারাবাহিক নাটক। বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আরটিভির অনুষ্ঠান বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এবারের ঈদ আয়োজনে সাত পর্বের ধারাবাহিকের সংখ্যা বেড়েছে। এ ছাড়া খণ্ড নাটক, ধারাবাহিক মিলিয়ে ৩০টিরও বেশি নাটক প্রচার হবে আরটিভিতে। চ্যানেল আই, বাংলাভিশন, এনটিভি, মাছরাঙাসহ সব বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে তিন শতাধিক নাটক, টেলিছবি, ধারাবাহিক প্রচার হবে। এরই মধ্যে কিছু নাটকের কাজ শেষ করে চ্যানেলের অনুষ্ঠান বিভাগে জমা দেয়া হয়েছে। আবার কিছু কাজ এখনো চলছে। কিন্তু চ্যানেলের পর্দায় সেগুলো বিজ্ঞাপন প্রচার করা হচ্ছে। টিভি পর্দায় ঈদ আয়োজনে নাটকের পাশাপাশি বিনোদনমূলক ম্যাগাজিন ও রান্নার অনুষ্ঠানসহ অন্যান্য বিষয়ও থাকবে। প্রতি ঈদের মতোই এবারো বাংলাদেশ টেলিভিশনে (বিটিভি) প্রচার হবে হানিফ সংকেতের পরিচালনায় জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ঈত্যাদি। এরই মধ্যে ইত্যাদির নির্মাণ শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছেন হানিফ সংকেত। নির্মাতা ও উপস্থাপক হানিফ সংকেত বলেন, প্রতিবারের মতোই একটি বিশেষ পর্বে ঢাকায় বসবাসরত অর্ধশতাধিক বিদেশি অংশ নিচ্ছেন। এ ছাড়া ফেরদৌস, পূর্ণিমা, সিয়াম, পূজা অংশ নিচ্ছেন একটি বিশেষ পর্বে। তা ছাড়া নিয়মিত সব পর্বই থাকবে। প্রতিবারের মতোই এবারো ঈদের বিশেষ ইত্যাদি একযোগে বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে প্রচার হবে ঈদের পরদিন রাত ১০টা ২০ মিনিটে। টিভি আয়োজনের পাশাপাশি অনলাইন ভিত্তিক বিভিন্ন ভিডিও স্ট্রিমিং প্লাটফর্মও ঈদকে ঘিরে নানা অনুষ্ঠান প্রচার করছে। সেগুলো ইউটিউবে প্রচার হবে। টেলিভিশনের অনুষ্ঠান বিভাগের সামনে কয়েক বছর ধরে এ বিষয়টি মাথায় রাখতে হচ্ছে। এক ধরনের ইউটিউবের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করেই তাদের অনুষ্ঠান সাজাতে হচ্ছে। আবার বেশ কিছু টেলিভিশন চ্যানেল নিজেরাই ইউটিউব চ্যানেল খুলে টিভিতে প্রচার হওয়া অনুষ্ঠান বিশেষ করে নাটক পুনরায় ইউটিউবে প্রচার করছে। এর ফলে আরো বেশি সংখ্যা দর্শক সেই নাটকগুলো দেখতে পারছে বলে মনে করেন আরটিভির অনুষ্ঠান বিভাগের প্রধান দেওয়ান শামসুর রকিব। তিনি বলেন, ইউটিউব এখন সময়ের চাহিদা। আরটিভিতে প্রচার হওয়া নাটক, টেলিছবি পরবর্তী সময় অনলাইন মাধ্যমে প্রচার করা হয়। এতে আমাদের দর্শক বাড়ছে। সব মিলিয়ে এবারের ঈদ আয়োজন টিভি চ্যানেলের কাছে কিছু চ্যালেঞ্জই হবে বলে মনে করছেন টেলিভিশন সংশ্লিষ্টরা। তারপরও ভালো অনুষ্ঠানগুলো দর্শক দেখবে বলেই প্রত্যাশা টিভি চ্যানেলগুলোর।

মেলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj