টুকি-টাকি

শনিবার, ১ জুন ২০১৯

জরিমানার ভয়ে আদালতে ডিএনএ দিলেন রাজা

কাগজ ডেস্ক : পিতৃত্বের দাবি নিয়ে জটিলতার প্রেক্ষিতে বেলজিয়ামের সাবেক রাজা দ্বিতীয় আলবার্ট তার ডিএনএ নমুনা জমা দিয়েছেন। তিনি যদি ডিএনএ নমুনা জমা না দিতেন তাহলে তাকে প্রতিদিন পাঁচ হাজার ইউরো জরিমানা গুনতে হতো। দেশটির ৮৪ বছর বয়সী সাবেক এই রাজা গত এক দশকেরও বেশি সময় যাবত পিতৃত্বের বিষয়টি নিয়ে আইনগত লড়াই করছেন। বেলজিয়ামের ৫১ বছর বয়সী শিল্পী ডেলফাইন বোয়েল দাবি করেন যে, তার ‘বাবা’ হচ্ছেন বেলজিয়ামের সাবেক রাজা দ্বিতীয় আলবার্ট। কিন্তু দ্বিতীয় আলবার্ট সে দাবি খারিজ করে দিচ্ছেন। ১৯৯৩ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত সিংহাসনে অধিষ্ঠিত ছিলেন দ্বিতীয় আলবার্ট। চলতি বছরের শেষের দিকে এ পিতৃত্বের দাবির বিষয়ে আদালতের রায় হতে পারে। রাজধানী ব্রাসেলসের একটি আদালত গত ফেব্রুয়ারিতে নির্দেশ দিয়েছিল যে, তিন মাসের মধ্যে সাবেক এই রাজাকে ডিএনএ নমুনা জমা দিতে হবে। অন্যথায় শিল্পী বোয়েলের পিতা হিসেবে গণ্য হবেন তিনি। ১৯৯৯ সালে রাজা দ্বিতীয় আলবার্টের স্ত্রী সম্পর্কে একটি জীবনীতে বেরিয়ে আসে যে রাজার একটি অবৈধ সন্তান আছে। এ নিয়ে বেলজিয়ামের গণমাধ্যমে নানা ধরনের গল্প ছড়িয়ে পড়ে। ২০০৫ সালে বোয়েল এক সাক্ষাৎকারে বলেন যে, রাজা দ্বিতীয় আলবার্ট তার বাবা।

সম্পত্তির লোভে বাবাকে হত্যার পর ২৫ টুকরো

কাগজ ডেস্ক : অনেকদিন ধরেই বাবার সম্পত্তির ওপর লোভ ছিল তার। প্রায়ই নিজের নামে সম্পত্তি লিখিয়ে দেয়া নিয়ে বাবার সঙ্গে বিবাদে জড়াতেন। সেই বিবাদ এমন চরমে উঠল যে, বাবাকে হত্যা করে ফেলেন। শুধু হত্যা করেই ক্ষান্ত দেননি। বাবার মরদেহ ২৫ টুকরো করে বস্তাতে করে অন্যত্র সরানোর চেষ্টা করেন। ভারতীয় টেলিভিশন চ্যানেল এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, মর্মান্তিক এ ঘটনাটি ঘটিয়েছেন রাজধানী দিল্লির শাহদরা এলাকার বাসিন্দা আমন আগারওয়াল। তিনি তার বাবা সন্দেশ আগারওয়ালকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেন। এনডিটিভির প্রতিবেদন অনুযায়ী, হত্যার পর বন্ধুদের সহায়তায় সেই টুকরো করা লাশ বস্তায় করে বাড়ি থেকে সরানোর সময় অভিযুক্তকে সাহায্য করেছিল তার চার বন্ধু। কিন্তু টুকরো লাশের বস্তা নিয়ে বাড়ি থেকে কিছুদূর যাওয়ার পর তারা হাতেনাতে ধরা পড়ে। আমনের তিন বন্ধু পালিয়ে গেলেও অপর এক বন্ধুসহ ধরা পড়ে যান অভিযুক্ত আমান আগারওয়াল। তাদের গ্রেপ্তারের পর, স্থানীয় থানার পুলিশ প্রধান পুরো ঘটনাটিকে নৃশংস বলে বর্ণনা করেছেন।

বাইকে চড়ছে গরু!

কাগজ ডেস্ক : পোষা কুকুর বা বিড়ালকে সাইকেল বা বাইকে চড়িয়ে অনেকেই ঘুরতে বের হন। এমন দৃশ্য দেখতে আমরা অভ্যস্ত। কিন্তু বাইকে গরুর মতো বড়সড় প্রাণীকে বসিয়ে ঘুরে বেড়ানো চাট্টিখানি কথা নয়। এমন ঘটনা সত্যিই বিরল। আর সে কারণেই স¤প্রতি গরুকে বাইকে বসিয়ে রাস্তা দিয়ে ঘুরে বেড়ানোর একটি ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে রীতিমতো ভাইরাল হয়ে গেছে। ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতে দেখা গেছে, এক ব্যক্তি বাইক চালাচ্ছেন আর বাইকের সামনের অংশে বসে আছে একটি গরু। গরুটির গায়ে চাদর জড়ানো। ওই ব্যক্তি যখন গরু নিয়ে রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন তখন তার পাশ দিয়ে বাইক নিয়ে যাওয়া দুজন এই দৃশ্য ক্যামেরা বন্দি করেছেন। বাইকে গরু নিয়ে ঘোরার এই দৃশ্যটি পাকিস্তানের।

ছেলের সঙ্গে মাধ্যমিক পাস বাসন্তীর

কাগজ ডেস্ক : সর্বশেষ ১৮ বছর আগে স্কুলে গেছিলেন। এরপর ঘর সংসারের কারণে আর স্কুলে যাওয়া হয়নি ৩৬ বছরের বসন্তীর মুদুলির। কিন্তু পড়াশোনার স্বপ্নটা ভুলে যাননি। তাইতো ছেলের বই নিয়ে, তার সঙ্গেই চালিয়েছেন পড়াশোনা। ভারতের ওড়িশার স্টেট ওপেন স্কুলের সাহায্যে বসন্তী মুদুলি মাধ্যমিক পাসও করে গেলেন একবারেই। অঙ্গনওয়ারিতে কাজ করছিলেন বসন্তী মুদুলি। কিন্তু খুব ভালো করেই জানতেন, পড়াশোনা ছাড়া বেশিদূর যাওয়া সম্ভব নয়। তাই যেভাবেই হোক অন্ততপক্ষে মাধ্যমিক পাস করার ভূত মাথায় চেপে বসে। সেই থেকেই শুরু।

দূরের জানালা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj