আজ প্রকাশিত হলো “ঢাকার ইতিহাসচর্চা ও মুনতাসীর মামুন”

শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯

চারযুগেরও বেশি সময় ধরে ঢাকার ইতিহাস নিয়ে কাজ করছেন অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন। ঢাকার প্রাচীন ইতিহাসের বিস্মৃতপ্রায় বহু অধ্যায় উন্মোচন করেছেন তিনি নিরলস সাধনায়। মুনতাসীর মামুনের এখন পর্যন্ত প্রকাশিত ঢাকা বিষয়ক বইয়ের সংখ্যা ৫৫টি। এর মধ্যে রয়েছে কোষগ্রন্থ, গবেষণাগ্রন্থ, প্রবন্ধ সংকলন, সম্পাদনা ইত্যাদি। ঢাকা বিষয়ে অন্য কোনো লেখকের এত অধিকসংখ্যক ও বৈচিত্র্যপূর্ণ লেখা নেই।

মুনতাসীর মামুনের ঢাকা গবেষণার ব্যাপ্তি ও বৈচিত্র্য নিয়ে পাঠক-গবেষকদের অনেকেই

বিস্ময় প্রকাশ করেছেন তাদের বিভিন্ন লেখায়। এবার গবেষক রেহানা পারভীন মুনতাসীর মামুনের গবেষণার এই দিকটি নিয়ে একটি পূর্ণাঙ্গ গ্রন্থ রচনা করেছেন ঢাকার ইতিহাসচর্চা ও মুনতাসীর মামুন শিরোনামে। গ্রন্থটি আজ প্রকাশিত হয়েছে। প্রকাশ করেছে সুবর্ণ, মূল্য ৪০০ টাকা।

দৃষ্টিনন্দন প্রচ্ছদে ২০৮ পৃষ্ঠার বইটি জিজ্ঞাসু পাঠকের বহু প্রশ্নের জবাব দিবে। গ্রন্থের শুরুতে ঢাকা বিষয়ে অন্যান্য লেখকদের লেখার একটি সংক্ষিপ্ত পরিচিতি তুলে ধরা হয়েছে। পরবর্তী সময়ে ধাপে ধাপে মুনতাসীর মামুনের ঢাকা বিষয়ক বইগুলো নিয়ে সংক্ষিপ্ত কিন্তু ঋদ্ধ আলোচনা রয়েছে। ফলে মুনতাসীর মামুনের পাঠকগণ এক মলাটে তাঁর ঢাকা বিষয়ক সব রচনার সঙ্গে একটি প্রাথমিক পরিচিতি তৈরি করে নিতে পারবেন। বাংলা বইয়ের প্রকাশনা জগতে নিঃসন্দেহে বইটি একটি ভিন্নধারার সংযোজন।

গ্রন্থে মুনতাসীর মামুনের একটি সংক্ষিপ্ত জীবনীও যুক্ত করেছেন লেখক। ফলে ৫৫টি বইয়ের রচয়িতা হিসেবে যারা মুনতাসীর মামুনকে ঢাকা গবেষক হিসেবে দেখবেন তারা তাঁর রচনাভুবনের ব্যাপ্তি ও গভীরতা সম্পর্কেও ধারণা লাভ করবেন। মুনতাসীর মামুনকে কেউ জানেন মুক্তিযুদ্ধ গবেষক, কেউ জানেন পূর্ববঙ্গ গবেষক, কেউ আবার রাজনৈতিক ভাষ্যকার হিসেবে। এমন নানা পরিচয়ের একটি দিক ঢাকা গবেষণা। ফলে পাঠক যেন ঢাকার ইতিহাস পড়তে গিয়ে লেখকের খণ্ডিত পরিচয়ের সঙ্গে যুক্ত না হয়ে পড়েন এ ক্ষেত্রে সংক্ষিপ্ত জীবনীটি সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

বিভাগীয় সম্পাদক

সাময়িকী'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj