বিটিসিএলে চলছে সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজি

রবিবার, ১৯ মে ২০১৯

বিটিসিএল শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেল ইউনিয়ন সিবিএর কেন্দ্রীয় কার্যকরী পরিষদের সভা সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়, গুলিস্তান টেলিফোন একচেঞ্জ ভবন, ঢাকায় গতকাল সভাপতি মো. শাহ নেওয়াজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভা পরিচালনা করেন মহাসচিব এস এম এ মুকিত (হিরু)। সংগঠনের সব কেন্দ্রীয় নেতারা বিস্তারিত বক্তব্য রাখেন। কেন্দ্রীয় নেতারা বলেন, দীর্ঘদিন ধরে বিটিসিএলে মাদক, সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, হাইব্রিড, নব্য লীগ সেজে জয় বাংলা ¯েøাগান দিয়ে উশৃঙ্খল নামধারী কর্মচারী বিভিন্ন উপায়ে কর্মচারীদের অপমান-অপদস্ত’, জাতীয় শ্রমিক লীগের অন্তর্ভুক্ত সংগঠন অফিস দখলসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে সাধারণ নিরীহ কর্মচারীদের জিম্মি করে আসছে। বক্তারা আরো বলেন, বিটিসিএল শ্রমিক কর্মচারী ফেডারেল ইউনিয়ন (সিবিএ) জাতীয় শ্রমিক লীগের, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের ও মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের একমাত্র সংগঠন। সংগঠনের নেতাকর্মীরা বিগত দিনে জামায়াত জোটের নৈরাজ্য জা¡লাও, পোড়াও-এর বিরুদ্ধে রাজপথে প্রতিরোধ আন্দোলনে ব্যাপক ভূমিকা রাখে। বেশ কয়েক বছর ধরে প্রশাসনের জামায়াত জোটের কর্মকর্তারা ও একজন দলীয় লেবাসধারী উএগ-এর প্রত্যক্ষ মদদে বিটিসিএলে মুজিব আদর্শের সংগঠনকে, কতিপয় সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ দ্বারা সন্ত্রাসী কায়দায় দলকে ধবংস করছে। অপরদিকে প্রশাসনের ভিতর ঘাপটি মেরে থাকা দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের অপকর্মের কারণে বিটিসিএল প্রতিষ্ঠান এখন লোকসানে পরিণত হয়েছে। এসব দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তারা কর্মচারীদের ভেতর অসন্তোষকে অন্তর্দলীয় কোন্দল হিসেবে দেখাতে চায়, বাস্তবে যা কোনো অন্তর্দলীয় কোন্দল নয়। ইতোমধ্যে বিষয়টি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ সব গোয়েন্দা সংস্থাকে রেজুলেশনের মাধ্যমে জানানো হয়েছে। বিটিসিএলের এসব নব্য লীগের ঘটনা গোয়েন্দা সংস্থা দ্বারা তদন্ত হওয়া ও এসব বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া দরকার বলে বিটিসিএলে কর্মরত বঙ্গবন্ধুর সংগঠনের নেতাকর্মীরা মনে করেন। বিজ্ঞপ্তি।

অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj