রিজেন্টের কাছে ১৮৫ কোটি টাকা পাবে বেবিচক

শনিবার, ১৮ মে ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : বেসরকারি বিমান সংস্থা রিজেন্ট এয়ারওয়েজ লিমিটেডের কাছে ১৮৫ কোটি টাকা পাবে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। দীর্ঘদিন ধরে বিমানবন্দর ব্যবহারের চার্জ পরিশোধ না করায় জরিমানাসহ এ পরিমাণ বকেয়া জমেছে সংস্থাটির।

গত ৪ মার্চ বেবিচকের অর্থ কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক হিসাবে দেখা যায়, চলতি বছরের জানুয়ারি পর্যন্ত রিজেন্ট এয়ারের কাছে বিল বাবদ পাওনা হয়েছে ১১৮ কোটি ৪ লাখ ৭হাজার ৮০১ টাকা। যা ৬৬ কোটি ৫৩ লাখ ২০ হাজার ৮১৮ টাকা জরিমানাসহ মোট ১৮৪ কোটি ৯৩ লাখ ২৮ হাজার ৬২০ টাকা দাঁড়িয়েছে।

শুধু শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ব্যবহারের জন্যই রিজেন্টের বিল হয় প্রায় ৬৮ কোটি ৩৬ লাখ টাকা। এ ছাড়া চট্টগ্রামের শাহ আমানত বিমানবন্দরের জন্য ৪৮ কোটি ৪৬ লাখ, কক্সবাজার বিমানবন্দরের জন্য ১ কোটি ৩৪ লাখ, সিলেটের ওসমানী বিমানবন্দরের জন্য ২৪ হাজার, সৈয়দপুর ও যশোর বিমানবন্দর ব্যবহারের জন্য ২২ লাখের বেশি বিল হয়েছে।

নিয়ম অনুযায়ী, দেশি-বিদেশি এয়ারলাইন্সগুলোর কাছ থেকে ফ্লাইট পরিচালনার জন্য অ্যারোনটিক্যাল ও নন-অ্যারোনটিক্যাল চার্জ আদায় করে থাকে বেবিচক। এসবের মধ্যে ল্যান্ডিং, পার্কিং, রুট নেভিগেশন, সিকিউরিটি ও বোর্ডিং ব্রিজ চার্জ অন্যতম। সঙ্গে আয়কর, ভ্যাট ইত্যাদি রয়েছে।

জানা গেছে, নানা সংকটে পড়ে রিজেন্ট এসব চার্জ পরিশোধে ব্যর্থ হচ্ছে অনেক দিন ধরে। চট্টগ্রামভিত্তিক হাবিব গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান রিজেন্ট এয়ারলাইনস প্রতিষ্ঠার পর থেকে এখন পর্যন্ত লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিণত হতে পারেনি। কয়েক বছর ধরে তারল্য সংকটে ভুগছে সংস্থাটি। পাশাপাশি ফ্লাইট পরিচালনায় তীব্র প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে গিয়েও হিমশিম খেতে হচ্ছে রিজেন্ট এয়ারকে। এ অবস্থা চলতে থাকলে ভবিষ্যতে ফ্লাইট পরিচালনার অনুমতি বন্ধ করে দিতে পারে বেবিচক- এমন কথাও শোনা যাচ্ছে জোরেশোরে।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj