এসএসসির উত্তরপত্র পুনর্মূল্যায়ন : আবেদন দেড় লক্ষাধিক ফল ২ জুনের মধ্যে

শনিবার, ১৮ মে ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : সম্প্রতি প্রকাশিত এসএসসি পরীক্ষার ফলাফলে আপত্তি জানিয়ে উত্তরপত্র পুনর্মূল্যায়নের আবেদন করেছেন দশ শিক্ষাবোর্ডের ১ লাখ ৬৫ হাজার ৬৫৮ শিক্ষার্থী। বেশিরভাগ আবেদন পড়েছে ইংরেজি ও গণিত বিষয়ে। এ ছাড়া তালিকার ওপরের দিকেই আছে ধর্মশিক্ষা। ১২টি পত্রের মধ্যে একেকজন শিক্ষার্থীর সর্বনিম্ন দুটি থেকে সর্বোচ্চ ৪-৫টি খাতা চ্যালেঞ্জ করার রেকর্ডও আছে। একেকজন শিক্ষার্থীর একাধিক বিষয়ের ফলাফল চ্যালেঞ্জের কারণে উত্তরপত্র পুনর্মূল্যায়নের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৩৮ হাজার ৬২৯টিতে। আগামী ২ জুনের মধ্যে পুনর্নিরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে।

ফলাফল চ্যালেঞ্জ করা শিক্ষার্থীর মধ্যে রাজধানীর ঐতিহ্যবাহী ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজসহ দেশসেরা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরাও আছেন। সবচেয়ে বেশি আবেদন পড়েছে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে। এখানে আবেদনকারী ৫৮ হাজার ৭০ জন। যার মধ্যে শুধু গণিত বিষয়ের খাতা পুনর্মূল্যায়নের আবেদনই ২২ হাজার ১৫০টি। দ্বিতীয় স্থানে আছে ধর্ম ১৫ হাজার। আর তৃতীয় স্থানে ইংরেজি প্রথমপত্র ১২ হাজার ৭০০টি। দ্বিতীয় স্থানে থাকা চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে আবেদন জমা পড়েছে ১৯ হাজার ১৮৩টি। এরপর পর্যায়ক্রমে কারিগরি শিক্ষাবোর্ডে ১৬ হাজার ৭০০ জন, রাজশাহী বোর্ডে ১৫ হাজার ১৭৩ জন, কুমিল্লা বোর্ডে ১৩ হাজার ২২৬ জন, দিনাজপুর বোর্ডে ১২ হাজার ৫৪০ জন, মাদ্রাসা বোর্ডে ১১ হাজার ৭৪৫ জন, সিলেটে ১০ হাজার ৫৪১ জন এবং সবচেয়ে কম বরিশাল শিক্ষাবোর্ডে ৮ হাজার ৪৮০ শিক্ষার্থী ফলাফল পুনর্নিরীক্ষার আবেদন জানিয়েছেন

। আবেদনকারীদের মধ্যে রাজশাহী বোর্ডে ৬ হাজার ৫০০ শিক্ষার্থী গণিত, ৩ হাজার ৬ জন রসায়ন, ২ হাজার ৩১২ জন ইংরেজি প্রথমপত্র এবং ২ হাজার ৯৭৮ জন ধর্ম বিষয়ের ফল পুনর্মূল্যায়ন চেয়েছেন। এভাবে অন্যান্য বোর্ডে গণিত, ইংরেজি এবং ধর্ম বিষয়ের ফল নিয়ে বেশি অসন্তোষ দেখা গেছে।

বোর্ডের খাতা পুনর্মূল্যায়ন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলছেন, খাতা পুনর্মূল্যায়নের ক্ষেত্রে সবকটি উত্তরে নম্বর দেয়া, প্রাপ্ত নম্বর গণনা ও ওএমআর শিটে উত্তোলন, বৃত্ত ভরাট ঠিক আছে কি-না তা দেখা হবে। এসব ঠিক থাকলে সেই খাতা নতুন করে মূল্যায়ন করা হবে। আগামী ২ জুনের মধ্যে পুনর্নিরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হবে।

আন্তঃশিক্ষাবোর্ড সমন্বয় কমিটির আহ্বায়ক ও ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক বলেন, পুনর্নিরীক্ষার জন্য আবেদনকারীদের খাতা নিয়ম অনুযায়ী নতুনভাবে নিরীক্ষা করা হবে।

গত ৬ মে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়। ফল প্রকাশের পরদিনই শুরু হয় ফলাফল পুনর্নিরীক্ষার আবেদন প্রক্রিয়া। চলে ১৩ মে পর্যন্ত।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj