ধর্ষণচেষ্টাকারীর মুক্তি : বাগমারার ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল কারাগারে

শনিবার, ১৮ মে ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক, রাজশাহী : জেলার বাগমারায় শিশু ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে আটক যুবককে কানটানা সাজা দিয়ে ছেড়ে দেয়ার ঘটনায় যোগীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোস্তফা কামালকে আটক করেছে পুলিশ।

গত বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার যোগীপাড়ার নিজ বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়। পরে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

বাগমারা থানার ওসি আতাউর রহমান বলেন, স্কুলছাত্রীর যৌন হয়রানির মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে চেয়ারম্যানকে বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়। স্কুলছাত্রীকে যৌন হয়রানির ঘটনায় এক যুবককে সহযোগিতা দেয়ায় ওই মামলায় তাকে আসামি করা হয়েছে।

সূত্রমতে, উপজেলার যোগীপাড়া ইউনিয়নের বারুইহাটি গ্রামে গত ৩ মে স্কুলছাত্রীকে ভুট্টা ক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে এক যুবক। হাতেনাতে আটক যুবক তৌহিদ আলীকে (২৫) নামমাত্র সালিশে কান ধরে ওঠবস করিয়ে ছেড়ে দেন চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল। বিষয়টি মিডিয়ায় এলে গত ৫ মে স্কুলছাত্রীর দাদা বাদী হয়ে বাগমারা থানায় মামলা করে। পর দিন পুলিশ তৌহিদকে গ্রেপ্তার করে। তৌহিদ আলী একই গ্রামের এহিয়া আলীর ছেলে। এহিয়া কুদাপাড়া মাদ্রাসার শিক্ষক।

শিশুটির স্বজনরা অভিযোগ করেন, স্থানীয় স্কুলের ষষ্ঠ শ্রেণির ওই ছাত্রী (১২) ৩ মে সকালে প্রতিবেশী এক ছোটভাইকে নিয়ে মাঠে ঘাস কাটতে যায়। বেলা ১১টার দিকে তৌহিদ শিশুটিকে জোরপূর্বক ভুট্টাক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj