কানে চোখ রাখার অপেক্ষায়…

শনিবার, ১১ মে ২০১৯

৭২তম কান চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধন হবে আগামী ১৪ মে। বিশ্বের রথী-মহারথী ও চলচ্চিত্রানুরাগীদের সমাবেশে কানের সাগরপাড় হয়ে উঠবে মুখর। লালগালিচায় ছড়াবে জলুস। এখন চলছে জোর প্রস্তুতি। এর অংশ হিসেবে আয়োজকরা কয়েকটি ঘোষণা দিয়েছেন। সই আয়োজনের জলুস ছড়ানোর অপেক্ষায় এখন বিশ্ব সিনেমাপ্রেমীরা।

ধ্রæপদী ছবির বিভাগ কান ক্ল্যাসিকসে এবারের আয়োজন ঘোষণা করা হয়েছে। ১৯৭৭ সালে ‘সেভেন বিউটিস’-এর জন্য অস্কারের ইতিহাসে প্রথম নারী হিসেবে পরিচালক বিভাগে মনোনীত হন ইতালির লিনা বার্তম্যুলার। নিজের ছবিটি নিয়ে এবার তিনি হাজির হবেন কান সৈকতে।

১৯৬৯ সালের কান উৎসবে ‘বেস্ট ফার্স্ট ওয়ার্ক’ পুরস্কার জেতে ডেনিস হপার পরিচালিত ‘ইজি রাইডার’। এর ৫০ বছর উদযাপন করা হবে এবার। ছবিটির মাধ্যমে প্রযোজনায় নাম লেখান মার্কিন অভিনেতা পিটার ফন্ডা। তিনি হাজির হবেন এবারের কানে।

ফরাসি নির্মাতা অ্যালা বারবারিওর ‘দ্য সিটি অব ফিয়ার’ ছবির ২৫ বছর পূর্তি উদযাপন করা হবে কানের ৭২তম আসরে। স্ট্যানলি কুব্রিকের ‘দ্য শাইনিং’ (১৯৮০) মিডনাইট স্ক্রিনিংয়ে উপস্থাপন করবেন অস্কারজয়ী মেক্সিকান নির্মাতা আলফনসো কুয়ারন।

স্প্যানিশ ফিল্ম গুরু লুই বুনুয়েলের তিনটি ছবি রাখা হয়েছে এবার। এগুলো হলো- দ্য ইয়াং এন্ড ড্যামড (১৯৫০), নাফারিন (১৯৫৮) ও দ্য গোল্ডেন এজ (১৯৩০)। এ ছাড়া আছে ১৯৫১ সালের কান উৎসবে গ্রাঁ প্রিঁ জয়ী ভিত্তোরিও ডি সিকার ‘মিরাকল ইন মিলান’।

চেকো¯েøাভাকিয়ার নির্মাতা মিলোস ফোরম্যানের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হবে এবার। গত বছর মৃত্যুবরণ করেন তিনি। তার বানানো ‘লাভস অব অ্যা ব্লুন্ড’ (১৯৬৫) প্রদর্শনের পাশাপাশি থাকবে ‘ফোরম্যান ভার্সাস ফোরম্যান’ প্রামাণ্যচিত্রটি। এতে রয়েছে চেক নিউ ওয়েভ থেকে শুরু করে তার হলিউড জীবনের গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়গুলো।

কান ক্ল্যাসিকসে ধ্রæপদী ছবির নির্মাতাদের নিয়ে বানানো কয়েকটি প্রামাণ্যচিত্র থাকছে এবারের আসরে। স্টিভেন স্পিলবার্গ, জর্জ লুকাস, রবার্ট রেডফোর্ড, ডেভিড লিঞ্চ, ক্রিস্টোফার নোলানসহ বিখ্যাত পরিচালকের কাজ নিয়ে আমেরিকার মিজ কস্টিনের ‘মেকিং ওয়েভস : দ্য আর্ট অব সিনেম্যাটিক সাউন্ড’, ফরাসি অভিনেতা-নির্মাতা জনি হ্যালিডের ওপর পিয়ের-উইলিয়াম গেøনের ‘জনি’স সাইলেন্সেস’, কিংবদন্তি ইতালিয়ান অভিনেত্রী আনা মানানির ওপর এনরিকো সেরাসোলো পরিচালিত ‘দ্য প্যাশন অব আনা মানানি’ এবং প্রয়াত ইতালিয়ান ফিল্ম গুরু বার্নার্দো বার্তোলুচ্চির শেষ সাক্ষাৎকার নিয়ে মারিও সেসতির ‘সিনেসিত্তা : দ্য ক্র্যাফটস অব সিনেমা বার্নার্দো বার্তোলুচ্চি : নো এন্ড ট্রাভেলিং’।

এবারের আসরে পুনরুদ্ধার করা ধ্রæপদী ছবির তালিকায় রয়েছে ফরাসি নির্মাতা জ্যঁ রেনোয়ার ‘টনি’ (১৯৩৪), জ্যঁ গ্রেমিয়নের ‘হ্যাভেন ইজ ইউরস’ (১৯৪৩), জিল গ্রেনজিয়ার ‘১২৫ রুই মোমার্ত’ (১৯৫৯), পোল্যান্ডের আনজেই বাইদার ‘কানাল’ (১৯৫৭), চীনের তাও জিনের ‘ডায়েরি অব অ্যা নার্স’ (১৯৫৭), তিয়ান জুয়াঙজুয়াঙের ‘দ্য হর্স থিফ’ (১৯৮৬), জাপানের তাইজি ইয়াবুশিতার ‘দ্য হোয়াইট স্নেক এনশানট্রেস’ (১৯৫৮), হাঙ্গেরির পিটার বাচোর ‘দ্য উইটনেস’ (১৯৬৯), জর্জিয়ার এলডার শেঙ্গেলায়ার ‘দ্য হোয়াইট ক্যারাভান’ (১৯৬৪), ফ্রান্সের নিকোল লে গ্যারেকের ‘প্লোগোফ, স্টোনস অ্যাগেইনস্ট রাইফেলস’ (১৯৮০), ফরিদ বগদিয়ারের ‘টোয়েন্টি ইয়ারস অব আফ্রিকান সিনেমা’ (১৯৮৩), আমেরিকার জন হাস্টনের ‘ম্যুলা রুজ’ (১৯৫২) এবং অলিভার স্টোন পরিচালিত ‘দ্য ডোরস’ (১৯৯১)।

মূল প্রতিযোগিতা বিভাগের বিচারকরা

স্বর্ণ পাম জিতবে কোন ছবি সেই বিচারের ভার থাকবে প্রতিযোগিতা বিভাগের বিচারকদের প্রধান মেক্সিকান নির্মাতা আলেহান্দ্রো গঞ্জালেজ ইনারিতুর ওপর। এবারই প্রথম ল্যাটিনো-আমেরিকান কেউ মূল বিচারক হলেন। তার নেতৃত্বে কারা থাকবেন সেই তালিকা ঘোষণা করা হয় গত ২৯ এপ্রিল।

২০০৬ সালে কানে ইনারিতুর বাবেল ছবির শিশুশিল্পী এল ফ্যানিং এবার বিচারকের আসনে থাকছেন। তিনি এখন ২১ বছরের তরুণী। ২০১৭ সালের কানে পাম দ’রের দৌড়ে থাকা ‘দ্য বিগাইল্ড’ ছবিতে অভিনয় করেন তিনি। এর আগের বছর প্রতিযোগিতা বিভাগে ছিল তার অভিনীত ‘দ্য নিয়ন ডেমন’।

এবার প্রতিযোগিতা বিভাগের বিচারক দলে আছেন চার মহাদেশের সাতটি ভিন্ন দেশের চার জন পুরুষ ও চার নারী। তালিকায় এল ফ্যানিংয়ের পাশাপাশি অন্য নারীরা হলেন পশ্চিম আফ্রিকার দেশ বুরকিনা ফাসোর অভিনেত্রী-পরিচালক মায়মুনা এনদাই, মার্কিন নির্মাতা কেলি রাইকার্ড (২০০৮ সালে আঁ সার্তে রিগারে নির্বাচিত ‘ওয়েন্ডি অ্যান্ড লুসি’), গত বছর কানে সেরা চিত্রনাট্যের পুরস্কার জয়ী ইতালিয়ান নির্মাতা অ্যালিস রোরওয়াচার (হ্যাপি অ্যাজ ল্যাজারো)। এ ছাড়া আছেন অস্কার মনোনীত গ্রিসের পরিচালক ইওর্গেস লানতিমোস, কানের গত আসরে ‘কোল্ড ওয়ার’ ছবির জন্য সেরা পরিচালক হওয়া পোল্যান্ডের পাওয়েল পাওলিকস্কি, ২০১৭ সালে কানে গ্রাঁ প্রিঁ জেতা ফরাসি নির্মাতা রবিন ক্যাম্পিলো (১২০ বিপিএম-বিটস পার মিনিট) ও ফরাসি গ্রাফিক ঔপন্যাসিক-নির্মাতা এনকি বিলাল (ইমমর্টাল)।

আঁ সার্তে রিগার বিভাগের বিচারক দল

কান উৎসবের অফিসিয়াল সিলেকশনের অংশ আঁ সার্তে রিগার বিভাগে বিচারকদের প্রধান থাকবেন লেবানিজ অভিনেত্রী-নির্মাতা নাদিন লাবাকি। তার নেতৃত্বে কাজ করবেন দুই জন করে নারী ও পুরুষ। তারা হলেন ফরাসি অভিনেত্রী মারিনা ফয়াস, জার্মান প্রযোজক নুহান সেকারসি, আর্জেন্টাইন নির্মাতা লিসান্দ্রো আলোনসো ও কানের গত আসরে সেরা নবাগত পরিচালক হিসেবে ক্যামেরা দর পুরস্কার জয়ী বেলজিয়ান নির্মাতা লুকাস দন্ত। আগামী ২৪ মে আঁ সার্তে রিগার বিভাগের সমাপনী হবে।

বিশ্ব চলচ্চিত্রের বৃহত্তর আয়োজন কান উৎসবের ৭২তম আসর শুরু হবে আগামী ১৪ মে। ওইদিন মার্কিন নির্মাতা জিম জারমাশের ‘দ্য ডেড ডোন্ট ডাই’ ছবির উদ্বোধনী প্রদর্শনী হবে। ফরাসি ভূমধ্যসাগরীয় তটভূমিতে আগামী ২৫ মে বিজয়ীদের নাম জানাবেন প্রতিযোগিতা বিভাগের বিচারকরা।

ফরাসি চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি (ফ্রেঞ্চ ডিরেক্টরস গিল্ড) আয়োজিত ডিরেক্টরস ফোর্টনাইটের ৫১তম আসর হবে এবার। এতে উদ্বোধনী ছবি নির্বাচিত হয়েছে কঁতা দ্যুপিউ পরিচালিত সপ্তম ছবি ‘ডিয়ারস্কিন’। অভিনয়ে জ্যঁ দ্যুজারদাঁ ও আদেল এনেল। ২০১১ সালে ‘দ্য আর্টিস্ট’-এর মাধ্যমে কানে সেরা অভিনেতা হওয়ার আট বছর পর ফিরছেন ফরাসি তারকা জ্যঁ দ্যুজারদাঁ। আগামী ১৫ মে জে ডব্লিউ ম্যারিয়টে নতুন ছবিটির ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হবে। তিনটি ভার্চুয়াল রিয়েলিটি ইনস্টলেশন এবারের ডিরেক্টরস ফোর্টনাইটের অন্যতম আকর্ষণ।

লালগালিচায় যে যেদিন হাঁটবেন

সারা দুনিয়ার চলচ্চিত্রবোদ্ধাদের দৃষ্টি থাকে দক্ষিণ ফরাসির কান চলচ্চিত্র উৎসবে। ‘সিনেমার অলিম্পিক’ হিসেবে পরিচিত কান চলচ্চিত্র উৎসব হয় সেখানেই। যার উত্তাপ ছড়িয়ে পড়ে সারাবিশ্বে। ভেনিস চলচ্চিত্র উৎসব ও বার্লিন চলচ্চিত্র উৎসবের সঙ্গে কানকেও সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ উৎসবের সম্মান দেয়া হয়। কান চলচ্চিত্র উৎসবের লালগালিচা হলো মূল আয়োজনের বাইরে চিত্তবিনোদনের সবচেয়ে জলুসময় দিক। কেননা এখানেই পা মাড়ান হলিউড ও বলিউডের নামি-দামি তারকা। এ বছরও তার ব্যতিক্রম হচ্ছে না। বলিউড অভিনেত্রীদের মধ্যে এবারো কান সৈকতে লালগালিচায় আলো ছড়াবেন ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন, দীপিকা পাড়ুকোন, সোনম কাপুর ও হুমা কুরেশি। চলুন জেনে নেয়া যাক ৭২তম কান চলচ্চিত্র উৎসবের লালগালিচায় কে কোনদিন হাঁটবেন- টানা ১৭ বছর ধরে কানের লালগালিচায় হাঁটছেন ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন। এ বছর ১৯ মে কানের লালগালিচায় রূপের জলুস দেখাবেন সাবেক এই বিশ্বসুন্দরী। ২০ ও ২১ মে সোনম কাপুর এবং ১৬ মে কানের লালগালিচায় দ্যুতি ছড়াবেন দীপিকা পাড়ুকোন। ১৯ ও ২০ মে দেখা দেবেন অভিনেত্রী হুমা কুরেশি। ৭২তম কান চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধন হবে আগামী ১৪ মে। ওইদিন থাকছে জিম জারমাশ পরিচালিত ‘দ্য ডেড ডোন্ট ডাই’ ছবির ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার। এটিও রয়েছে প্রতিযোগিতা বিভাগে। আনসার্টেন রিগার্ড বিভাগের মূল বিচারক লেবাননের নারী নির্মাতা নাদিন লাবাকি আর স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ও সিনেফন্ডেশন বিভাগে বিচারকরা কাজ করবেন ফরাসি নারী নির্মাতা ক্লেয়ার ডেনিসের নেতৃত্বে। এবারের উৎসব চলবে ২৫ মে পর্যন্ত। ওইদিন ঘোষণা করা হবে স্বর্ণ পাম জয়ী ছবির নাম। উদ্বোধনী ও সমাপনী আয়োজন উপস্থাপনা করবেন ৫১ বছর বয়সী ফরাসি অভিনেতা এডুয়ার্ড বেয়ার। প্রয়াত নারী নির্মাতা আনেস ভারদার শুটিংয়ের একটি স্থিরচিত্র নিয়ে সাজানো হয়েছে উৎসবের অফিসিয়াল পোস্টার।

মেলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj