ঘুমকুমারী

শনিবার, ১১ মে ২০১৯

হেমন্ত প্রাচ্য

রাজধানীর সেগুনবাগিচাস্থ জাতীয় নাট্যশালার পরীক্ষণ থিয়েটার হলে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মঞ্চায়িত হয় জাহাঙ্গীরনগর বিশ^বিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের প্রথমবর্ষের প্রযোজনা ‘ঘুমকুমারী’। দ্য ¯িøপিং বিউটি গল্পের ছায়া অবলম্বনে নাটকটি রচনা করেছেন আফসার আহমেদ, নির্দেশনা দিয়েছেন রুবাইয়াৎ আহমেদ। নাটকের কাহিনিতে দেখা যায়, বঙ্গদেশের রাজপুত্র রূপকুমার। প্রজাদের অধিকার নিয়ে রাজা মেঘশাহের সঙ্গে তার বিরোধ সৃষ্টি হয়। প্রসাদ ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে কারাগারে নিক্ষিপ্ত হয় রূপকুমার। মায়ের সহায়তায় বন্দিদশা থেকে মুক্ত হয়ে সে যাত্রা করে অজানার উদ্দেশে। ঘুরতে ঘুরতে একসময় সে হাজির হয় কাঞ্চনপুর নামক এক রাজ্যে। সেখানে এক ফকিরের কাছে জানতে পারে এই রাজ্যের দুর্দশার কাহিনি। ক্ষুব্ধ এক পরীর অভিশাপে রাজ্যের রাজকন্যা ঘুমিয়ে গেছে। শুধু কোনো রাজপুত্রের রক্তদানের মাধ্যমে সে আবার জেগে উঠবে, রাজ্য আবার প্রাণ ফিরে পাবে। রাজপুত্র সেই অসাধ্য সাধনের লক্ষ্যে ঘুমন্ত রাজপুরীতে প্রবেশ করে। রাজকন্যার কপালে রক্ততিলক এঁকে তাকে জাগিয়ে তোলে। রাজকন্যা জেগে ওঠে। ঘুমন্তপুরী আবার জেগে ওঠে। জেগে ওঠে সাধারণ মানুষ। রাজপুত্র যে অধিকার নিয়ে পিতার সঙ্গে লড়াই করেছিল, কাঞ্চনপুরে সেই অধিকার প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দেয়।

নাটকটিতে অভিনয় করেছেন তামিম হোসেন, নাহিদ আল মবিন, আকাশ তুহিন, শচীন ভট্টাচার্য, রেজওয়ান রাশেদ সোয়ান, আরিফুল ইসলাম নীল, শরণ এহসান, রিফা রাফিয়া, তুনতুন মজুমদার, নিশি ওয়াহেদ, সোহানা তানজীম, সাবরীন শ্রাবণী, বন্যা রায়, আসমাউল হুসনা বৃষ্টি, তন্বী, শাকিল আহমেদ, শাহিনূর আক্তার প্রীতি, মৌশ্রী দাস নিশু, নিশাত তাসমিন টুম্পা, শুক্লা রায়, শাহমুদুল হক মায়ান, মেহেদী ইসলাম, আবু রায়হান, তানভীর পালোয়ান অপূর্ব, ফারিয়া চৌধুরী ইতু, উষ্মিতা চৌধুরী, আমিনুল ইসলাম জিসান, সাজ্জাদুল অলক শুভ।

নাটকটির সুর ও সঙ্গীত রচনা করেছেন আফসার আহমদ, ইউসুফ হাসান, রুবাইয়াৎ আহমেদ, শচীন ভট্টাচার্য। পোশাক পরিকল্পনা : খায়েরুজ্জাহান মিতু, আলোক পরিকল্পনা : হাবিব মাসুদ, অভিনয় প্রশিক্ষণ : ফাহিম মালেক ইভান, কোরিওগ্রাফি : শাকিল আহমেদ, কৃষ্ণা সজ্জন পূজা, মেক-আপ : খায়েরুজ্জাহান মিতু।

মেলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj