টুকি-টাকি

শনিবার, ৩০ মার্চ ২০১৯

শুয়ে থাকার চাকরি দিচ্ছে নাসা

কাগজ ডেস্ক : ঘুমানোর চাকরি দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। আবেদনকারীদের মধ্য থেকে মোট ২৪ জনকে চাকরি দেয়া হবে। তাদের কাজ হবে নাসার গবেষণার অংশ হিসেবে ৬০ দিন গবেষণাগারের বিছানায় শুয়ে থাকা। এ জন্য তাদের প্রত্যেককে বেতন হিসেবে দেয়া হবে ১৪ হাজার ১৭৭ পাউন্ড। বাংলাদেশি মুদ্রায় এর পরিমাণ দাঁড়ায় ১৫ লাখ ৬৯ হাজার ৫০৯ টাকা। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ইন্ডিপেনডেন্ট। ইউরোপীয়ান স্পেস এজেন্সির সঙ্গে সমন্বিতভাবে এ গবেষণা পরিচালনা করছে নাসা। এ জন্য বাছাইকৃত ২৪ জন আগামী সেপ্টেম্বরে জার্মান অ্যারোস্পেস সেন্টারে যাওয়ার সুযোগ পাবেন। সেখানেই বৈজ্ঞানিক গবেষণার জন্য দুই মাস ধরে শুয়ে থাকতে হবে তাদের। এর মাধ্যমে কৃত্রিম মাধ্যাকর্ষণের সম্ভাব্যতা যাচাই করতে হবে। জার্মানিতে তাদের দুটি দলে ভাগ করে দিয়ে একটি কক্ষে রাখা হবে। এ সময়ের মধ্যে খাওয়া দাওয়া থেকে শুরু করে প্রাকৃতিক কাজ সবকিছুই করতে হবে শুয়ে শুয়ে। তবে যাতে বিরক্তির উদ্রেক না হয় সে জন্য তাদের জন্য থাকছে বিনোদনের ব্যবস্থা। তাদের জন্য একটি টেলিভিশনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এ ছাড়া বই পড়াসহ শুয়ে শুয়ে অবসর যাপনের যাবতীয় উপাদান থাকছে রুমটিতে। তাদের পুষ্টিকর খাবারের দিকে নজর রাখবে কর্তৃপক্ষ। তবে আয়োজকদের পরামর্শ হচ্ছে, এই অখণ্ড অবসরে বিভিন্ন অনলাইন কোর্স করে নেয়া যেতে পারে। নাসার প্যাকেজটি মূলত ৮৯ দিনের। ঘুমানোর ৬০ দিনের আগে পরে সবার সঙ্গে পরিচিত হওয়া, নতুন পরিবেশে খাপ খাওয়ানো এবং স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যাওয়ার প্রস্তুতির মতো আনুষঙ্গিক কার্যাবলিতে ব্যয় হবে। অংশগ্রহণকারীদের শুয়ে থাকার ধরন হবে কিছুটা ভিন্ন। রক্তপ্রবাহ কমাতে তাদের মাথার চেয়ে পা কিছুটা উপরে থাকবে।

৩৬ বছর জেল খাটার পর নির্দোষ

কাগজ ডেস্ক : ১৯৮২ সালের একটি ধর্ষণ মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়ে ৩৬ বছর জেলে খাটার পর প্রমাণিত হলো ওই ব্যক্তি আসলে দোষীই ছিলেন না। জীবনের ৩৬টা বছর কারাগারে কাটানোর পর অবশেষে গত সপ্তাহে মুক্ত হয়েছেন তিনি। নাম তার উইলিয়াম। ঘটনাটি ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের লুইজিয়ানাতে। দ্য ইনোসেন্স প্রজেক্ট নামে অলাভজনক একটি প্রতিষ্ঠান বিষয়টি সামনে নিয়ে আসে। ভুল বিচারের শিকার হয়ে কারাভোগ করাদের মুক্ত করতে কাজ করে প্রতিষ্ঠানটি। গত সপ্তাহে প্রতিষ্ঠানটি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ১৯৯৫ সালে প্রথম ইনোসেন্স প্রজেক্টের কাছে একটি চিঠি লিখেছিলেন উইলিয়াম। তখন তার বয়স ছিল ৩৫ বছর। সেই উইলিয়াম গতকাল কারাগার থেকে মুক্ত হয়েছেন। এখন তার বয়স ৫৮ বছর। ইনোসেন্স প্রজেক্ট বলছে, ১৯৮২ সালে ব্যাটন রউজের যে ঘরে ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটেছিল সেখানে পাওয়া আঙুলের ছাপগুলোর সঙ্গে উইলিয়ামের আঙুলের ছাপের মিল না পাওয়ায় আদালত তাকে মুক্তি দিয়েছে।

ইসরায়েলে বিশ্বের দীর্ঘতম ‘লবণ গুহা’র সন্ধান

কাগজ ডেস্ক : ৯ দেশের বিজ্ঞানীদের একটি দল দাবি করেছে, বিশ্বের দীর্ঘতম লবণের গুহা (সল্ট কেভ) রয়েছে ইসরায়েলে। ‘লবণ গুহা’ ম্যালাম কেভের দৈর্ঘ্য প্রায় ১০ কিলোমিটার। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, এর আগে দীর্ঘতম সল্ট কেভ রেকর্ডের মালিক ছিল ইরান।

বিশ্বে সল্ট কেভের সংখ্যা খুবই কম। যেগুলো আছে সেগুলোরও বেশিরভাগ আধা মাইলের চেয়ে ছোট। লবণ গুহাগুলো সাধারণত পাওয়া যায় খুবই শুষ্ক অঞ্চলে। প্রায় দুই বছর ধরে গবেষকরা চুইয়ে পড়া লবণের সারি চিহ্নিত করে করে শেষ পর্যন্ত সম্পূর্ণ ম্যালাম গুহার নকশা মানচিত্রে লিপিবদ্ধ করেছেন।

গুহাটি যেখানে অবস্থিত সে স্থানটি বাইবেলে বর্ণিত হয়েছে। খ্রিস্টান ধর্মীয় এই গ্রন্থটির ভাষ্য, ধ্বংস করে দেওয়া সোডোম ও গোমরাহ শহরের দিকে ফিরে তাকাতে নিষেধ করা হলেও লুত নবীর স্ত্রী তা অমান্য করেছিলেন। তাই তিনি পরিণত হয়েছিলেন লবণের স্তম্ভে। ম্যালাম গুহার লবণের সারি শুরু ওই স্তম্ভের কাছ থেকেই। এখন পর্যন্ত ম্যালাম গুহার দৈর্ঘ্য ১০ কিলোমিটার।

দূরের জানালা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj