ব্লুক মার্কেটে লেনদেন বেড়েছে

শনিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : সমাপ্ত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লুক মার্কেটে ৩০টি প্রতিষ্ঠান লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব কোম্পানির ১০৫ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা আগের সপ্তাহ থেকে কমেছে। তবে ব্লুক মার্কেটে গত সপ্তাহে গড় লেনদেন বেড়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। জানা গেছে, ডিএসইর ব্লুক মার্কেটে ৩০টি কোম্পানির ১ কোটি ৪৫ লাখ ৩৪ হাজার ৫৪০টি শেয়ার ১১৫ বার হাত বদল হয়েছে। এর মাধ্যমে কোম্পানিগুলোর ১০৫ কোটি ১৮ লাখ ৭৮ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা আগের সপ্তাহ থেকে ৯ কোটি ৬৮ লাখ ৯৬ হাজার টাকা বা ৮ শতাংশ কম। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ১১৪ কোটি ৮৭ লাখ ৭৪ হাজার টাকার। তবে গত সপ্তাহে ডিএসইতে গড় লেনদেন ৩ কোটি ৩২ লাখ ১৫ হাজার ৫০০ টাকা বেড়েছে। বিদায়ী সপ্তাহের ৪ কার্যদিবসে ব্লুক মার্কেটে গড়ে প্রতি কার্যদিবসে লেনদেন হয়েছে ২৬ কোটি ২৯ লাখ ৬৯ হাজার ৫০০ টাকা। আর আগের সপ্তাহে ৫ কার্যদিবসে গড় লেনদেন হয়েছিল ২২ কোটি ৯৭ লাখ ৫৪ হাজার ৮০০ টাকা করে। ব্লুক মার্কেটে সবচেয়ে বেশি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে ডরিন পাওয়ারের। কোম্পানিটির ৩৮ কোটি ৭৩ লাখ ৫৮ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৪ কোটি ২৫ লাখ ৬০ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে ইউনাইটেড পাওয়ারের এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ ১১ কোটি ৩৭ লাখ ৭৩ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে ব্র্যাক ব্যাংকের।

এ ছাড়া আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজের ১৭ লাখ ৯৪ হাজার টাকার, ব্যাংক এশিয়ার ২৪ লাখ ৮৬ হাজার টাকার, বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবলের ৪৫ লাখ টাকার, এমএল ডাইংয়ের ২ কোটি ৬০ লাখ ১৫ হাজার টাকার, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের ৪ কোটি ৭৬ লাখ টাকার, ভিএফএস থ্রেড ডাইংয়ের ২ কোটি ৪৩ লাখ ৯০ হাজার টাকার, অগ্রণী ইন্স্যুরেন্সের ৯ লাখ ৬৬ হাজার টাকার, আলহাজ টেক্সটাইলের ১০ লাখ ৮ হাজার টাকার, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকোর ১৮ লাখ ২৫ হাজার টাকার।

অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj