সংবাদ সম্মেলনে সেতুমন্ত্রী : সড়ক দুর্ঘটনা আমাদের সবচেয়ে বড় দুর্ভাবনা

বুধবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : মহাসড়কে একের পর এক দুর্ঘটনাকে সবচেয়ে বড় ‘দুর্ভাবনার বিষয়’ হিসেবে দেখছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, আমি নিজেই বলেছি সড়কে শৃঙ্খলা আসেনি। অবকাঠামোগত প্রকল্পে যত অগ্রগতি, সে তুলনায় সড়ক ও পরিবহনে শৃঙ্খলাটা অতটা হয়নি। যার ফলে দুর্ঘটনা বা যানজট রয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে সচিবালয়ে নিজ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন মন্ত্রী। সংবাদ সম্মেলনে দাপ্তরিক বিভিন্ন বিষয় ছাড়াও রাজনৈতিক বিষয় নিয়েও সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

সড়কের শৃঙ্খলা ফেরাতে নতুন করে সরকার কী ভাবছে- এমন প্রশ্নের জবাবে সেতুমন্ত্রী বলেন, শিগগিরই সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের সভা ডাকা হবে। নতুনভাবে কর্মসূচি নেয়ার চিন্তা-ভাবনা আমরা করছি।

নিরাপত্তা কাউন্সিলের সভায় সড়ক বিশেষজ্ঞদের নিয়ে কমিটি করে দেব। তাদের কাছ থেকে অল্প দিনের ব্যবধানে প্রতিবেদন চাওয়া হবে। পরে যদি টাস্কফোর্স করতে হয় সেটাও করা হবে।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, সড়ক দুর্ঘটনার লাগাম টেনে ধরতে হবে, রাশ টেনে ধরতে হবে। জাতীয় স্বার্থে এবং জাতির দুর্ভাবনা অবসানের স্বার্থে। কারণ সড়ক দুর্ঘটনা এখন আমাদের সবচেয়ে বড় দুর্ভাবনা। এটা অস্বীকার করে লাভ নেই।

ছোট ছোট যানবাহনের কারণে সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না উল্লেখ করে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী বলেন, বড় গাড়ির সঙ্গে সিএনজি বা ইজিবাইকের যদি সংঘাত হয়, আর ইজিবাইকে যদি ১০ জন থাকে, ১০ জনই মারা যায়। বড় বড় গাড়িতে সংঘাত হলে আহত হয়, এ রকম নিহত হয় না। ছোট ছোট যান নিয়ন্ত্রণ করা আমাদের প্রথম দায়িত্ব। তবে একথা ঠিক ইজিবাইক-নসিমন-করিমনের সঙ্গে অনেকেই জড়িত। এখানে রাজনৈতিক বিষয়ও আছে। তবে মানুষের জীবন বাঁচাতে হবে আগে।

উন্নয়ন কাজের জন্য বিভিন্ন সড়ক ও মহাসড়কে যানজট সৃষ্টির কথা স্বীকার করে মন্ত্রী আরো বলেন, অনেক সড়কে উন্নয়ন কাজ চলমান আছে। এ জন্য যানজট সৃষ্টি হচ্ছে, জনভোগান্তি হচ্ছে। তবে কাজগুলো শেষ হলে একটা সময় যানজট পরিস্থিতির উন্নতি হবে।

দ্বিতীয় সংস্করন'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj