ফের ব্যর্থ শারাপোভা

মঙ্গলবার, ২২ জানুয়ারি ২০১৯

অস্ট্রেলিয়ান ওপেন মানেই যেন শারাপোভার কাছে বাড়তি চ্যালেঞ্জ। দুই বছর আগে বছরের প্রথম গ্র্যান্ড ¯øাম হিসেবে খ্যাত এই টুর্নামেন্টে অংশ নিতে গিয়ে ডোপ টেস্টে পজিটিভ হওয়ার কারণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল রুশ টেনিসের ওপর। এমনকি নিষেধাজ্ঞার কারণে ২০১৭ সালের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে শারাপোভা খেলতেও পারেননি। তবে পরের বছর অর্থাৎ ২০১৮ সালের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে অংশ নেন শারাপোভা। ওই সময় অস্ট্রেলিয়ান ওপেনকে বাড়তি চ্যালেঞ্জ হিসেবে নেয়ার কথা জানিয়েছিলেন বর্তমানে ৩১ বছর বয়সী এই টেনিসার। ২০১৮ সালের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শুরুটা দুর্দান্ত হয়েছিল এক সময়ের নম্বর ওয়ান শারাপোভার। দাপুটে জয়ে তৃতীয় রাউন্ডের বাধা পেরিয়ে পৌঁছে গিয়েছিলেন চুতর্থ রাউন্ডে। ইঙ্গিত দিয়েছিলেন স্বপ্নের মতো প্রত্যাবর্তনের। তবে চতুর্থ রাউন্ডে এসে ভেঙে যায় জনপ্রিয় এই টেনিসারের স্বপ্ন। শেষ ষোলোতেই বাদ পড়েন তিনি। মারিয়া শারাপোভা একই অবস্থার সম্মুখীন হয়েছেন এবারের (২০১৯ সাল) অস্ট্রেলিয়ান ওপেনেও। এবারো টুর্নামেন্টটির চতুর্থ রাউন্ড থেকে বাদ পড়েছেন তিনি। শুরুতেই বলা হয়েছে ডোপ কেলেঙ্কারির ঘটনার পর থেকে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনকে বাড়তি চ্যালেঞ্জ হিসেবে নেন মারিয়া শারাপোভা। ব্যতিক্রম ছিল না এবারো। শিরোপা জয়ের লক্ষ্য নিয়েই এবার বছরের প্রথম গ্র্যান্ড ¯øাম হিসেবে স্বীকৃত টুর্নামেন্টটিতে অংশ নিতে আসেন রুশ টেনিসার। শুরুটাও করেন দুর্দান্তভাবে। ব্রিটিশ টেনিস কন্যা হারিয়েট ডার্টকে ৬-০, ৬-০ গেমে হারিয়ে ২০১৯ সালের অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে শারাপোভার পথচলা শুরু হয়। দ্বিতীয় রাউন্ডে তিনি মুখোমুখি হন সুইডিশ টেনিসার রেবেক্কা পিটারসনের। এবারো দুর্দান্ত জয় পান শারাপোভা। তৃতীয় রাউন্ডে রুশ টেনিস কন্যার সামনে আসে কঠিন প্রতিপক্ষ। তিনি হলেন গত আসরের চ্যাম্পিয়ন ক্যারোলিন উজনিয়াকি। অভিজ্ঞতায় এগিয়ে থাকলেও সাম্প্রতিক পারফরমেন্সে ডেনমার্কের টেনিসারের চেয়ে অনেক পিছিয়ে ছিলেন শারাপোভা। কেননা র‌্যাঙ্কিংয়ে এখন উজনিয়াকির অবস্থান যেখানে তৃতীয়স্থানে সেখানে ৩০ নম্বরে আছেন রুশ সুন্দরী। তৃতীয় রাউন্ডে তুমুল প্রতি›দ্ব›িদ্বতা হয় শারাপোভা ও উজনিয়াকির মধ্যে এবং শেষ পর্যন্ত হেরে যান গত আসরের চ্যাম্পিয়ন। আর শারাপোভা নিশ্চিত করেন শেষ ষোলোতে অংশগ্রহণ। তবে চতুর্থ রাউন্ডে ব্যর্থ হন শারাপোভা। গত রবিবার মেলবোর্নের রোড লভ্যার অ্যারেনায় চতুর্থ রাউন্ডের ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ান টেনিসার অ্যাশলে বার্টির মুখোমুখি হন তিনি। নারী এককের চতুর্থ রাউন্ডের ওই ম্যাচে বার্টির বিপক্ষে ৬-৪, ৬-১, ৬-১ গেমে হেরে যান রুশ এই টেনিসার। ফলে টানা দ্বিতীয়বারের মতো অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের চতুর্থ রাউন্ড থেকে বিদায় নিশ্চিত হয় তার।

তবে ডোপ কেলেঙ্কারির ঘটনার পর অস্ট্রেলিয়ান ওপেনকে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিলেও শারাপোভা যে ক্যারিয়ারে কখনো টুর্নামেন্টটির শিরোপা জেতেননি এমনটি নয়। ২০০৮ সালে প্রথম ও শেষবারের মতো অস্ট্রেলিয়ান নারী এককের শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট জয় করেছিলেন তিনি। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ৫টি গ্র্যান্ড ¯øাম জিতেছেন তিনি। ২০০৪ সালের উইম্বলডনে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মধ্য দিয়ে প্রথমবারের মতো গ্র্যান্ড ¯øাম জয়ের স্বাদ পান তিনি। দুই বছর পর ২০০৬ সালে জেতেন ইউএস ওপেনের শিরোপা। এ ছাড়া ফ্রেঞ্চ ওপেনের শিরোপা জেতেন ২০১২ ও ২০১৪ সালে। ১৯৮৭ সালের ১৯ এপ্রিল রাশিয়ার ন্যাগেন নামক এলাকায় মোট ৫ বারের গ্র্যান্ড ¯øাম জয়ী এই টেনিসারের জন্ম হয়। পেশাদারি টেনিসে তার পথচলা শুরু ২০০১ সালে।

– আবু সাঈদ

এক নজরে

পুরো নাম

মারিয়া ইউরেনা

শারাপোভা

জন্ম তারিখ

১৯৮৭ সালের

১৯ এপ্রিল

জন্মস্থান

ন্যাগেন, রাশিয়া

প্রেমিক

অ্যালেকজান্ডার

গিলকস

ক্যারিয়ার সেরা

র‌্যাঙ্কিং

১ নম্বর

বর্তমান র‌্যাঙ্কিং

৩০ নম্বর

গ্র্যান্ড ¯øাম জয়

৫ বার

উচ্চতা

৬ ফুট

২ ইঞ্চি

গ্যালারি'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj