যুবাদের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই

মঙ্গলবার, ২২ জানুয়ারি ২০১৯

ইংল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিপক্ষে আসন্ন হোম সিরিজের জন্য ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। টাইগার যুব দলের নিয়মিত অধিনায়ক তৌহিদ হৃদয়কে বিপিএলের কারণে পাচ্ছে না অনূর্ধ্ব-১৯ দল। এ ছাড়া দলের অন্যতম পেসার শরিফুল ইসলামও খুলনা টাইটান্সের হয়ে খেলছেন বলে ইংল্যান্ড যুব দলের বিপক্ষে তাকেও পাবে না বাংলাদেশ। হৃদয়ের পরিবর্তে আসন্ন সিরিজটির জন্য অধিনায়কত্বের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান আকবর আলির কাঁধে। তার সহযোগী হিসেবে নাম ঘোষণা করা হয়েছে শামীম হোসেনের। যুব দলে জায়গা পেয়েছেন তরুণ লেগ স্পিনার রিশাদ হোসেন। বিপিএলে সিলেট সিক্সার্স দলে খেলছেন হৃদয়। প্রথম ম্যাচে ভালো না করার পর এই ব্যাটসম্যান আর সুযোগ পাননি ম্যাচ খেলার। তবুও তাকে ছাড়তে নারাজ ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। শরিফুল খেলছেন খুলনা টাইটান্সে। ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে ‘এ’ দল, গত কয়েক মাসে সব জায়গায় বেশ ভালো পারফর্ম করলেও বিপিএলে এখন পর্যন্ত নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি ১৭ বছর বয়সী বাঁহাতি এই পেসার। ৫ ম্যাচে উইকেট নিয়েছেন মাত্র দুটি।

পূর্ণাঙ্গ যুব সিরিজ খেলতে রবিবার (২০ জানুয়ারি) বাংলাদেশে পা রাখার পর ২৫ জানুয়ারি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে সফরকারীরা। ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের একাডেমি মাঠে। এর একদিন পর থেকে শুরু হবে দুদলের মধ্যকার সিরিজের মূল লড়াই। টি-টোয়েন্টি ম্যাচ দিয়ে পর্দা উঠবে সিরিজটির। ২৭ জানুয়ারি একমাত্র টি-টোয়েন্টি ম্যাচে মুখোমুখি হবে উভয় দল। কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের মূল মাঠে টি-টোয়েন্টি ম্যাচের পর অনুষ্ঠিত হবে ওয়ানডে সিরিজের সবগুলো ম্যাচ। তিন ম্যাচের যুব ওয়ানডের লড়াইয়ে ২৯, ৩১ জানুয়ারির পর দুদলের মধ্যকার সিরিজের শেষ ম্যাচটি ২ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে। ৫০ ওভারের লড়াই শেষে ৪ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রামে পাড়ি জমাবে উভয় দল। সেখানে পৌঁছানোর পর দুদিন বিরতি দিয়ে শুরু হবে উভয় দলের মধ্যকার সাদা পোশাকের লড়াই। দুদলের মধ্যকার প্রথম চারদিনের ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে ৭ থেকে ১০ ফেব্রুয়ারি। এরপর নিজেদের সিরিজ নির্ধারণী শেষ চারদিনের ম্যাচের জন্য প্রস্তুত হতে ঠিক চারদিনের বিরতি পাবে দল দুটি। চারদিনের বিরতি শেষে দ্বিতীয় ও সিরিজ নির্ধারণী চারদিনের ম্যাচটি ১৫ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার থেকে শুরু হবে বন্দর নগরী চট্টগ্রামে। যা চলবে ১৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। সাদা পোশাকের ম্যাচ দুটো অনুষ্ঠিত হবে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে। স্বাগতিকদের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ শেষে ১৯ ফেব্রুয়ারি নিজ দেশের উদ্দেশে বাংলাদেশ ত্যাগ করবে সফরকারীরা।

-আ ত ম মাসুদুল বারী

গ্যালারি'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj