ওবায়দুল কাদের : আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন অক্টোবরে

রবিবার, ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : আগামী অক্টোবরে আওয়ামী লীগের সম্মেলন হবে বলে জানিয়েছেনে দলটির সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। গতকাল শনিবার রাজধানীর মানিক মিয়া এভিনিউতে বিআরটিএর ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন কলঙ্কিত নির্বাচন, সেখানে ব্যাপক কারচুপি হয়েছে- বিএনপির এমন বক্তব্যের পাল্টা জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, নির্বাচন নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই। এবারই প্রথম সরকার গঠনের আগে উন্নত গণতান্ত্রিক দেশগুলো এ নির্বাচনের জন্য অভিনন্দন জানিয়েছে। কাজেই এ ধরনের দাবি অবান্তর, কোনো যৌক্তিকতা নেই। বিরোধীদল তাদের ভাষায় কথা বলবে সেটা ভিন্ন কথা। এ নির্বাচন নিয়ে দেশে-বিদেশে কোনো বিতর্ক নেই। প্রশ্ন করার মতো কোনো বিষয় এখনো আন্তর্জাতিক বিশ্ব থেকে আমরা পাইনি।

নির্বাচনে হেরে যাওয়ার বেদনা থেকে এসব অভিযোগ করা হচ্ছে বলে মন্তব্য করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, বিএনপির অভিযোগ ধোপে টিকবে না। নেতাকর্মীদের চাঙা রাখতেই বিএনপি নেতারা মিথ্যা তথ্য দিচ্ছেন। নির্বাচন নিয়ে সংলাপের দাবি হাস্যকর, মামাবাড়ির আবদার।

সড়ক দুর্ঘটনা রোধে পথচারীদের সচেতনতার কথা উল্লেখ করে সেতুমন্ত্রী বলেন, যাত্রীরাও মাঝে মাঝে বেপরোয়া চালকের মতো বেপরোয়া হয়ে যায়। সড়ক দুর্ঘটনা শুধু চালকের জন্যই হচ্ছে, তা নয়। যাত্রীদের ভুলের জন্যও দুর্ঘটনা হয়। কেউ আইন মানে না। রাস্তা পারাপারের নিয়ম কেউ মানতে চায় না। এ বিষয়ে সাংবাদিকদেরও সচেতন হতে হবে, ক্যাম্পেইন করতে হবে, যাতে সচেতনতা বৃদ্ধি পায়। ভ্রাম্যমাণ আদালত বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ভ্রাম্যমাণ আদালতের চলমান কার্যক্রম আরো জোরদার করা হবে। এখন থেকে নিয়মিত অভিযান চালানো হবে।

প্রসঙ্গত, বেলা পৌনে বারোটা পর্যন্ত দুটি আদালত মানিক মিয়া এভিনিউয়ে ৫২টি যানবাহনের বিরুদ্ধে মামলা করে। এ ছাড়া এক লাখ ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা, তিনজনকে ১ মাস করে কারাদণ্ড, ১৭টি যানবাহন জব্দ করে।

প্রথম পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj