স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলায় সেরা যত ফোন

রবিবার, ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

টেক শহর স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলায় অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলো সর্বশেষ মডেলের হ্যান্ডসেট নিয়ে হাজির হয়। ব্র্যান্ডগুলো আনা সর্বশেষ মডেলের স্মার্টফোন থেকে সেরা ফোনের খবর নিয়ে এই আয়োজন।

আইফোন ১০ এক্স ম্যাক্স

আহামরি কোন নতুনত্ব না থাকলেও গত বছর সাড়া ফেলেছিল আইফোন ১০ এক্স ম্যাক্স। এর ডিজাইনে কিছুটা পরিবর্তন এনে ডিসপ্লে সাইজ যথাক্রমে ৫ দশমিক ৮ ও ৬ দশমিক ৫ ইঞ্চি করা হয়। ৪৫৮ পিপিআই ও এলইডি এইচডিআর ডিসপ্লে রয়েছে এতে। রয়েছে এ১২ বায়োনিক চিপসেটের ৭ ন্যানোমিটারের প্রসেসর। আগের এ১১ চিপ থেকে যা ৩০ শতাংশ উন্নত। এই প্রসেসর অ্যাপলেরই তৈরি। ডুয়েল ১২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার একটি ওয়াইড লেন্স আরেকটি টেলিফটো লেন্স। সেলফি ও ভিডিও চ্যাটের জন্য সামনে ৭ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা রয়েছে। অ্যাপলের দাবি, ফ্রন্ট ক্যামেরা দিয়ে পূর্বের আইফোন ১০ এর চেয়ে থেকে আরো ভালো মানের প্রোট্রেইট ছবি তোলা যায়। ডিভাইসটি ২ মিটার পানির নিচে ৩০ মিনিট ব্যবহার করা সম্ভব। এবারই প্রথম ডুয়েল সিম সুবিধা দিয়েছে অ্যাপল। ৬৪, ১২৮ ও ৫১২ ইন্টারনাল মেমোরির সংস্করণে পাওয়া যাচ্ছে ফোনটি।

টেকনো পপ ২ প্রো

একেবারে এন্ট্রি লেবেলের পপ সিরিজের তিনটি স্মার্টফোন। সিরিজটি স¤প্রতি বাজারে ছেড়েছে ট্রান্সশান হোল্ডিংসের এই প্রতিষ্ঠান। পপ ২ প্রো, পপ ২ এবং পপ ২ পাওয়ার। স্মার্টফোনগুলোর ডিজাইনের সাদৃশ্য থাকলেও শুধু এর ফিচারে কিছু পরিবর্তন রয়েছে। পপ ২ প্রো ফোনে রয়েছে ৫.৫ ইঞ্চির ফুলভিউ ডিসপ্লে। যার রেজ্যুলেশন ৯৬০*৪৮০ পিক্সেল। সামনে ৮ মেগাপিক্সেল এবং পিছনে ৮ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা। ফেস আনলক, ফিঙ্গারপ্রিন্ট লকের ফোনটিতে রয়েছে এক জিবি র‌্যাম এবং ১৬ জিবি স্টোরেজ সুবিধা। যা মাইক্রো এসডির সঙ্গে বাড়ানো যাবে। অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওপারেটিং সিস্টেমচালিত ফোনটিতে ব্যাকআপ সুবিধা দিতে রয়েছে ৩ হাজার ৫০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। ফোনটির দাম ৬ হাজার ৯৯০ টাকা।

হুয়াওয়ে ওয়াই নাইন ২০১৯

স্মার্টফোনের বাজারে ২০১৮ সালে তাক লাগিয়ে দেয়া উন্নতি করেছে চীনা ব্র্যান্ড হুয়াওয়ে। গত বছরের একেবারে শেষে দেশের বাজারে হুয়াওয়ে এনেছে ওয়াই নাইনের ২০১৯ সংস্করণ। মধ্যম সারির ফোনটি ইতিমধ্যে বিক্রি শুরু করেছে প্রতিষ্ঠানটি। বছরের শুরুতে ডিজাইনে নতুনত্ব থাকায় ফোনটি সবার নজর কাড়বে। ফোনটিতে রয়েছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসহ হুয়াওয়ের নিজস্ব কিরিন ৭১০ অক্টাকোর চিপসেট। এতে রয়েছে নচ যুক্ত ৬ দশমিক ৫ ইঞ্চি ফুলভিউ ডিসপ্লে, যার রেজ্যুলেশন ১০৮০*২৩৪০ মেগাপিক্সেল। ব্যাকআপের জন্য আছে ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। ফোনটির র‌্যাম ৪ জিবি ও রম ৬৪ জিবি। ডুয়েল সিমের ফোনটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে আছে অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.১। ফোনটির পেছনে রয়েছে ১৩ ও ২ মেগা পিক্সেলের ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা। সামনে রয়েছে ১৬ ও ২ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা। দেশে ফোনটির দাম ২২ হাজার ৯৯০ টাকা।

স্যামসাং এ৭

স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি সিরিজের যে কয়েকটি জনপ্রিয় ফোন রয়েছে তাদের মধ্যে অন্যতম স¤প্রতি বাজারে আসা এই গ্যালাক্সি এ৭। গত বছরের অক্টোবরে বাজার ছাড়ার পর ডিভাইসটির চাহিদাও অনেকটা তুঙ্গে। ফোনটির ডিজাইনে কিছু হলেও ক্রেতাদের নজর লাগবে। ফোনটিতে রয়েছে ৬ ইঞ্চির ফুলএইচডি+ সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে। যার রেজ্যুলেশন ১০৮০*২২২০ পিক্সেল। ১৬৮ গ্রাম ওজনের ফোনটিতে ডুয়েল ও সিঙ্গেল সিম দুটি ব্যবহারেরই সুবিধা পাওয়া যাবে। ডিভাইসটির অক্টাকোর প্রসেসরের সঙ্গে রয়েছে ৪ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি ইন্টারনাল মেমোরি। চাইলে মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে ৫১২ জিবি পর্যন্ত বৃদ্ধি করা যাবে এর মেমোরি। ফোনটির পিছনে রয়েছে তিনটি রিয়ার ক্যামেরা। যার একটি ২৪ মেগাপিক্সেল, অন্যটি ৮ এবং আরেকটি ৫ মেগাপিক্সেলের। ৩৩৮০ এমএএইচ ব্যাটারির ফোনটির দাম ২৮ হাজার ৯৯০ টাকা।

ভিভো ওয়াই৯৫

‘ভিভো ওয়াই৯৫’ মডেলের ফোনটির নতুন একটি সংস্করণ এনেছে ভিভো। এর অরোরা রেড সংস্করণটি দেখতে অন্যগুলোর চেয়ে আরো বেশি আকর্ষণীয়। ফোনটি দেশের বাজারে এসেছে মাত্র কয়েকদিন আগে। ৬ দশমিক ২২ ইঞ্চি ডিসপ্লের ফোরটির রেজ্যুলেশন ৭২০*১৫২০ পিক্সেল। অ্যান্ড্রয়েড ৮.১ ওরিও চালিত ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ১২ ন্যানোমিটারের স্ন্যাপড্রাগন ৪৩৯ চিপসেট। চার জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি রমের হ্যান্ডসেটের মেমোরি কার্ডের সাহায্যে বাড়ানো যাবে ২৫৬ জিবি পর্যন্ত। এলইডি ফ্ল্যাশসহ পিছনে ১৩ ও ২ মেগাপিক্সেলের ডুয়েল ক্যামেরা এবং সামনে ২০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা রয়েছে। ডুয়েল সিমের ডিভাইসটি অনেকটা ফ্ল্যাগশিপের ধাঁচের। যাতে দীর্ঘ ব্যাকআপ দিতে রয়েছে ৪০৩০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। অরোরা রেড ছাড়াও ফোনটি স্টারি নাইট ও নেবুলা পার্পেল কালারে। ফোনটির দাম ২২ হাজার ৯৯০ টাকা।

নকিয়া ৮.১

বিশ্ববাজারে ফোনটি গত মাসের শেষ আসলেও বাংলাদেশে তা মেলার মাধ্যমে উন্মোচন করে। একই সঙ্গে ফোনটির প্রিবুক নেয় প্রতিষ্ঠানটি। নকিয়া ৮.১ ফোনটি মিডরেঞ্জ গ্রাহকদের লক্ষ্য করে আনছে এইচএমডি গ্লোবাল। নচসহ ৬.১ ইঞ্চি ডিসপ্লের ডিভাইসটির রেজ্যুলেশন ১০৮০*২২৮০ পিক্সেল। প্রসেসর হিসেবে রয়েছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৭১০। অপারেটিং সিস্টেম থাকছে স্টক অ্যান্ড্রয়েড পাই। ৪ ও ৬ গিগাবাইট র‌্যামের সংস্করণে ডিভাইসটি পাওযা যাবে। স্টোরেজের উপর নির্ভর করে থাকছে ৬৪ ও ১২৮ গিগা বাইটের সংস্করণ। চাইলে ব্যবহারকারীরা ৪০০ গিগাবাইট পর্যন্ত মাইক্রোএসডি কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন। তবে এখন ৪/৬৪ জিবি সংস্করণে পাওয়া যাচ্ছে। ছবি তোলার জন্য পেছনে রয়েছে ১.৮ অ্যাপাচারের ১২ ও ১৩ মেগাপিক্সেলের দুটি ক্যামেরা সেটআপ। দুই ক্যামেরা দিয়ে ফোরকে ভিডিও রেকর্ড করা যাবে। সেলফি ও ভিডিও চ্যাটের জন্য সামনে রয়েছে ২০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। এ ছাড়া রয়েছে ওয়াইফাই, ব্লুটুথ, এনএফসি সুবিধা।

মটোরোলা ওয়ান

দেশের বাজারে গত সপ্তাহে উন্মোচন হয়েছে মটোরোলা ওয়ান ফোনটি। ৫ দশমিক ৯ ইঞ্চি ডিসপ্লের ডিভাইসটির রেজ্যুলেশন ১৫৭০*৭২০ পিক্সেল। ফোনটিতে প্রসেসর রয়েছে কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৬২৫ চিপসেট।

পিছনে ১৩ ও ২ মেগাপিক্সেলের ডুয়েল রিয়ার ক্যামেরা ও সামনে ৮ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা রয়েছে। ৪ জিবি র‌্যামের ফোনটির ইন্টারনাল মেমোরি ৬৪ জিবি। চাইলে এটি মাইক্রোএসডি কার্ডের সাহায্যে ২৫৬ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। ফোনটির দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ২৩ হাজার ৯৯০ টাকা।

:: ডটনেট প্রতিবেদক

ডট নেট'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj