নতুন যোগ এথনিক স্যুট!

রবিবার, ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

ফ্যাশন এখন মুঠোফোনের পর্দায়। অন্তর্জালে ছড়িয়ে আছে ট্রেন্ড নিয়ে উপমহাদেশীয় হাল হকিকতও! একটু বেশি শীতে প্যাটার্ন ভিন্নতার পলি ভিসকস কাপড়ে গর্জাস পাঞ্জাবি-পায়জামার সঙ্গে মেন্ডারিন ভেস্ট অর্থাৎ কোটি। তবে খেয়াল রাখতে হবে, কোটির রং যেন পাঞ্জাবির সঙ্গে সম্পূর্ণ মিলে না যায়। আলাদা প্রিন্টের শেড বা পছন্দমতো কন্ট্রাস্ট রংও পরতে পারেন। উপস্থিতি হওয়া চাই স্মার্ট, ট্রেন্ডি, নজরকাড়া। মোটকথা পোশাকে এই আভিজাত্যের পূর্ণতা চাই। সময়োপযোগী ডিজাইনে এবং ব্যক্তিত্বে মানানসই ভাবে। এ ধরনের ট্র্যাডিশন আর ট্রেন্ডের মিলবন্ধনে নতুন যোগ এথনিক স্যুট!

লিখেছেন আশরাফুল ইসলাম রানা

অভিজাত ম্যান্ডারিন ভেস্ট

ইতিহাস বলছে, এক সময় জনপ্রিয় হয়ে ওঠে ‘জওহর কোট’। ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহর লাল নেহরুর পরিধেয় বিশেষ ধরনের কোটটি একসময় চর্চার বিষয় ছিল। এখনো অনেক রাজনীতিবিদের গায়ে শোভা পায় সেই জওহর কোট। সেই পথেই ‘ মোদি কোট’। শুধু রাজনীতিকরাই নন, আমজনতারও পছন্দের হয়ে ওঠে মোদির স্টাইল। পরবর্তীতে মোদি কুর্তা ছাড়া লম্বা ঝুলের পাঞ্জাবির সঙ্গে মোদি কোটের ট্রেন্ড বেশ সাড়া ফেলে দেয় বাংলাদেশে। তবে এথনিক ফ্যাশনে লেয়ারিং পোশাক হিসাবে এটি বেশ জনপ্রিয় ফ্যাশন অনুসঙ্গ। সান্ধ্যকালীন শীত ফ্যাশনে তাই অনেকেই পাঞ্জাবির ওপর কটি চাপিয়ে লুকে ভিন্নতা আনতে পারে সহজেই। ফ্যাশন ব্র্যান্ড সেইলর এই পোশকটিকে দিয়েছে ফিউশন। ফ্যাশন সচেতনদের জন্য প্যাটার্ন ভিন্নতায় এনেছে কটি সমেত পাঞ্জাবি-পায়জামা। এটিই মুলত তাদের এথনিক স্যুট প্যাকেজ!

সময়ের কারণেই বদলেছে রুচি। একটা সময় শীতকালীন উৎসবগুলোয় একটু ট্র্যাডিশনাল সাজে দেখতে চাইতো নিজেকে সবাই। কিন্তু ট্র্যাডিশন আর ট্রেন্ডের যদি মিল ঘটানো যায় কেমন হয়?

বলা যায় এখন পুরুষের উৎসবকালীন ফ্যাশন শুধুই ট্র্যাডিশনাল ক্লাসিক লুকে দেখতে অভ্যস্ত নয়। তাই ফেব্রিক বৈচিত্র্য থেকে প্যাটার্ন বা ডিজাইন এখন সবকিছুতে কনটেম্পরারি টুইস্ট দিতে যেন উৎসাহী ফ্যাশন ট্রেন্ডের প্রতিনিধিরা। শীতের সন্ধ্যায় তাই তো একসময়ের ঢিলেঢালা ও আরামদায়ক নানা পোশাকই আধুনিক জীবনে নতুন ও বিচিত্র রূপে হাজির হয়েছে। যা কিনা সাধারণ উপস্থাপনায় আভিজাত্যপূর্ণ ও আরামদায়ক বটে। অভিজাত পরিবেশে পুরুষের ফ্যাশনে সেই বাঁকবদলে সঙ্গী লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড সেইলর। তাদের নতুন ট্রেন্ডে ফোকাস ইন এথনিক স্যুট!

গতানুগতিক প্যাটার্ন থেকে বেরিয়ে পাঞ্জাবি, মেন্ডারিন ভেস্ট বা কোটি এবং পায়জামার প্রিমিয়াম ডিজাইনার কালেকশন বলা যায় একে।

রেজাউল কবির : প্রধান নির্বাহী, সেইলর

আন্তর্জাতিক ফ্যাশন ধারার সঙ্গে মিল রেখে জমকালো ও সাধারণ এই দুই মিলিয়ে অভিজাত এথনিক ডিজাইন বাছাই করা খানিকটা কঠিন। সান্ধ্যকালীন উৎসব বা বিয়ে সঙ্গে শীত মাথায় রেখেই পোশাকের ডিজাইন করেছেন সেইলরের ফ্যাশন ডিজাইনাররা। বেছে নিয়েছেন জমকালো তবে স্বস্তিদায়ক পলি ভিসকস কাপড়। অসমান কাটের পাঞ্জাবির কোটিতে থাকছে একই রং বা ত্রিমাত্রিক ও জিগজ্যাগ প্রিন্টের ক্যানভাস। কাটিং ডিজাইন করা হয় দুই অংশে। বডি ও বটম। অ্যাসমেট্রিক ত্রিকোণ কাট ব্যবহার হয়েছে পাঞ্জাবির নিচের অংশে। বডি ফিটিংস থাকছে এ লাইন কাটে তবে পায়জামার প্যাটার্ন সমকালীন। নিজেকে গর্জাস লুকে প্রকাশ করতে এ ধরনের এথনিক স্যুটের জন্য খরচ করতে হবে ১০ থেকে ১২ হাজার টাকা। মূলত পুরনো ফ্যাশনকে ঘিরেই এ ধরনের পার্টি পোশাকের ট্রেন্ড আগের মতোই, তবে বৈচিত্র্য এসেছে প্যাটার্নে। আর আউটলুক বেশ গর্জাস ও সিম্পলিসিটি তো আছেই।

ফ্যাশন (ট্যাবলয়েড)'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj