জেমি ডের অপেক্ষায় বাফুফে

রবিবার, ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

খেলা প্রতিবেদক : আপাতত বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের কোনো খেলা নেই। জেমি ডেসহ কোচিং স্টাফের সবাই ছুটিতে। কথা ছিল ছুটি শেষে ৯ জানুয়ারি ঢাকায় ফিরবেন বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের ইংলিশ কোচ জেমি ডে। কিন্তু কোনো কাজ না থাকায় ফেরেননি তিনি। কয়েক দিন ছুটি বাড়িয়ে নিয়েছেন। ঢাকায় আসবেন আগামী ১৭ জানুয়ারি- এমন তথ্য বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সাধারণ সম্পাদক মো. আবু নাঈম সোহাগের। বাফুফের ঘোষিত সূচি অনুযায়ী ১৮ জানুয়ারি বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) ফুটবল টুর্নামেন্ট শুরু হওয়ার কথা।

লিগ শুরু হওয়ার আগেই দেশে আসবেন এই ব্রিটিশ কোচ। যদিও লিগ পেছানোর সম্ভাবনা স্পষ্ট। ঘোষিত সূচিতে আপত্তি জানিয়ে লিগ পেছানোর দাবি করেছে কয়েকটি ক্লাব। লিগ শুরু হলে খেলা দেখে এএফসি অনূর্ধ্ব-২৩ চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য খেলোয়াড় বাছাই করবেন কোচ জেমি ডে। নতুন বছরে এটাই হবে জেমি ডের প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট। এ টুর্নামেন্ট টোকিও অলিম্পিক ফুটবলেরও বাছাই পর্ব। যেখানে বাংলাদেশ খেলবে ‘বি’ গ্রুপে। বাছাই পর্বে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ বাহরাইন, ফিলিস্তিন ও শ্রীলঙ্কা। ২২ থেকে ২৬ মার্চ বাহরাইনে হবে এ বাছাই পর্ব। বাংলাদেশের প্রথম খেলা স্বাগতিকদের বিপক্ষে ২২ মার্চ। দ্বিতীয় ম্যাচ ২৪ মার্চ ফিলিস্তিনের বিপক্ষে। আর লঙ্কানদের বিপক্ষে খেলা ২৬ মার্চ।

ফেডারেশন কাপের কোয়ার্টার আর সেমিফাইনালের মাঝের বিরতিতে ফুটবলারদের নিয়ে ৫ দিনের ক্যাম্প করেছিলেন জেমি ডে। শুরু করেছিলেন এএফসি অনূর্ধ্ব-২৩ চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাই পর্বের প্রস্তুতি। ৫ দিনের ক্যাম্প শেষে ফেডারেশন কাপের খেলা দেখেন জাতীয় দলের এই কোচ। ফেডারেশন কাপ শেষেই ছুটিতে যান তিনি।

এদিকে জেমি ডের সহকারী জাতীয় দলের ফিটনেস কোচ ইংলিশ ট্রেনার লিন্ডসে ডেভিস চাকরি ছেড়ে দিয়েছেন। বাংলাদেশ জাতীয় দলের দায়িত্ব ছেড়ে তিনি ৫ জানুয়ারি যোগ দিয়েছেন সিঙ্গাপুর প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব ডুলি পেনগিরান মুদা মাহকোতাতে। বাংলাদেশের দায়িত্ব গ্রহণের পরপরই লিন্ডসেকে নিজেই পছন্দ করে বাংলাদেশে এনেছিলেন জেমি।

কোচিং স্টাফের মধ্যে লিন্ডসেকে বলা হতো জেমির ‘ডান হাত’। ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তাতে অনুষ্ঠিত এশিয়ান গেমসে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ ফুটবল দলের দুর্দান্ত পারফরমেন্সে বড় অবদান ছিল লিন্ডসের। তিনি এশিয়ার বড় দলগুলোর বিপক্ষে সমান তালে খেলার মতো শারীরিক সামর্থ্য তৈরি করে দিয়েছিলেন খেলোয়াড়দের। এশিয়ান গেমসে কাতারকে বাংলাদেশ হারিয়েছিল। থাইল্যান্ডের বিপক্ষে ড্র করেছিল ১-১ গোলে। প্রথমবারের মতো এশিয়াড ফুটবলের দ্বিতীয় রাউন্ডে নাম লেখানোটা ছিল বড় সাফল্যই। তার জায়গায় নতুন একজন বিদেশি খুঁজছে বাফুফে। সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমরা জেমি ডেকে বলেছি নতুন ট্রেনার দেখতে। আশা করি সহসাই পেয়ে যাব।

কোনো সন্দেহ নেই সহকারী লিন্ডসকে হারিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল। বিষয়টি হতাশার হলেও কোচ জেমি অবশ্য এটিকে ‘পেশাদারি’ দৃষ্টিতে দেখছেন। লিন্ডসের চলে যাওয়ার খবর শুনে খুবই মর্মাহত জাতীয় দলের তরুণ উদীয়মান উইঙ্গার বিপলু আহমেদ, ‘এশিয়ান গেমসে সবাই আমাদের ফিটনেসের প্রশংসা করেছে।

কারণ লিন্ডসে আমাদের নিয়ে কাতার ও দক্ষিণ কোরিয়ায় খুবই ভালো ট্রেনিং করিয়েছে। তার জিম ট্রেনিং খুবই ভালো ছিল। আমাদের খাদ্যাভ্যাসের ওপরেও তার নিয়ন্ত্রণ ছিল। প্রত্যেকটা খেলোয়াড়কে সে খুবই ভালো বুঝতে পারত। ফলে আমাদের আলাদা আলাদা ট্রেনিং করাত।

খেলা-ধূলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj