হাসিনা-অ্যা ডটারস টেল

শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮

হাসান আলী : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মেয়ে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে নির্মিত হয়েছে ডকুফিল্ম ‘হাসিনা- অ্যা ডটারস টেল’। এটি পরিচালনা করেছেন পিপলু খান। চলচ্চিত্রটি গত ১৬ নভেম্বর রাজধানীর স্টার সিনেপ্লেক্স, মধুমিতা সিনেমা হল, ব্লুকবাস্টার সিনেমাস ও চট্টগ্রামের সিলভার স্ক্রিনে একযোগে মুক্তি পায়। এর আগের দিন ১৫ নভেম্বর স্টার সিনেপ্লেক্সে সিনেমাটির প্রিমিয়ার অনুষ্ঠিত হয়। প্রিমিয়ারেই দর্শকদের মুগ্ধ করে সিনেমাটি। নাট্যকার মাসুম রেজা সিনেমাটি দেখার পর বলেন, ‘হাসিনা- অ্যা ডটারস টেল’ আসাধারণ একটা ছবি। শেখ মুজিবুর রহমানকে চিনতে হলে এই ছবি দেখতে হবে। ১৯৭২ সালে ডেভিড ফ্রস্টের সঙ্গে শেখ মুজিবের সাক্ষাৎকার অংশ থেকেই বুঝে নেয়া যায় কী অসীম সাহসী ছিলেন তিনি। স্যালুট পিতা, স্যালুট তোমাকে।’ তিনি আরো বলেন, ‘শেখ মুজিবকে নিয়ে সিনেমা নির্মাণের জন্য পিপলু খানই বানাতে সক্ষম। ভারতের ডিরেক্টর দরকার নেই।’

এক ঘণ্টা দশ মিনিট দৈর্ঘ্যরে ডকুফিল্মটিতে শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানার আবেগঘন কণ্ঠ আর দৃশ্যায়নে ফুটে উঠেছে বঙ্গবন্ধুকে ১৯৭৫ সালে নৃশংস হত্যা-পরবর্তী বিষাদপূর্ণ সময়ে দুই বোনের নির্বাসিত জীবন সংগ্রামের চিত্র। পরিচালক পিপলু খান বলেন, এই ডকুফিল্মে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনাকে উপস্থাপন করা হয়নি। এখানে তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু কন্যার সাধারণ ব্যক্তিত্ব। প্রধানমন্ত্রীর বাইরে তার ব্যক্তি জীবনকে। সেটিকে সবার সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে। আর এ কারণেই শেখ হাসিনার চারপাশের মানুষগুলোও ছবিটিতে নিজেদের জায়গা করে নিয়েছেন।

নির্মাতা পিপলু খান ছবিটি প্রসঙ্গে আরো বলেন, কাজের সর্বোচ্চ স্বাধীনতা পেয়েছি। ১৪ পৃষ্ঠার একটি কনসেপ্ট পেপার ও কিছু সঙ্গীতই ছিল একমাত্র সারথি। আপা, মানে শেখ হাসিনাকে আমি যেভাবে দেখাতে চাই, সেভাবেই কাজটা করেছি। তিনিও কোনো নিয়মনীতির ছক তৈরি করে দেননি। ব্যক্তি ও রাজনৈতিক জীবনের নানা অভিজ্ঞতা এবং দেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে তার দৃষ্টিভঙ্গিসহ প্রতিটি বিষয়ে গবেষণা করতে হয়েছে। তুলে ধরা হয়েছে একজন সাধারণ শেখ হাসিনাকে। খুব সহজেই একাত্ম হওয়া যায় যার সঙ্গে এবং অনুভব করা যায় তার মানবিকতা ও মমত্ব। আশা করছি, ছবিটি সবার ভালো লাগবে। যারা শেখ হাসিনাকে ভালোবাসেন বা তাকে যারা ভালোবাসেন না তাদের প্রত্যেকেরই উচিত সিনেমাটি দেখা।’

আওয়ামী লীগের গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিআরআই ও অ্যাপেল বক্স ফিল্মসের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হয়েছে ‘হাসিনা : অ্যা ডটারস টেল’। সেন্টার ফর রিচার্স অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) পক্ষে ডকুফিল্মটি প্রযোজনা করেছেন রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ও নসরুল হামিদ বিপু। চলচ্চিত্রটির চিত্রগ্রহণ করেছেন সাদিক আহমেদ। সম্পাদনা করেছেন নবনীতা সেন এবং সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন দেবজ্যোতি মিশ্র। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সূত্রে জানা গেছে, আপাতত চারটি সিনেপ্লেক্সে সিনেমাটির প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। পরবর্তী সময়ে সারাদেশে প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করা হবে।

মেলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj