জলের আখ্যান : হরিশংকর জলদাস

শুক্রবার, ১২ অক্টোবর ২০১৮

এ এক অদ্ভুত উপন্যাস। আমরা স্থলজীবনের কথা জানি, জলজীবনের কতটুকু জানি? কাহিনীটা যদি জলতলের হয়, চরিত্ররা যদি মৎস্য হয়, তাহলে তো এ কাহিনী অনাস্বাদিতপূর্ব। অকল্পনীয়ও বটে। হরিশংকর জলদাসের ‘জলের আখ্যান’ সেরকম উপন্যাস। এই উপন্যাসের সকল চরিত্র মাছ। মনুষ্য চরিত্রও মাঝে মাঝে উঁকি দিয়েছে। তবে মানুষ এখানে মুখ্য নয়। মাছেদেরও সমাজজীবন আছে। আছে মৎস্য স¤প্রদায়। মাছদের আছে প্রেম-অপ্রেম, রিরংসা-ক্রোধ। প্রয়োজনে এরা লুণ্ঠন, যুদ্ধ, রাহাজানিও করে। মৎস্যসমাজে ৪৯ প্রকার চিকিৎসক আছে। এদের চামড়ার রং আর্জেন্টিনার ফুটবলারদের জার্সির মতো। হরিশংকরের এই উপন্যাসের পটভূমি বঙ্গোবসাগরের জলতল। মাছদের মুখে কথা বসিয়ে মৎস্যজীবনের গল্প বলেছেন তিনি। এতদিন মৎস্যজীবীদের আখ্যান শুনিয়েছেন হরিশংকর, ‘জলের আখ্যানে’ শোনাতে বসেছেন মৎস্যজীবনের আখ্যান। উপন্যাসটি ধারাবাহিকভাবে ভোরের কাগজ সাহিত্য সাময়িকীতে প্রকাশিত হচ্ছে আগামী সংখ্যা থেকে।

সাময়িকী'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj