তুলা উৎপাদন কমতে পারে ভারতে

শুক্রবার, ১২ অক্টোবর ২০১৮

অর্থ শিল্প ডেস্ক : আন্তর্জাতিক বাজারে ভারতীয় তুলার চাহিদা দ্রুত বাড়ছে। চীন-যুক্তরাষ্ট্র বাণিজ্যযুদ্ধের জের ধরে চীনা আমদানিকারকরাও স্বল্পমূল্যে ভালোমানের তুলার জন্য ভারতমুখী হয়েছে। ফলে আগামী দিনগুলোয় ভারতীয় তুলা রপ্তানি খাতে বড় ধরনের সমৃদ্ধির সম্ভাবনা দেখছিলেন খাতসংশ্লিষ্টরা। তবে বাস্তবতা ভিন্ন কথা বলছে। রপ্তানি চাহিদা বেশি থাকা সত্ত্বেও চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে যাচ্ছে ভারতের তুলা খাত। মূলত উৎপাদনের গতি ঊর্ধ্বমুখী রাখা এখন ভারতীয় তুলা উৎপাদনকারীদের সামনে বড় চ্যালেঞ্জ। তুলনামূলক কম বৃষ্টিপাত ও ক্ষতিকারক পিংক বলওয়ার্ম পোকার প্রকোপ ২০১৮-১৯ মৌসুমে ভারতে তুলা উৎপাদন আগের মৌসুমের তুলনায় ৪ দশমিক ৭ শতাংশ কমিয়ে দিতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

ভারতের কটন করপোরেশনের আওতাধীন কটন এসোসিয়েশন অব ইন্ডিয়ার (সিএআই) প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, সাম্প্রতিক সময়ের মধ্যে ২০১৩-১৪ মৌসুমে ভারতে সবচেয়ে বেশি তুলা উৎপাদন হয়েছে। এ সময় দেশটিতে সব মিলিয়ে ৩ কোটি ৯৮ লাখ বেল (প্রতি বেলে ৭০ কেজি) তুলা উৎপাদন হয়েছিল।

পরের অর্থবছরে দেশটিতে পণ্যটির উৎপাদন কমে দাঁড়ায় ৩ কোটি ৮৬ লাখ বেলে, যা আগের অর্থবছরের তুলনায় ১২ লাখ বেল কম। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ভারতে মোট ৩ কোটি ৩৮ লাখ বেল তুলা উৎপাদন হয়েছিল। আগের অর্থবছরের তুলনায় এ সময় দেশটিতে ৪৮ লাখ বেল কম তুলা উৎপাদন হয়েছে।

সাম্প্রতিক সময়ের মধ্যে ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ভারতে সবচেয়ে কম তুলা উৎপাদন হয়েছে। এ সময় দেশটিতে উৎপাদিত তুলার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ৩৭ লাখ বেল, যা আগের অর্থবছরের তুলনায় এক লাখ বেল কম। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে এসে ঘুরে দাঁড়ায় ভারতীয় তুলা উৎপাদন খাত। এ সময় দেশটিতে আগের অর্থবছরের তুলনায় ২৮ লাখ বেল বেড়ে মোট ৩ কোটি ৬৫ লাখ বেল তুলা উৎপাদন হয়েছে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে সিএআই। প্রতিষ্ঠানটির পূর্বাভাস অনুযায়ী, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ভারতে সব মিলিয়ে ৩ কোটি ৪৮ লাখ বেল তুলা উৎপাদন হতে পারে, যা আগের অর্থবছরের তুলনায় ৪ দশমিক ৭ শতাংশ কম। সে হিসেবে, এক বছরের ব্যবধানে দেশটিতে তুলা উৎপাদন কমতে পারে ১৭ লাখ বেল।

অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj