শব্দ ও পানি দূষণ কী

শুক্রবার, ১২ অক্টোবর ২০১৮

বড় বড় শহর ও বিমানবন্দরের কাছাকাছি বাসিন্দারা দ্রুত শ্রবণশক্তি হারিয়ে ফেলছেন। প্রচণ্ড শব্দ সৃষ্টিকারী কনকর্ড বিমানকে শুধু আমাদের দেশেই নয়, অনেক দেশের আকাশপথেই প্রথমে ওড়ার অনুমতি দেয়া হয়নি। শব্দ যদি বিরক্তির কারণ হয়ে দাঁড়ায়, তবে তা থেকে গ্যাসট্রিক আলসার বা পাকস্থলির ক্ষত সৃষ্টি হতে পারে, হতে পারে হৃৎপিণ্ডের ব্যাধি। অতিরিক্ত শব্দ স্মৃতিশক্তি কমায়, মেজাজ খিটখিটে এবং শরীর অবসন্ন করে তোলে। লাউডস্পিকারের প্রচণ্ড আওয়াজ, অপরিসর ঘরে স্টিরিওফোনিক রেকর্ড প্লেয়ার এবং রেডিওর উঁচু পর্দার ধ্বনি-তরঙ্গ আমাদের কেবল শ্রবণেন্দ্রিয়েরই নয়, ¯œায়ুমণ্ডলীরও ক্ষতি করছে। ফলে অসহিষ্ণুতা, রক্তচাপ, অনিদ্রা ইত্যাদি নানা ব্যাধির শিকার হচ্ছে মানুষ।

পানির দূষণ

পৃথিবীর তিনভাগ পানি আর একভাগ স্থল। কিন্তু এ জন্য হা-হুতাশ করে লাভ নেই। কারণ পানি ও স্থলের এই অনুপাতই মানুষ ও অন্যান্য জীবের বেঁচে থাকার সবচেয়ে বড় ভরসা। কিন্তু এটাই যথেষ্ট নয়, বিশুদ্ধ পানিই প্রাণের সহায়, দূষিত পানি নয়। দ্রুত শিল্পায়নের ফলে এবং পৃথিবীর জনসংখ্যার ক্রমাগত বেড়ে যাওয়ার দরুন পানি দূষিত হচ্ছে। পৃথিবীজুড়ে ফসলের উৎপাদনের বৃদ্ধির জন্য ব্যাপকহারে জমিতে রাসায়নিক সারের প্রয়োগ বাড়ছে তার একটি অংশ বৃষ্টির পানির সঙ্গে এসে পড়ছে নদী-নালায়। ফলে নদী-নালায় জলজ উদ্ভিদের পরিমাণ বাড়ছে। এতে পানিতে মিশ্রিত অক্সিজেনের পরিমাণ কমছে; মাছের স্বাস্থ্যের পক্ষে তা অনিষ্টকর হয়ে উঠছে।

সমুদ্রে জাহাজ চলাচল বাড়ছে বেশিরভাগই ডিজেল চালিত জাহাজ। ফলে পোড়া ডিজেলের আবর্জনা সমুদ্রের পানি দূষিত করছে। মারা পড়ছে মাছেরা, সামুদ্রিক প্রাণীরা। কলকারখানার আবর্জনা নিয়মিতভাবে সমুদ্রের পানিকে দূষিত করছে। আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর আলাবামায় ১৯৭৯ সালের কোনো এক সময় নাগরিকদের হুঁশিয়ার করে দেয়া হয় যে তারা যেন ওই অঞ্চলের জেলেদের হাতে ধরা মাছ না খান। কারণ পরীক্ষা করে দেখা গেল মাছগুলোর দেহে সাংঘাতিক পরিমাণে ফসলের ক্ষেতে ছড়ানো রোগ পোকা মারার ডিডিটি জমা হয়ে আছে। অনেক ক্ষেত্রে পারমাণবিক বিদ্যুৎ উৎপাদক কারখানাগুলোর তেজস্ক্রিয় আর্জনা সমুদ্রে পড়ে পানি দূষিত করছে। সারা বছর ধরে পৃথিবীর অঞ্চলগুলোতে ঘুরে বেড়াচ্ছে পারমাণবিক শক্তি চালিত সাবমেরিন ও বিমানবাহী জাহাজ। সমগ্র মানবজাতির সর্বনাশ মানুষ নিজেই ডেকে আনছে। গ্রন্থনা : ইমরুল ইউসুফ

সারাদেশ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj