মেডিকেল ছাত্রীর মামলায় প্রভাষক রিমান্ডে

বৃহস্পতিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

কাগজ প্রতিবেদক, সিরাজগঞ্জ : সিরাজগঞ্জের নর্থ বেঙ্গল মেডিকেল কলেজের এক নেপালি ছাত্রীর শ্লীলতাহানির মামলায় গ্রেপ্তার ওই কলেজের এক প্রভাষককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নেয়ার আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল বুধবার সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম মোহাম্মদ মোরশেদ আলম ওই শিক্ষককে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের আদেশ দেন। গ্রেপ্তারকৃত ডা. তুহিনুর রহমান তুহিন বেসরকারি নর্থ বেঙ্গল মেডিকেল কলেজের ফরেনসিক বিভাগের প্রভাষক।

এদিকে অভিযোগ তদন্তে কমিটি গঠন ও প্রভাষককে সাময়িক বরখাস্ত করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

জানা যায়, বুধবার সকালে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সদর থানার পরিদর্শক (অপারেশন) নুরুল ইসলাম ওই প্রভাষককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিনের হেফাজতের আবেদন করেন আদালতে। শুনানি শেষে আদালত তাকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একদিনের হেফাজত (রিমান্ড) মঞ্জুর করেন।

পুলিশ জানায়, নেপাল থেকে পড়তে আসা এই কলেজের ৫ম বর্ষের এক ছাত্রী শ্লীলতাহানির অভিযোগ এনে গত সোমবার সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এরপর পুলিশ ডা. তুহিনকে শহরের ধানবান্ধী মহল্লায় তার ভাড়া বাসা থেকে গ্রেপ্তার করে এবং আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠায়।

প্রভাষক তুহিন নাটোরের লালপুর উপজেলার দুড়দুড়িয়া গ্রামের মৃত আব্দুল আজিজের ছেলে। কলেজে চাকরির পাশাপাশি সিরাজগঞ্জ শহরের মেডিনোভা ক্লিনিকে নিয়মিত রোগী দেখেন তুহিন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, গত শুক্রবার ছাত্রীটিকে মেডিনোভা ক্লিনিকে ডেকে নেন তুহিন। এরপর তিনি ওই ছাত্রীর স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিলে মেয়েটি প্রতিবাদ করেন। তখন ডা. তুহিন মেয়েটিকে মারধর করেন।

নর্থ বেঙ্গল মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ এস এম আকরাম হোসেন বলেন, শিক্ষার্থীর অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ার পর ডা. তুহিনকে সাময়িক বরখাস্ত এবং কলেজের পক্ষ থেকে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হলে ওই প্রভাষককে স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হবে।

শেষ পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj